I am a student
  • Verified Member
  • Male
  • 05/03/1998
  • Followed by 65 people
Recent Updates
  • আলহামদুলিল্লাহ, অনেক ভালো লাগলো, ছবি পোস্ট করার সাথে সাথে পোস্ট হয়ে গেল, আলহামদুলিল্লাহ
    আলহামদুলিল্লাহ, অনেক ভালো লাগলো, ছবি পোস্ট করার সাথে সাথে পোস্ট হয়ে গেল, আলহামদুলিল্লাহ
    5
    0 Comments 0 Shares
  • 5
    1 Comments 0 Shares
  • ২০ বছর পর ফের ক্ষমতায় তালেবান

    মার্কিন নেত্বতৃধীন বাহিনীর কাছে ক্ষমতাচ্যূত হওয়ার ২০ বছর পর ফের আফগানিস্তানের ক্ষমতা নিচ্ছে তালেবান।

    প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি তাজিকিস্তানের উদ্দেশ্যে দেশ ছেড়ে পালিয়ে যাওয়ার পর প্রেসিডেন্ট প্যালেস তালেবান দখলে নিয়েছে বলে তালেবানের দুই কমান্ডার জানিয়েছেন। তবে আফগান সরকারের তরফ থেকে তালেবানের এই দাবি নিশ্চিত করা হয়নি।

    তালেবান বাহিনীকে কাবুলে প্রবেশ করতে বলা হয়েছে বলে সংগঠনটির মুখপাত্র জাহিবুল্লাহ মুজাহিদ স্থানীয় টোলো নিউজকে জানিয়েছেন। কাবুলের নিরাপত্তা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণেই রাখা হবে বলে নিশ্চিত করেছেন তিনি।

    আফগান প্রেসিডেন্ট প্যালেস এক টুইট বার্তায় জানিয়েছে কাবুলের বিভিন্ন স্থান থেকে গোলাগুলির শব্দ শোনা যাচ্ছে।

    তবে তালেবানের নেতৃত্বাধীন অন্তর্বতী সরকারের কাছে আফগান সরকার শান্তিপূর্ণভাবেই ক্ষমতা হস্তান্তর করবে বলে দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আবদুল সাত্তার মির্জাকওয়াল রোববার জানিয়েছেন।

    স্থানীয় টোলো টিভিতে প্রচারিত এক ভিডিও বার্তায় মির্জাকওয়াল জানিয়েছেন, আফগান জনগণের উদ্বিগ্ন হওয়ার কারণ নেই। রাজধানীতে কোনো হামলা হবে না। শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তর করা হবে।

    অন্যদিকে, তালেবানও রোববার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, শান্তিপূর্ণ ক্ষমতা হস্তান্তর নিয়ে তারা ‘অপর পক্ষের’ সাথে কথা বলেছেন। তালেবান সহিংসতা থেকে দূরে থাকবে বলেও ওই বিবৃতি বলা হয়েছে।

    তালেবানের এক মুখপাত্র গণমাধ্যমকে জানিয়েছে, কোনো কাবুলবাসীর জীবন, সম্পদ কিংবা সন্মান ঝুঁকির মুখে পড়বে না।

    বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবরে বলা হচ্ছে, আফগানিস্তানের নতুন প্রেসিডেন্ট হতে যাচ্ছেন তালেবানের সিনিয়র নেতা মোল্লা আব্দুল গনি বারাদার।

    সূত্র বলছে, তালেবানের এই নেতা রোববার সকালে আশরাফ গনি এবং আমেরিকার কূটনীতিবিদদের সঙ্গে সমঝোতা করতে প্রেসিডেন্টের বাসভবনে হাজির হন।

    এর আগে শনিবার রাতে আফগানিস্তানের উত্তরের মাজার-ই-শরিফ দখলের পর থেকেই কাবুলের পতন ঘণ্টা বাজতে শুরু করে। রোববার সকালে জালালাবাদ দখলের মাধ্যমে বর্তমান আফগান সরকারের চূড়ান্ত পতন শুরু হয়। এর পর তালেবান যোদ্ধারা দলে দলে রাজধানী কাবুলে ঢুকতে শুরু করেন।
    ২০ বছর পর ফের ক্ষমতায় তালেবান মার্কিন নেত্বতৃধীন বাহিনীর কাছে ক্ষমতাচ্যূত হওয়ার ২০ বছর পর ফের আফগানিস্তানের ক্ষমতা নিচ্ছে তালেবান। প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি তাজিকিস্তানের উদ্দেশ্যে দেশ ছেড়ে পালিয়ে যাওয়ার পর প্রেসিডেন্ট প্যালেস তালেবান দখলে নিয়েছে বলে তালেবানের দুই কমান্ডার জানিয়েছেন। তবে আফগান সরকারের তরফ থেকে তালেবানের এই দাবি নিশ্চিত করা হয়নি। তালেবান বাহিনীকে কাবুলে প্রবেশ করতে বলা হয়েছে বলে সংগঠনটির মুখপাত্র জাহিবুল্লাহ মুজাহিদ স্থানীয় টোলো নিউজকে জানিয়েছেন। কাবুলের নিরাপত্তা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণেই রাখা হবে বলে নিশ্চিত করেছেন তিনি। আফগান প্রেসিডেন্ট প্যালেস এক টুইট বার্তায় জানিয়েছে কাবুলের বিভিন্ন স্থান থেকে গোলাগুলির শব্দ শোনা যাচ্ছে। তবে তালেবানের নেতৃত্বাধীন অন্তর্বতী সরকারের কাছে আফগান সরকার শান্তিপূর্ণভাবেই ক্ষমতা হস্তান্তর করবে বলে দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আবদুল সাত্তার মির্জাকওয়াল রোববার জানিয়েছেন। স্থানীয় টোলো টিভিতে প্রচারিত এক ভিডিও বার্তায় মির্জাকওয়াল জানিয়েছেন, আফগান জনগণের উদ্বিগ্ন হওয়ার কারণ নেই। রাজধানীতে কোনো হামলা হবে না। শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তর করা হবে। অন্যদিকে, তালেবানও রোববার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, শান্তিপূর্ণ ক্ষমতা হস্তান্তর নিয়ে তারা ‘অপর পক্ষের’ সাথে কথা বলেছেন। তালেবান সহিংসতা থেকে দূরে থাকবে বলেও ওই বিবৃতি বলা হয়েছে। তালেবানের এক মুখপাত্র গণমাধ্যমকে জানিয়েছে, কোনো কাবুলবাসীর জীবন, সম্পদ কিংবা সন্মান ঝুঁকির মুখে পড়বে না। বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবরে বলা হচ্ছে, আফগানিস্তানের নতুন প্রেসিডেন্ট হতে যাচ্ছেন তালেবানের সিনিয়র নেতা মোল্লা আব্দুল গনি বারাদার। সূত্র বলছে, তালেবানের এই নেতা রোববার সকালে আশরাফ গনি এবং আমেরিকার কূটনীতিবিদদের সঙ্গে সমঝোতা করতে প্রেসিডেন্টের বাসভবনে হাজির হন। এর আগে শনিবার রাতে আফগানিস্তানের উত্তরের মাজার-ই-শরিফ দখলের পর থেকেই কাবুলের পতন ঘণ্টা বাজতে শুরু করে। রোববার সকালে জালালাবাদ দখলের মাধ্যমে বর্তমান আফগান সরকারের চূড়ান্ত পতন শুরু হয়। এর পর তালেবান যোদ্ধারা দলে দলে রাজধানী কাবুলে ঢুকতে শুরু করেন।
    5
    0 Comments 0 Shares
  • 2
    0 Comments 0 Shares
  • লকডাউনের ষষ্ঠ দিনে গ্রেফতার আরও ৫৬২
    করোনার সংক্রমণ রোধে বিধিনিষেধের ষষ্ঠ দিনে আরও ৫৬২ জনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)।বিনা কারণে ঘরের বাইরে বের হওয়ায় তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে বলে দাবি ডিএমপির। পাশাপাশি ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ২০৮ জনকে ১ লাখ ৬১ হাজার ৩০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।
    বুধবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত এই গ্রেফতার ও জরিমানা করা হয়। ডিএমপির মিডিয়া শাখার অতিরিক্ত উপ-কমিশনার ইফতেখারুল ইসলাম এসব তথ্য জানান।এছাড়া ট্রাফিক বিভাগ ৪৮৯ গাড়ির বিপরীতে ১১ লাখ ৩৩ হাজার টাকা জরিমানা করেছে।
    লকডাউনের ষষ্ঠ দিনে গ্রেফতার আরও ৫৬২ করোনার সংক্রমণ রোধে বিধিনিষেধের ষষ্ঠ দিনে আরও ৫৬২ জনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)।বিনা কারণে ঘরের বাইরে বের হওয়ায় তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে বলে দাবি ডিএমপির। পাশাপাশি ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ২০৮ জনকে ১ লাখ ৬১ হাজার ৩০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। বুধবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত এই গ্রেফতার ও জরিমানা করা হয়। ডিএমপির মিডিয়া শাখার অতিরিক্ত উপ-কমিশনার ইফতেখারুল ইসলাম এসব তথ্য জানান।এছাড়া ট্রাফিক বিভাগ ৪৮৯ গাড়ির বিপরীতে ১১ লাখ ৩৩ হাজার টাকা জরিমানা করেছে।
    1
    0 Comments 0 Shares
  • করোনা শনাক্তের নতুন রেকর্ড, আরো ২৩৭ জনের মৃত্যু,



    মহামারী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন আরো ২৩৭ জন। আর এর মাধ্যমে ২০ হাজার অতিক্রম করলো মোট মৃতের সংখ্যা। এছাড়া নতুন করে ভাইরাসটি শনাক্ত হয়েছে আরো ১৬ হাজার ২৩০ জনের শরীরে, যা এ পর্যন্ত শনাক্তের সর্বোচ্চ সংখ্যা।

    এ নিয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে দেশে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ২০ হাজার ১৬ জনে। আর এ পর্যন্ত মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ১২ লাখ ১০ হাজার ৯৮২ জন।
    গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৫৩ হাজার ৮৭৭টি। শনাক্তের হার ৩০.১২ শতাংশ।

    আরো উল্লেখ করা হয়, এদিন সুস্থ হয়েছেন আরো ১৩ হাজার ৪৭০ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ১০ লাখ ৩৪ হাজার ৮৮৪ জন
    করোনা শনাক্তের নতুন রেকর্ড, আরো ২৩৭ জনের মৃত্যু, মহামারী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন আরো ২৩৭ জন। আর এর মাধ্যমে ২০ হাজার অতিক্রম করলো মোট মৃতের সংখ্যা। এছাড়া নতুন করে ভাইরাসটি শনাক্ত হয়েছে আরো ১৬ হাজার ২৩০ জনের শরীরে, যা এ পর্যন্ত শনাক্তের সর্বোচ্চ সংখ্যা। এ নিয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে দেশে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ২০ হাজার ১৬ জনে। আর এ পর্যন্ত মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ১২ লাখ ১০ হাজার ৯৮২ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৫৩ হাজার ৮৭৭টি। শনাক্তের হার ৩০.১২ শতাংশ। আরো উল্লেখ করা হয়, এদিন সুস্থ হয়েছেন আরো ১৩ হাজার ৪৭০ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ১০ লাখ ৩৪ হাজার ৮৮৪ জন
    1
    0 Comments 0 Shares
  • 🎆🎆বাজারে প্রবেশ করার পর মাসনুন দোয়া🎆🎆🎇🎇🎇🎇👳‍♀️🌼🌼🌼🌼🌼🌼🌷🌷🌷👎
    আল্লাহ তায়ালার কাছে বাজার হচ্ছে সবচেয়ে অপছন্দের জায়গা। কিন্তু জীবনের প্রয়োজনেই আমাদেরকে বাজারে যেতে হয়। রাসূলের (সা) সুন্নাহ অনুযায়ী, বাজারে গিয়ে আমরা ছোট্ট একটি দুআ পাঠ করে অনেক বেশি ফজিলত হাসিল করতে পারি।

    বাজারে প্রবেশ করে নিচের দুআটি পাঠ করলে আল্লাহ তায়ালা তার জন্য দশ লক্ষ নেকী বরাদ্দ করেন, তার দশ লক্ষ গুনাহ মাফ করেন এবং তার দশ লক্ষ গুণ সম্মান বৃদ্ধি করেন।

    لاَ إِلَهَ إِلاَّ اللَّهُ وَحْدَهُ لاَ شَرِيكُ لَهُ لَهُ الْمُلْكُ وَلَهُ الْحَمْدُ يُحْيِي وَيُمِيتُ وَهُوَ حَىٌّ لاَ يَمُوتُ بِيَدِهِ الْخَيْرُ وَهُوَ عَلَى كُلِّ شَيْءٍ قَدِيرٌ

    অর্থঃ “আল্লাহ তা‘আলা ব্যতীত কোন মাবূদ নেই, তিনি এক, তাঁর কোন অংশীদার নেই, সকল ক্ষমতা তাঁরই, সমস্ত প্রশংসা তাঁর জন্য, তিনিই প্রাণ দান করেন ও মৃত্যু দেন, তিনি চিরজীবি, তিনি কক্ষনো মৃত্যুবরণ করবেন না, তাঁর হাতেই মঙ্গল এবং তিনিই সবসময় প্রত্যেক বস্তুর উপর ক্ষমতার অধিকারী”

    আল্লাহ আমাদের সবাইকে সুন্নতের উপর আমল করার তাওফিক দান করুন। আমীন।

    রেফারেন্সঃ
    জামে আত-তিরমিযি, হাদীস নং ৩৪২৮। ।
    🎆🎆বাজারে প্রবেশ করার পর মাসনুন দোয়া🎆🎆🎇🎇🎇🎇👳‍♀️🌼🌼🌼🌼🌼🌼🌷🌷🌷👎 আল্লাহ তায়ালার কাছে বাজার হচ্ছে সবচেয়ে অপছন্দের জায়গা। কিন্তু জীবনের প্রয়োজনেই আমাদেরকে বাজারে যেতে হয়। রাসূলের (সা) সুন্নাহ অনুযায়ী, বাজারে গিয়ে আমরা ছোট্ট একটি দুআ পাঠ করে অনেক বেশি ফজিলত হাসিল করতে পারি। বাজারে প্রবেশ করে নিচের দুআটি পাঠ করলে আল্লাহ তায়ালা তার জন্য দশ লক্ষ নেকী বরাদ্দ করেন, তার দশ লক্ষ গুনাহ মাফ করেন এবং তার দশ লক্ষ গুণ সম্মান বৃদ্ধি করেন। لاَ إِلَهَ إِلاَّ اللَّهُ وَحْدَهُ لاَ شَرِيكُ لَهُ لَهُ الْمُلْكُ وَلَهُ الْحَمْدُ يُحْيِي وَيُمِيتُ وَهُوَ حَىٌّ لاَ يَمُوتُ بِيَدِهِ الْخَيْرُ وَهُوَ عَلَى كُلِّ شَيْءٍ قَدِيرٌ অর্থঃ “আল্লাহ তা‘আলা ব্যতীত কোন মাবূদ নেই, তিনি এক, তাঁর কোন অংশীদার নেই, সকল ক্ষমতা তাঁরই, সমস্ত প্রশংসা তাঁর জন্য, তিনিই প্রাণ দান করেন ও মৃত্যু দেন, তিনি চিরজীবি, তিনি কক্ষনো মৃত্যুবরণ করবেন না, তাঁর হাতেই মঙ্গল এবং তিনিই সবসময় প্রত্যেক বস্তুর উপর ক্ষমতার অধিকারী” আল্লাহ আমাদের সবাইকে সুন্নতের উপর আমল করার তাওফিক দান করুন। আমীন। রেফারেন্সঃ জামে আত-তিরমিযি, হাদীস নং ৩৪২৮। ।
    4
    0 Comments 0 Shares
  • মানুষ শুধু দেখে ব্যক্তির পরিবর্তন হওয়া। কিন্তু পরিবর্তন হওয়ার কারণ দেখেনা
    মানুষ শুধু দেখে ব্যক্তির পরিবর্তন হওয়া। কিন্তু পরিবর্তন হওয়ার কারণ দেখেনা
    5
    1 Comments 0 Shares
  • 🌙 ঈদ মুবারাক🌙
    تَقَبَّلَ اللّهُ مِنَّ وَ مِنْكُمْ
    "তাকাব্বালাল্লাহু মিন্না ওয়া মিনকুম।
    🌙 ঈদ মুবারাক🌙 تَقَبَّلَ اللّهُ مِنَّ وَ مِنْكُمْ "তাকাব্বালাল্লাহু মিন্না ওয়া মিনকুম।
    6
    0 Comments 0 Shares
  • আজ17 রমজান শেষ হইতেছে ।আজকে ছিল ঐতিহাসিক বদর দিবস
    আজ17 রমজান শেষ হইতেছে ।আজকে ছিল ঐতিহাসিক বদর দিবস
    5
    0 Comments 0 Shares
More Stories