• 🥰🏦🛒 শপিং করতে আর নয় মার্কেটে বরং আপনার পছন্দের শপিং যাবে আপনার ঘরে 🥰🏦🛒
    এই বছরের ধামাকা,,,,,, ঈদের 🥰অফার 🥰অফার 🥰অফার
    🥰🛒 আপনাকে বার বার কোয়ালিটি সার্ভিস দেওয়া আমাদের মূল লক্ষ্য 🛒🥰।
    👉 ১০০% কোয়ালিটি প্রোডাক্টসের নিশ্চয়তা আমরা দিচ্ছি আপনাকে।
    👉 অর্ডার করার 24 ঘন্টা মধ্যে ডেলিভারি দেয়া হয়,,
    👉 ক্যাশ অন এবং হোম ডেলিভারি সুবিধা।
    👉 ছবির সাথে মিল, সেম ড্রেস প্রাপ্তির নিশ্চয়তা আমরা আপনাকে দিতে পারি ইনশাআল্লাহ ।
    👉👉 ছবির সাথে পণ্যের মিল না থাকলে ফেরত দিতে পারবেন। https://justbd.net/contact-support-delivery-return-replace/
    👉 আকর্ষনীয় এবং আরামদায়ক ড্রেস।
    👉 ক্রয় করতে পারেন পেজ থেকে বা আমাদের ওয়েভ সাইট থেকে। ওয়েভ সাইট লিংক https://justbd.net/
    👉 প্রয়োজনে ফোন করুনঃ 01708099136.
    👉 ডেলিভারী চার্জ ঢাকা ও চট্টগ্রাম মেট্রো এর ভিতরে ৬০/- টাকা। ঢাকা চট্টগ্রাম মেট্রো এর বাহিরে ডেলিভারী চার্জ ১৩০/- টাকা।
    বিঃ দ্রঃ অর্ডার কনফার্ম করার জন্য শুধুমাত্র ডেলিভারি চার্জ টা বিকাশ/ নগদ/ রকেটে পাঠাতে হবে।
    (বিকাশ-01815149172).
    (নগদ/ রকেট-01708099136).
    ঘরে বসে স্বাচ্ছন্দে্ শপিং করুন justbd.net হতে, আর নিশ্চিন্তে থাকুন পণ্যের গুনগত মান ও ডেলিভারি নিয়ে। এছাড়াও পণ্যগুলো দেখতেও আকর্ষণীয় এবং দামে সাশ্রয়ী।
    বিস্তারিত জানতে অথবা অর্ডার করতে SHOP NOW বাঁটনে ক্লিক করুন বা কল করুনঃ 01708099136.
    আরও তথ্যের জন্য লিংকে ক্লিক করুন https://justbd.net/ অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন: 01708099136.
    🤔আপনার অনলাইন শপিং হোক সুনিশ্চিত, আনন্দের ও আস্থার ।
    আমাদের Android App লিংক https://play.google.com/store/apps/details?id=com.bponi.storeJustbd
    আমাদের সাথে থাকার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ, ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন, আল্লাহ হাফেজ 🥰
    🥰🏦🛒 শপিং করতে আর নয় মার্কেটে বরং আপনার পছন্দের শপিং যাবে আপনার ঘরে 🥰🏦🛒 এই বছরের ধামাকা,,,,,, ঈদের 🥰অফার 🥰অফার 🥰অফার 🥰🛒 আপনাকে বার বার কোয়ালিটি সার্ভিস দেওয়া আমাদের মূল লক্ষ্য 🛒🥰। 👉 ১০০% কোয়ালিটি প্রোডাক্টসের নিশ্চয়তা আমরা দিচ্ছি আপনাকে। 👉 অর্ডার করার 24 ঘন্টা মধ্যে ডেলিভারি দেয়া হয়,, 👉 ক্যাশ অন এবং হোম ডেলিভারি সুবিধা। 👉 ছবির সাথে মিল, সেম ড্রেস প্রাপ্তির নিশ্চয়তা আমরা আপনাকে দিতে পারি ইনশাআল্লাহ । 👉👉 ছবির সাথে পণ্যের মিল না থাকলে ফেরত দিতে পারবেন। https://justbd.net/contact-support-delivery-return-replace/ 👉 আকর্ষনীয় এবং আরামদায়ক ড্রেস। 👉 ক্রয় করতে পারেন পেজ থেকে বা আমাদের ওয়েভ সাইট থেকে। ওয়েভ সাইট লিংক https://justbd.net/ 👉 প্রয়োজনে ফোন করুনঃ 01708099136. 👉 ডেলিভারী চার্জ ঢাকা ও চট্টগ্রাম মেট্রো এর ভিতরে ৬০/- টাকা। ঢাকা চট্টগ্রাম মেট্রো এর বাহিরে ডেলিভারী চার্জ ১৩০/- টাকা। বিঃ দ্রঃ অর্ডার কনফার্ম করার জন্য শুধুমাত্র ডেলিভারি চার্জ টা বিকাশ/ নগদ/ রকেটে পাঠাতে হবে। (বিকাশ-01815149172). (নগদ/ রকেট-01708099136). ঘরে বসে স্বাচ্ছন্দে্ শপিং করুন justbd.net হতে, আর নিশ্চিন্তে থাকুন পণ্যের গুনগত মান ও ডেলিভারি নিয়ে। এছাড়াও পণ্যগুলো দেখতেও আকর্ষণীয় এবং দামে সাশ্রয়ী। বিস্তারিত জানতে অথবা অর্ডার করতে SHOP NOW বাঁটনে ক্লিক করুন বা কল করুনঃ 01708099136. আরও তথ্যের জন্য লিংকে ক্লিক করুন https://justbd.net/ অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন: 01708099136. 🤔আপনার অনলাইন শপিং হোক সুনিশ্চিত, আনন্দের ও আস্থার । আমাদের Android App লিংক https://play.google.com/store/apps/details?id=com.bponi.storeJustbd আমাদের সাথে থাকার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ, ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন, আল্লাহ হাফেজ 🥰
    1
    0 Comments 0 Shares
  • 🥰🏦🛒 শপিং করতে আর নয় মার্কেটে বরং আপনার পছন্দের শপিং যাবে আপনার ঘরে 🥰🏦🛒
    এই বছরের ধামাকা,,,,,, ঈদের 🥰অফার 🥰অফার 🥰অফার
    🥰🛒 আপনাকে বার বার কোয়ালিটি সার্ভিস দেওয়া আমাদের মূল লক্ষ্য 🛒🥰।
    👉 ১০০% কোয়ালিটি প্রোডাক্টসের নিশ্চয়তা আমরা দিচ্ছি আপনাকে।
    👉 অর্ডার করার 24 ঘন্টা মধ্যে ডেলিভারি দেয়া হয়,,
    👉 ক্যাশ অন এবং হোম ডেলিভারি সুবিধা।
    👉 ছবির সাথে মিল, সেম ড্রেস প্রাপ্তির নিশ্চয়তা আমরা আপনাকে দিতে পারি ইনশাআল্লাহ ।
    👉👉 ছবির সাথে পণ্যের মিল না থাকলে ফেরত দিতে পারবেন। https://justbd.net/contact-support-delivery-return-replace/
    👉 আকর্ষনীয় এবং আরামদায়ক ড্রেস।
    👉 ক্রয় করতে পারেন পেজ থেকে বা আমাদের ওয়েভ সাইট থেকে। ওয়েভ সাইট লিংক https://justbd.net/
    👉 প্রয়োজনে ফোন করুনঃ 01708099136.
    👉 ডেলিভারী চার্জ ঢাকা ও চট্টগ্রাম মেট্রো এর ভিতরে ৬০/- টাকা। ঢাকা চট্টগ্রাম মেট্রো এর বাহিরে ডেলিভারী চার্জ ১৩০/- টাকা।
    বিঃ দ্রঃ অর্ডার কনফার্ম করার জন্য শুধুমাত্র ডেলিভারি চার্জ টা বিকাশ/ নগদ/ রকেটে পাঠাতে হবে।
    (বিকাশ-01815149172).
    (নগদ/ রকেট-01708099136).
    ঘরে বসে স্বাচ্ছন্দে্ শপিং করুন justbd.net হতে, আর নিশ্চিন্তে থাকুন পণ্যের গুনগত মান ও ডেলিভারি নিয়ে। এছাড়াও পণ্যগুলো দেখতেও আকর্ষণীয় এবং দামে সাশ্রয়ী।
    বিস্তারিত জানতে অথবা অর্ডার করতে SHOP NOW বাঁটনে ক্লিক করুন বা কল করুনঃ 01708099136.
    আরও তথ্যের জন্য লিংকে ক্লিক করুন https://justbd.net/ অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন: 01708099136.
    🤔আপনার অনলাইন শপিং হোক সুনিশ্চিত, আনন্দের ও আস্থার ।
    আমাদের Android App লিংক https://play.google.com/store/apps/details?id=com.bponi.storeJustbd
    আমাদের সাথে থাকার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ, ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন, আল্লাহ হাফেজ 🥰
    🥰🏦🛒 শপিং করতে আর নয় মার্কেটে বরং আপনার পছন্দের শপিং যাবে আপনার ঘরে 🥰🏦🛒 এই বছরের ধামাকা,,,,,, ঈদের 🥰অফার 🥰অফার 🥰অফার 🥰🛒 আপনাকে বার বার কোয়ালিটি সার্ভিস দেওয়া আমাদের মূল লক্ষ্য 🛒🥰। 👉 ১০০% কোয়ালিটি প্রোডাক্টসের নিশ্চয়তা আমরা দিচ্ছি আপনাকে। 👉 অর্ডার করার 24 ঘন্টা মধ্যে ডেলিভারি দেয়া হয়,, 👉 ক্যাশ অন এবং হোম ডেলিভারি সুবিধা। 👉 ছবির সাথে মিল, সেম ড্রেস প্রাপ্তির নিশ্চয়তা আমরা আপনাকে দিতে পারি ইনশাআল্লাহ । 👉👉 ছবির সাথে পণ্যের মিল না থাকলে ফেরত দিতে পারবেন। https://justbd.net/contact-support-delivery-return-replace/ 👉 আকর্ষনীয় এবং আরামদায়ক ড্রেস। 👉 ক্রয় করতে পারেন পেজ থেকে বা আমাদের ওয়েভ সাইট থেকে। ওয়েভ সাইট লিংক https://justbd.net/ 👉 প্রয়োজনে ফোন করুনঃ 01708099136. 👉 ডেলিভারী চার্জ ঢাকা ও চট্টগ্রাম মেট্রো এর ভিতরে ৬০/- টাকা। ঢাকা চট্টগ্রাম মেট্রো এর বাহিরে ডেলিভারী চার্জ ১৩০/- টাকা। বিঃ দ্রঃ অর্ডার কনফার্ম করার জন্য শুধুমাত্র ডেলিভারি চার্জ টা বিকাশ/ নগদ/ রকেটে পাঠাতে হবে। (বিকাশ-01815149172). (নগদ/ রকেট-01708099136). ঘরে বসে স্বাচ্ছন্দে্ শপিং করুন justbd.net হতে, আর নিশ্চিন্তে থাকুন পণ্যের গুনগত মান ও ডেলিভারি নিয়ে। এছাড়াও পণ্যগুলো দেখতেও আকর্ষণীয় এবং দামে সাশ্রয়ী। বিস্তারিত জানতে অথবা অর্ডার করতে SHOP NOW বাঁটনে ক্লিক করুন বা কল করুনঃ 01708099136. আরও তথ্যের জন্য লিংকে ক্লিক করুন https://justbd.net/ অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন: 01708099136. 🤔আপনার অনলাইন শপিং হোক সুনিশ্চিত, আনন্দের ও আস্থার । আমাদের Android App লিংক https://play.google.com/store/apps/details?id=com.bponi.storeJustbd আমাদের সাথে থাকার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ, ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন, আল্লাহ হাফেজ 🥰
    1
    0 Comments 0 Shares
  • প্রিয় নবী (সাঃ) বলেন, যখন লাইলাতুল ক্বদর উপস্থিত হয়, তখন হযরত জিবরাঈল আমীন একদল ফেরেশতাসহ পৃথিবীতে নেমে আসেন। তাদের সাথে সবুজ রঙের একটা ঝাণ্ডা থাকে যা কা'বা শরীফের উপর উড্ডীন করে দিয়ে ফেরেশতাগণ পৃথিবীময় ছড়িয়ে পড়েন এবং আল্লাহর বান্দা-বান্দিরা যে যেখানে যে অবস্থায় দাঁড়িয়ে, বসে, আল্লাহর ইবাদতে মশগুল থাকে, দুআ করে, তাদেরকে সালাম করে, তাদের সাথে মুসাফাহা করে এবং তাদের দুয়ায় আমীন আমীন বলতে থাকে। (বায়হাকী)
    প্রিয় নবী (সাঃ) বলেন, যখন লাইলাতুল ক্বদর উপস্থিত হয়, তখন হযরত জিবরাঈল আমীন একদল ফেরেশতাসহ পৃথিবীতে নেমে আসেন। তাদের সাথে সবুজ রঙের একটা ঝাণ্ডা থাকে যা কা'বা শরীফের উপর উড্ডীন করে দিয়ে ফেরেশতাগণ পৃথিবীময় ছড়িয়ে পড়েন এবং আল্লাহর বান্দা-বান্দিরা যে যেখানে যে অবস্থায় দাঁড়িয়ে, বসে, আল্লাহর ইবাদতে মশগুল থাকে, দুআ করে, তাদেরকে সালাম করে, তাদের সাথে মুসাফাহা করে এবং তাদের দুয়ায় আমীন আমীন বলতে থাকে। (বায়হাকী)
    1
    0 Comments 0 Shares
  • لَيْلَةُ ٱلْقَدْرِ خَيْرٌ مِّنْ أَلْفِ شَهْرٍۢ
    (القدر - 3)
    শব ই কদর অর্থাৎ এই মহিমান্বিত
    রাত্রটি এক হাজার মাসের চেয়েও শ্রেষ্ঠ। সুবহানাল্লাহ....

    The night of power is better
    than a thousands month
    Subhaanallah....
    لَيْلَةُ ٱلْقَدْرِ خَيْرٌ مِّنْ أَلْفِ شَهْرٍۢ (القدر - 3) শব ই কদর অর্থাৎ এই মহিমান্বিত রাত্রটি এক হাজার মাসের চেয়েও শ্রেষ্ঠ। সুবহানাল্লাহ.... The night of power is better than a thousands month Subhaanallah....
    3
    6 0 Comments 0 Shares
  • KSZ Male Enhancement - Get Maximum Strength Price, Buy & Reviews in USA
    KSZ Male Enhancement is an extraordinary testosterone enhancer who helps in reestablishing your endurance, strength just as energy in a characteristic and a protected manner. This is actually an astounding item right now accessible in the market which can support your testosterone levels to make your muscle more appealing and ideal and furthermore upgrades your room execution in such amazing manner. It works by upgrading the creation of testosterone chemical and other sex chemicals in your body.
    Visit Official Website:-https://www.pillsfact.com/buy-ksz-male-enhancement
    Read more@>>>
    https://www.facebook.com/KSZ-ME-103712668550409

    https://www.facebook.com/KSZ-Male-Enhancement-102142435380398

    https://sites.google.com/view/ksz-male-enhancement-pill/home

    https://health-supplement-care.blogspot.com/2021/05/ksz-male-enhancement-reviews-get.html

    https://k12.instructure.com/eportfolios/34055/Home/KSZ_Male_Enhancement

    https://www.completefoods.co/diy/recipes/ksz-male-enhancement-pills-price-buy-reviews

    https://sites.google.com/view/ksz-male-enhancement-price/home

    https://sites.google.com/view/ksz-male-enhancement-result/home

    https://www.nananke.com/cadet/general/ksz-male-enhancement-get-maximum-strength-price-buy-reviews-in-usa
    https://tocal.instructure.com/eportfolios/17618/Home/KSZ_Male_Enhancement
    https://canvas.redejuntos.org.br/eportfolios/14945/Pgina_inicial/KSZ_Male_Enhancement
    https://isd709.instructure.com/eportfolios/13116/Home/KSZ_Male_Enhancement
    https://tlcampus.instructure.com/eportfolios/22005/Home/KSZ_Male_Enhancement
    https://fixedincomeacademy.instructure.com/eportfolios/125462/Home/KSZ_Male_Enhancement
    https://training.dwfacademy.com/eportfolios/26810/Home/KSZ_Male_Enhancement
    http://vle.ar-raniry.ac.id/eportfolios/26409/Home/KSZ_Male_Enhancement
    https://okt.szilver.hu/eportfolios/3817/Kezdlap/KSZ_Male_Enhancement
    https://tecsup.instructure.com/eportfolios/5946/Pgina_de_Inicio/KSZ_Male_Enhancement
    https://base2edu.instructure.com/eportfolios/9645/Pgina_inicial/KSZ_Male_Enhancement
    https://study.mdanderson.org/eportfolios/22006/Home/KSZ_Male_Enhancement
    https://ki.instructure.com/eportfolios/2622/Startsida/KSZ_Male_Enhancement
    https://slu-se.instructure.com/eportfolios/10151/Home/KSZ_Male_Enhancement
    https://www.colcampus.com/eportfolios/33655/Home/KSZ_Male_Enhancement
    https://cosn.instructure.com/eportfolios/30950/Home/KSZ_Male_Enhancement
    https://bcconted.instructure.com/eportfolios/9813/Home/KSZ_Male_Enhancement
    https://canvas.ltcillinois.org/eportfolios/28306/Home/KSZ_Male_Enhancement
    https://alcorn.instructure.com/eportfolios/7990/Home/KSZ_Male_Enhancement
    https://landmark.instructure.com/eportfolios/15950/Home/KSZ_Male_Enhancement
    https://sdhc.instructure.com/eportfolios/16364/Home/KSZ_Male_Enhancement
    https://green360.instructure.com/eportfolios/206230/Home/KSZ_Male_Enhancement
    https://uthscsace.instructure.com/eportfolios/14740/Home/KSZ_Male_Enhancement
    https://beehive.instructure.com/eportfolios/8853/Home/KSZ_Male_Enhancement
    https://svdesdeva.instructure.com/eportfolios/10221/Pgina_inicial/KSZ_Male_Enhancement

    https://kaalama.org/read-blog/15356
    https://likekaba.com/read-blog/9428

    KSZ Male Enhancement - Get Maximum Strength Price, Buy & Reviews in USA KSZ Male Enhancement is an extraordinary testosterone enhancer who helps in reestablishing your endurance, strength just as energy in a characteristic and a protected manner. This is actually an astounding item right now accessible in the market which can support your testosterone levels to make your muscle more appealing and ideal and furthermore upgrades your room execution in such amazing manner. It works by upgrading the creation of testosterone chemical and other sex chemicals in your body. Visit Official Website:-https://www.pillsfact.com/buy-ksz-male-enhancement Read more@>>> https://www.facebook.com/KSZ-ME-103712668550409 https://www.facebook.com/KSZ-Male-Enhancement-102142435380398 https://sites.google.com/view/ksz-male-enhancement-pill/home https://health-supplement-care.blogspot.com/2021/05/ksz-male-enhancement-reviews-get.html https://k12.instructure.com/eportfolios/34055/Home/KSZ_Male_Enhancement https://www.completefoods.co/diy/recipes/ksz-male-enhancement-pills-price-buy-reviews https://sites.google.com/view/ksz-male-enhancement-price/home https://sites.google.com/view/ksz-male-enhancement-result/home https://www.nananke.com/cadet/general/ksz-male-enhancement-get-maximum-strength-price-buy-reviews-in-usa https://tocal.instructure.com/eportfolios/17618/Home/KSZ_Male_Enhancement https://canvas.redejuntos.org.br/eportfolios/14945/Pgina_inicial/KSZ_Male_Enhancement https://isd709.instructure.com/eportfolios/13116/Home/KSZ_Male_Enhancement https://tlcampus.instructure.com/eportfolios/22005/Home/KSZ_Male_Enhancement https://fixedincomeacademy.instructure.com/eportfolios/125462/Home/KSZ_Male_Enhancement https://training.dwfacademy.com/eportfolios/26810/Home/KSZ_Male_Enhancement http://vle.ar-raniry.ac.id/eportfolios/26409/Home/KSZ_Male_Enhancement https://okt.szilver.hu/eportfolios/3817/Kezdlap/KSZ_Male_Enhancement https://tecsup.instructure.com/eportfolios/5946/Pgina_de_Inicio/KSZ_Male_Enhancement https://base2edu.instructure.com/eportfolios/9645/Pgina_inicial/KSZ_Male_Enhancement https://study.mdanderson.org/eportfolios/22006/Home/KSZ_Male_Enhancement https://ki.instructure.com/eportfolios/2622/Startsida/KSZ_Male_Enhancement https://slu-se.instructure.com/eportfolios/10151/Home/KSZ_Male_Enhancement https://www.colcampus.com/eportfolios/33655/Home/KSZ_Male_Enhancement https://cosn.instructure.com/eportfolios/30950/Home/KSZ_Male_Enhancement https://bcconted.instructure.com/eportfolios/9813/Home/KSZ_Male_Enhancement https://canvas.ltcillinois.org/eportfolios/28306/Home/KSZ_Male_Enhancement https://alcorn.instructure.com/eportfolios/7990/Home/KSZ_Male_Enhancement https://landmark.instructure.com/eportfolios/15950/Home/KSZ_Male_Enhancement https://sdhc.instructure.com/eportfolios/16364/Home/KSZ_Male_Enhancement https://green360.instructure.com/eportfolios/206230/Home/KSZ_Male_Enhancement https://uthscsace.instructure.com/eportfolios/14740/Home/KSZ_Male_Enhancement https://beehive.instructure.com/eportfolios/8853/Home/KSZ_Male_Enhancement https://svdesdeva.instructure.com/eportfolios/10221/Pgina_inicial/KSZ_Male_Enhancement https://kaalama.org/read-blog/15356 https://likekaba.com/read-blog/9428
    0 Comments 0 Shares
  • #Flowers
    #Flowers
    2
    0 Comments 0 Shares
  • জ্ঞানী মানুষেরা পৃথিবীর ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি সম্মানিত হয়ে আসছিলো। কিন্তু আধুনিক যুগে এসে জ্ঞানীদেরকে আর সম্মান করা হয় না। এখন জ্ঞান অর্জনের চেয়ে কাজ করাকে বেশি গুরুত্ব দেয়া হয়। ফলে আমাদের সমাজে একজন স্কুল শিক্ষকের চেয়ে একজন ব্যাংক কর্মচারীকে বেশি মর্যাদা ও গুরুত্ব দেয়া হয়।

    অতীতে বিশ্বের প্রতিটি মানুষ কোনো না ধর্ম পালন করতো। কিন্তু আধুনিক মানুষেরা নিজেকে নাস্তিক হিসাবে পরিচয় দিতেই গর্ব বোধ করে। এর কারণ হলো, আধুনিক যুগে মানুষ সত্যিকারের জ্ঞান অর্জনের প্রতি অনাগ্রহী, মানুষ কেবল যন্ত্রের প্রতি-ই বেশি আগ্রহী। মূর্খতার কারণে মানুষ আল্লাহকে ভুলে গিয়ে যন্ত্রের দাসত্ব মেনে নিয়েছে।

    রেনে গেনোন ( শেখ আবদুল ওহিদ ইয়াহিয়া)
    “আধুনিক বিশ্বের বিপদসমূহ।”

    Saiyed Shahbazi Hazrat
    জ্ঞানী মানুষেরা পৃথিবীর ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি সম্মানিত হয়ে আসছিলো। কিন্তু আধুনিক যুগে এসে জ্ঞানীদেরকে আর সম্মান করা হয় না। এখন জ্ঞান অর্জনের চেয়ে কাজ করাকে বেশি গুরুত্ব দেয়া হয়। ফলে আমাদের সমাজে একজন স্কুল শিক্ষকের চেয়ে একজন ব্যাংক কর্মচারীকে বেশি মর্যাদা ও গুরুত্ব দেয়া হয়। অতীতে বিশ্বের প্রতিটি মানুষ কোনো না ধর্ম পালন করতো। কিন্তু আধুনিক মানুষেরা নিজেকে নাস্তিক হিসাবে পরিচয় দিতেই গর্ব বোধ করে। এর কারণ হলো, আধুনিক যুগে মানুষ সত্যিকারের জ্ঞান অর্জনের প্রতি অনাগ্রহী, মানুষ কেবল যন্ত্রের প্রতি-ই বেশি আগ্রহী। মূর্খতার কারণে মানুষ আল্লাহকে ভুলে গিয়ে যন্ত্রের দাসত্ব মেনে নিয়েছে। রেনে গেনোন ( শেখ আবদুল ওহিদ ইয়াহিয়া) “আধুনিক বিশ্বের বিপদসমূহ।” Saiyed Shahbazi Hazrat
    2
    0 Comments 0 Shares
  • রুম পরিচিতি

    পবিত্র কোরান ও হাদিস অনুযায়ী, সাধারণভাবে রুম হচ্ছে খ্রিস্টান সম্প্রদায়। কিন্তু সেখানে শ্রেণীবিভাগ রয়েছে। পবিত্র কোরান অবতীর্ণ হওয়ার সময় রুম ছিল কন্সট্যান্টিনোপলে এবং সেই রুমের সাথে পারস্য সাম্রাজ্যের যুদ্ধ চলছিল। তাই,আমরা সহজেই বুঝতে পারি,পবিত্র কোরানে যে রুমের কথা বলা হয়েছে,সেটা হলো গ্রীকভাষী পূর্ব রুম বা বায়জেন্টাইন সাম্রাজ্য অর্থাৎ অর্থোডক্স খ্রিস্টান সম্প্রদায়। কিন্তু হাদিস সাহিত্যে রুমের বিষয়টি বিস্তৃত করা হয়েছে। আমরা জানি,হাদিস সাহিত্য হলো পবিত্র কোরানের ব্যাখ্যা। তাই সেখানে অনেক কিছুই বিস্তৃতভাবে বর্ণিত হয়েছে। যেমনঃ রিবা। পবিত্র কোরান অনুযায়ী,রিবা হচ্ছে সুদের লেনদেন। কিন্তু হাদিস সাহিত্যে রিবার বিষয়টি বিস্তৃত হয়েছে এবং বলা হয়েছে যে,ব্যবসায় দু’নম্বরী করা বা ক্রেতাকে ঠকানোও একপ্রকারের রিবা। একইভাবে,রুমের বিষয়টিও হাদিস সাহিত্যে বিস্তৃত হয়েছে। হাদিস সাহিত্যে আরো একটি রুমের কথা বলা হয়েছে যা বায়জেন্টাইন সাম্রাজ্য বা অর্থোডক্স খ্রিস্টান নয়। সেটা হলো ল্যাটিনভাষী পশ্চিম রুম সাম্রাজ্য যারা মূলত মুশরিক ছিল ও পরবর্তীতে খ্রিস্টান ধর্ম গ্রহণ করে।

    পূর্বরুমঃ
    পূর্বরুম বা বায়জেন্টাইন সাম্রাজ্য ছিল অর্থোডক্স খ্রিস্টাবলম্বী। তাদের রাজধানী ছিল বর্তমান তুরস্কের ইস্তাম্বুলে যার পূর্বনাম ছিল কন্সট্যান্টিনোপল। সম্রাট কন্সট্যান্টাইন খ্রিস্টান ধর্ম গ্রহণের পর এই শহর তৈরী করেন বিধায় এর নাম দেয়া হয় কন্সট্যান্টিনোপল। রাসুলুল্লাহ হযরত মুহাম্মদ (সা)-ও এই শহরের নাম কন্সট্যান্টিনোপল (আরবিতে কুন্সতুন্তিনিয়া) বলেছিলেন। তাই এই শহরকে কন্সট্যান্টিনোপল বলা একটি সুন্নত কাজ,ইস্তাম্বুল নয়।

    রাসুলুল্লাহ (সা) ভবিষ্যতবাণী করে গিয়েছিলেন যে,অবশ্যই মুসলিমরা একদিন কন্সট্যান্টিনোপল বিজয় করবে। তিনি সেই কন্সট্যান্টিনোপল বিজয়ী মুসলিম বাহিনীর প্রশংসা করেন,সেই মুসলিম বাহিনীর নেতার প্রশংসা করেন।

    রাসুলুল্লাহ (সা) এর নব্যুওয়াতের প্রাথমিক যুগে আন্তর্জাতিক বিশ্বের পরিস্থিতি ছিল ভয়াবহ। সেসময় দুই পরাশক্তি বায়জেন্টাইন সাম্রাজ্য ও পারস্য সাসানিদ সাম্রাজ্যের মধ্যে যুদ্ধ চলছিল। বায়জেন্টাইন সাম্রাজ্য ছিল একেশ্বরবাদী সাম্রাজ্য। অন্যদিকে,পারস্য সাম্রাজ্য ছিল পৌত্তলিক। মক্কার পৌত্তলিক কুরাইশগণ পারস্যের পৌত্তলিক সাম্রাজ্যের অন্তর্গত এবং তারা পারস্যসম্রাটের সাহায্য পেয়ে আসছিল। মক্কার নব্য অসহায় মুসলিমগণ তখন একেশ্বরবাদী বায়জেন্টাইন সাম্রাজ্যের পক্ষে অবস্থান নেয় যেহেতু তারা তওহীদপন্থী। মক্কার পৌত্তলিকরা যখন মক্কার অসহায় মুসলিমদের উপর ভয়াবহ অত্যাচার শুরু করে দেয়,তখন মুসলিমদের হিজরতের প্রয়োজনীয়তা দেখা দেয়। কিন্ত মদিনার দরজা তখন মুসলিমদের জন্য বন্ধ ছিল। কারণ,মক্কার পৌত্তলিকদের সাহায্যকারী হলো পারস্য সাম্রাজ্য। মদিনা তাই ভীত ছিল।

    মক্কার অসহায় মুসলিমগণ তখন বায়জেন্টাইন সাম্রাজ্যের অন্তর্গত অর্থোডক্স খ্রিস্টান রাজ্য আবিসিনিয়ায় হিজরত করেন। আবিসিনিয়া মুহাজির মুসলিমদেরকে পৌত্তলিক মক্কার বিরুদ্ধে সামরিক নিরাপত্তা প্রদান করে। যখন আবিসিনিয়া মুসলিমদের পক্ষে অবস্থান নেয়, তখন মদিনার দরজাও মুসলিমদের জন্য উন্মুক্ত হয়ে যায়। কারণ,আবিসিনিয়া বায়জেন্টাইন সাম্রাজ্যের অধীন। তাই তাদের আর পারস্য সাম্রাজ্যের আক্রমণের ভয় থাকে না। অর্থাৎ আল্লাহ সুবহানওয়াতালা রুমের দ্বারা দ্বারা প্রাথমিক যুগের অসহায় মুসলিমদের রক্ষা করেন। নইলে মুসলিম জাতি মক্কার পৌত্তলিকদের দ্বারা বিলুপ্ত হয়ে যেত।

    আল্লাহ সুবহানওয়াতালা সুরা রুমে রুমের বিজয় ভবিষ্যতবাণী করেছেন এবং সে বিজয়ে মু’মিনদের উল্লাস প্রকাশ করার কথা ঘোষণা করেছেন। সেসময় পারস্য সাম্রাজ্য বায়জেন্টাইনকে প্রায় নাস্তানাবুদ করে ফেলেছিল। তাই পবিত্র কোরানের এই আয়াত অবতীর্ণ হলে অবিশ্বাসী সম্প্রদায় ব্যঙ্গ বিদ্রুপ করতে থাকে আর মুনাফিকরা সন্দেহে পড়ে যায়,”এটা কীভাবে সম্ভব!” কিন্তু আল্লাহর ঘোষণা মানে আল্লাহর ঘোষণা। পবিত্র কোরানের ভবিষ্যতবাণীর পরপরই খেলা ঘুরে যায়। বায়জেন্টাইন সম্রাট হিডাক্লিয়াসের বুদ্ধিমত্তা ও সামরিক দক্ষতার কাছে পারস্য সাম্রাজ্যকে পরাজয় স্বীকার করে নিতেই হয়। যদি পারস্য সেই যুদ্ধে জিতে যেত,তবে খ্রিস্টান ধর্মের অস্তিত্ব বিলুপ্ত হয়ে যেত। তাই খ্রিস্টানদের চোখে এই যুদ্ধ এমন একটি পবিত্র যুদ্ধ যা খ্রিস্টান ধর্মকে রক্ষা করেছিল। বায়জেন্টাইন সাম্রাজ্যের বিজয়ে মুসলিমরাও উল্লাস প্রকাশ করেছিল এবং রাসুলুল্লাহ (সা) মদিনাকে মুসলিম দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে সমর্থ হয়েছিলেন। মক্কার পৌত্তলিক কুরাইশগণ পারস্য সাম্রাজ্যের পরাজয়ে ভেঙে পড়ে এবং পারস্যের সাহায্যও হারিয়ে ফেলে। ফলে তারা মুসলিমদের সাথে “হুদাইবিয়ার চুক্তি” করতে বাধ্য হয় যে চুক্তিকে পবিত্র কোরান মুসলিমদের স্পষ্ট বিজয় বলে ঘোষণা করে এবং তৎকালীন অত্যাচারী ইহুদি রাস্ট্র খাইবার বিজয়ের পর মুসলমানরা বিনা বাঁধায় মক্কা বিজয় করতে সমর্থ হয়। সুতরাং,বায়জেন্টাইন রুম বা অর্থোডক্স খ্রিস্টানদের বিজয় এবং মুসলিমদের বিজয় পরষ্পর সম্পর্কযুক্ত। অর্থোডক্স খ্রিস্টানদের বিজয়ে ইসলামের চাঁদ উদিত হয়েছিল এবং সেই চাঁদ ধীরে ধীরে বড় হয়ে একটি পূর্ণ শক্তি হিসেবে ভূরাজনীতিতে আবির্ভূত হয়েছিল।

    সূরা রূমে আছে, “রোমকরা পরাজিত হইয়াছে। অতি শীঘ্রই তাহারা (জাযিরাতুল আরবের) নিকটবর্তী অঞ্চলে বিজয়ী হইবে। কয়েক বছরের মধ্যে। পূর্বের ও পরের ফয়সালা আল্লাহ্‌রই। এবং সেদিন মু’মিনরা আনন্দিত হইবে। (সূরা রূম, আয়াত ২ – ৪)

    আল্লাহ্‌ বলছেন, পূর্বের ও পরের ফয়সালা আল্লাহ্‌রই। অর্থাৎ পূর্বেও যেমন মুসলমানরা রোমকদের বিজয়ে আনন্দিত হইয়াছিল ইহা আবার পরেও হইবে। অর্থোডক্স খ্রিস্টান আবার বিজয়ী হবে এবং মুমিন মুসলিমদের জন্য তা আশীর্বাদ বয়ে নিয়ে আসবে।

    পবিত্র কোরান নাযিলের সময় পূর্বরুম ছিল আনাতোলিয়ায় বা বর্তমান তুরস্কে। অটোমান সাম্রাজ্য কন্সট্যান্টিনোপল দখল করে রুমকে সেখান থেকে সরিয়ে দেয়। অটোমান সাম্রাজ্য যেটা করেছিল, সেটা নিন্দনীয়। অটোমানরা ছিল তুর্কজাতি। তারা আরবদের কাছ থেকে খিলাফতব্যবস্থা কেড়ে নিয়েছিল। হাদিস সাহিত্যে রয়েছে যে, যদি মাত্র দুজন কুরাইশ ব্যক্তিও জীবিত থাকে, তবে তাদের একজন মুসলিম জাহানের খলীফা হবে। কারণ,আল্লাহ সুবহানওয়াতালা কুরাইশ বংশের হাতে এই মহান দায়িত্ব অর্পন করেছেন এবং তাদেরকে কা’বা শরীফের খাদেম করেছেন। অথচ মধ্য এশিয়া থেকে মিসটেরিয়াস শক্তি নিয়ে এসে একটি জাতি হঠাৎ করে আরবদের কাছ থেকে খিলাফতব্যবস্থা কেড়ে নিয়ে নিজেদের করে নেয় এবং তাকে ন্যায় প্রমাণ করার জন্য কন্সট্যান্টিনোপল আক্রমণ করে ও বায়জেন্টাইন রুম সাম্রাজ্যকে ধ্বংস করে এবং নিজেদেরকে হাদিস সাহিত্যে ভবিষ্যতবাণীকৃত কন্সট্যান্টিনোপল বিজয়ী মুসলিম দল হিসেবে ঘোষণা করে। আর ততৎকালীন আলেম ওলামাগণও নিজেদের জ্ঞানের মাথা খেয়ে সুলতান ফাতেহর সেই তুর্কি দলকেই কন্সট্যান্টিনোপল বিজয়ী সেই বাহিনী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়। অথচ,সুনান আবু দাউদের সহীহ হাদিস সাহিত্যে স্পষ্ট উল্লেখ আছে, কন্সট্যান্টিনোপল বিজয় হয়ে মালহামার পর এবং ইহুদিরাজ মিথ্যে মসীহ দাজ্জাল আগমণের কয়েক মাস বা বছর আগে। যা স্পষ্টভাবে প্রমাণ করে অটোমান সাম্রাজ্যের এই দাবী ছিল মিথ্যে এবং তারা এটা করেছিল নিজেদের খিলাফতব্যবস্থাকে মুসলিম বিশ্বের কাছে ন্যায়ভিত্তিক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে। তারা অর্থোডক্স খ্রিস্টানদের উপর অত্যাচার করতে থাকে। অর্থোডক্স খ্রিস্টানদের অতি পবিত্র উপাসনালয় হাগিয়া সোফিয়া দখল করে সেটাকে ক্যাথেড্রাল থেকে মসজিদে রূপান্তর করে। অর্থোডক্স খ্রিস্টানদের রাজধানী কন্সট্যান্টিনোপলকে মুসলিম খিলাফতের রাজধানীতে পরিণত করে। অর্থোডক্স খ্রিস্টান নারীদের দাস বানিয়ে নিজেদের লালসার স্বীকার বানায়। বায়জেন্টাইন রুম বা অর্থোডক্স খ্রিস্টানরা তখন পূর্ব ইউরোপ ও রাশিয়ায় হিজরত করতে থাকে। একটিদিনও নেই যেদিন অটোমান সাম্রাজ্য রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধ না করে থেকেছে। তারা অর্থোডক্স নারীদের দাস বানিয়ে তাদের গর্ভ থেকে হওয়া সন্তানদেরকে অর্থোডক্স খ্রিস্টানদের বিরুদ্ধেই যুদ্ধে পাঠিয়েছে। তারা শুধুমাত্র শীতকাল ব্যতীত সবসময়ই রাশিয়ার সাথে যুদ্ধে লিপ্ত থাকত। কারণ,শীতকালে যুদ্ধ করা সম্ভব ছিল না, তাই তারা তখন বসন্তকালীন যুদ্ধের প্রস্তুতি গ্রহণ করত।

    সুতরাং,রুম চলে যায় রাশিয়ায়। রাশিয়ায় উষ্ণজলের সমুদ্রের খুব অভাব। কিন্তু সেসময় নৌবাহিনীই ছিল ক্ষমতার উৎস। প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময় ব্রিটেন ও ফ্রান্স রাশিয়াকে লোভ দেখায় যে, তাদের পক্ষে যুদ্ধ করলে অটোমান সাম্রাজ্য অর্থাৎ বর্তমান তুরস্ক তাদের দিয়ে দেয়া হবে। তুরস্ক পাওয়া মানে কৃষ্ণসাগর পাওয়া। রাশিয়া তাই এ প্রস্তাবে রাজি হয়। কিন্তু যুদ্ধের পর পশ্চিমারা ইহুদিদের দ্বারা রাশিয়ায় বলশেভিক রেভ্যুলেশন ঘটায়। ফলে রাশিয়ার আর তুরস্ককে পাওয়া হয়না বরং নিজেরই অস্তিত্ব হারিয়ে নাস্তিক সোভিয়েত ইউনিওনে পরিণত হয়। সোভিয়েত ইউনিওন সৃষ্টি করা হয়েছিল রাশিয়াকে তথা অর্থোডক্স খ্রিস্টান বা রুমকে ধ্বংস করার জন্য। সোভিয়েত ইউনিওন রাশিয়ার একমাত্র উষ্ণসমুদ্রের উৎস ক্রিমিয়াকে ইউক্রেনের কাছে হস্তান্তর করে যাতে রাশিয়ার পরাশক্তি হয়ে ওঠার শেষ সম্ভাবনাকেও ধ্বংস করে রাশিয়াকে সম্পূর্ণভাবে পঙ্গু করে দেয়া যায়। যখন ইহুদিরা নিশ্চিত হলো,রুম শেষ,তখন তারা সোভিয়েতকে ভেঙে দিয়ে দলে দলে ইজরাইলে পাড়ি দিল। কিন্তু তারাও পরিকল্পনা করে আর আল্লাহও পরিকল্পনা করেন। আর আল্লাহ শ্রেষ্ঠ পরিকল্পনাকারী। রাশিয়া সেই ধ্বংস থেকে পুনরায় গড়ে উঠতে থাকে এবং ভ্লাদিমির পুতিনের নেতৃত্বে পুনরায় একটি পরাশক্তি হিসেবে আবির্ভূত হয়। শুধু পরাশক্তি হিসেবেই নয়,বরং বিশ্বাসী পরাশক্তি হিসেবে। রাশিয়া সোভিয়েত শয়তানিজম থেকে পুনরায় অর্থোডক্স খ্রিস্টানের পথে,রুমের পথে আসতে শুরু করে। যেখানে ভ্যাটিকান সিটির পোপ পর্যন্ত ইঞ্জিলে বর্ণিত সোডোম ও গোমরাহর শিক্ষা ভুলে,আল্লাহর আদেশকে অমান্য করে সমকামীতার পক্ষে অবস্থান নেয়,সেখানে রাশিয়া ঘোষণা করে,নো গে, নো লেসবিয়ান। নো এলজিবিটি ইন রাশিয়া। যেখানে পশ্চিমারা নিজেদের খ্রিস্টান পরিচয়ের চেয়ে সেক্যুলার এথিস্ট পরিচয় দেয়াটাকেই সাইন্টিফিক ও যুক্তিযুক্ত মনে করে আনন্দ প্রকাশ করে বলে, “খোদা এখন সভ্যতার যাদুঘরে থাকে”;সেখানে রাশিয়ায় “খোদা নেই” বললে গ্রেফতার করা হয়। রাশিয়ার ধর্মীয় নেতা বলেন,”রাশিয়া জানে ধর্মহীন রাস্ট্র কেমন হয়। তাই রাশিয়া প্রত্যাবর্তন করছে বিশ্বাসের পথে।”

    রাশিয়া হলো সেই রুম যে রুম পুনরায় বিজয় অর্জন করবে এবং মুমিন মুসলমানদের জন্য সুসংবাদ ও আশীর্বাদ বয়ে নিয়ে আসবে। আশীর্বাদ ইসলামের নতুন চাঁদ উদিত হওয়ার আর সুসংবাদ খোলাফায়ে রাশেদিনের সেই সত্যিকারের ইসলামী শাসনতন্ত্র পুনরায় প্রতিষ্ঠিত হওয়ার। মুসলমানরা সেদিন আনন্দিত হবে কারণ তা জেরুজালেম বিজয়ের পথ খুলে দিবে, যেভাবে অতীতে রোমকদের বিজয় মক্কা বিজয়ের পথ খুলে দিয়েছিল।

    পশ্চিম রুমঃ
    পশ্চিম রুম হলো আরেকধরণের রুম যে রুমের কথা হাদিস শরীফে বর্ণিত হয়েছে। ইটালির রোমে অবস্থিত ল্যাটিনভাষী পশ্চিম রুম সাম্রাজ্য যারা ছিল মূলত পৌত্তলিক। কিন্তু পরবর্তীতে খ্রিস্টান ধর্ম গ্রহণ করে। যদিও তারা খ্রিস্টান হয়ে যায়,তবুও তারা তাদের পৌত্তলিক সভ্যতাকে ভুলতে পারছিল না। তারা এক নতুন খ্রিস্টান সেক্টের উদ্ভব ঘটায় যা মূল অর্থোডক্স খ্রিস্টান থেকে ভিন্ন। আর সেটা হলো পশ্চিমা খ্রিস্টান (ক্যাথলিক ও প্রোটেস্টেন্ট)। পশ্চিমা খ্রিস্টানরা তাদের পৌত্তলিকতাকে ভুলতে না পারায় তাদের সভ্যতা,সংস্কৃতি এমনকি ভ্যাটিকান সিটির পবিত্র গীর্জাতেও মূর্তি ও মূর্তির বেদি রেখে দেয় এবং সেগুলোকেও উপাসনার অংশ ভাবে। পশ্চিমা খ্রিস্টানরা এক অদ্ভুত জিনিস করে যা পৃথিবীর ইতিহাস আগে কখনো দেখেনি। সেটা হলো ইহুদি-খ্রিস্ট মিত্রতা। ইহুদিরা চিরকাল খ্রিস্টানদের ভ্রান্তবাদী বলে এসেছে এবং খ্রিস্টানরা ইহুদিদের নিজেদের ঈশ্বর হত্যাকারী বলে এসেছে। তারা পরষ্পরের শত্রু ও পরষ্পরকে ঘৃণার দৃষ্টিতে দেখে এসেছে। নিজেদের বিষয়কে যথার্থ প্রমাণ করতে বাগবিতণ্ডা করে এসেছে। এমনকি রাসুলুল্লাহ (সা) এর সামনেও তারা পরষ্পরের বিরুদ্ধে বাগবিতণ্ডা করেছে। তারা কখনো বন্ধু ছিল না! কিন্তু পশ্চিমা খ্রিস্টানরা ইতিহাসে প্রথমবারের মত ইহুদিদের সাথে বন্ধুত্ব স্থাপন করে। ভ্যাটিকান পোপ ঘোষণা করে,ইহুদিদের ঘৃণা করা যাবেনা, দায়ী করা যাবেনা। বরং তাদের সাথে মিলিত হয়ে পবিত্র ভূমিতে ইহুদিদের অধিকার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে মিলিতভাবে কাজ করে যেতে হবে। একে বলে “যায়োনিজম” যখন কিছুসংখ্যক ইউরোপীয় খ্রিস্টান ও কিছুসংখ্যক ইউরোপীয় ইহুদি মিলে ইহুদি খ্রিস্ট যায়োনিস্ট এলায়েন্স গঠন করে যার প্রধান লক্ষ্য ছিল পবিত্র ভূমি বায়তুল মুকাদ্দাস বা ফিলিস্তিন দখল করা। পবিত্র কোরানের ভাষ্য অনুযায়ী, এই যায়োনিস্টরাই হলো ইয়াজুজ মাজুজ যারা খ্রিস্টান ধর্ম গ্রহণ করে পশ্চিম রুম বা পশ্চিমা খ্রিস্টানদের সাথে মিশে যায় আর ইহুদি ধর্ম গ্রহণ করে বনী ইসরাইলিদের সাথে ১৩ তম গোত্র হিসেবে মিশে যায়।

    পশ্চিমা খ্রিস্টানদের সামরিক ও অর্থনৈতিক রাজধানী ছিল ব্রিটেনে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর তা চলে যায় যুক্তরাস্ট্রে। এই রুমের সাথেই ওহাবী মুসলিমরা চুক্তি করেছিল তাদের শত্রুর বিরুদ্ধে লড়াই করতে। ওহাবী মুসলিম ও পশ্চিম রুমের দ্বারাই সৃষ্টি হয়েছিল তালেবান,আল-কায়েদা,আল-নুসরার মত জংগী দলগুলো যাদের প্রধান লক্ষ্য ছিল তেলসম্পদ সমৃদ্ধ অঞ্চলসমূহকে অশান্ত করা যাতে গণিমত হিসেবে সেগুলো লাভ করা যায়। যুদ্ধগুলো হলো আফগান যুদ্ধ, ইরাক যুদ্ধ এবং লিবিয়া যুদ্ধ। লিবিয়া যুদ্ধে গাদ্দাফিকে অন্যায়ভাবে হত্যা করার পর সমস্ত ক্রেডিট পশ্চিমা খ্রিস্টানরা নিয়ে যায়। তারা ঘোষণা করে, “ক্রস জয়যুক্ত হয়েছে।” অর্থাৎ ন্যাটোই বিজয় লাভ করেছে। হিলারি ক্লিনটন হাসতে হাসতে বলল,”আমরা এলাম, দেখলাম, সে (গাদ্দাফি) মরে গেল।”

    তারপর পশ্চিম রুম ওহাবী মুসলিমদের ধোঁকা দিল। এতদিন জংগী ইন্ডাস্ট্রি ছিল সৌদি-যুক্তরাস্ট্র প্রজেক্ট। এবার যুক্তরাস্ট্র সৌদিকে বাদ দিয়ে দায়েশ তৈরী করল যা ছিল তুরস্ক-যুক্তরাস্ট্র প্রজেক্ট। দায়েশের অন্যতম লক্ষ্য ছিল সৌদি আরব দখল করা। এখন,সৌদি আরব ধীরে ধীরে সত্যিকারের বন্ধুরুম রাশিয়ার দিকে আসছে। যদি সৌদি আরব রাশিয়ার সাথে মিলে তেল বয়কট করে,তবে তা হবে সিম্বলিকালি একজন মুসলিমের “না ক্রস নয়,বরং মুসলিমই বিজয়ী হয়েছে” ঘোষণা করা। পশ্চিম রুম মুসলিম ও পূর্বরুমের বিরুদ্ধে মালহামার প্রস্তুতি নিচ্ছে। আর সুরা রুম থেকে আমরা জানি, এ যুদ্ধে পূর্বরুম ও মুসলিমই বিজয়ী হবে ইন শা আল্লাহ। মালহামার পর বা চলাকালীন মুসলিমরা কন্সট্যান্টিনোপল বিজয় করবে এবং হাদিসের ভবিষ্যতবাণী পূর্ণ করবে। কন্সট্যান্টিনোপল বিজয় মানে তুরস্ককে ন্যাটো থেকে মুক্ত করা। সেই কন্সট্যান্টিনোপল বিজয়ী মুসলিম নেতা হাগিয়া সোফিয়াকে পুনরায় অর্থোডক্স খ্রিস্টানদেরকে ফিরিয়ে দেবে।

    এসব ব্যপারে আল্লাহ ব্যতীত অধিক জ্ঞানী কেউ নয়।

    Patriarch Kirill (right) in 2009 and Pope Francis (left) in 2015. Successors of the Greek East and Latin West. One is the Pope of Eastern Roman Catholic Church and the other is the Patriarch of the Russian Orthodox Church (ROC), the largest of the Eastern Orthodox churches. Look at the bearded appearance of the Patriarch and no beard of the Pope. There is only one bearded man in Catholics, the Santa Claus.
    রুম পরিচিতি পবিত্র কোরান ও হাদিস অনুযায়ী, সাধারণভাবে রুম হচ্ছে খ্রিস্টান সম্প্রদায়। কিন্তু সেখানে শ্রেণীবিভাগ রয়েছে। পবিত্র কোরান অবতীর্ণ হওয়ার সময় রুম ছিল কন্সট্যান্টিনোপলে এবং সেই রুমের সাথে পারস্য সাম্রাজ্যের যুদ্ধ চলছিল। তাই,আমরা সহজেই বুঝতে পারি,পবিত্র কোরানে যে রুমের কথা বলা হয়েছে,সেটা হলো গ্রীকভাষী পূর্ব রুম বা বায়জেন্টাইন সাম্রাজ্য অর্থাৎ অর্থোডক্স খ্রিস্টান সম্প্রদায়। কিন্তু হাদিস সাহিত্যে রুমের বিষয়টি বিস্তৃত করা হয়েছে। আমরা জানি,হাদিস সাহিত্য হলো পবিত্র কোরানের ব্যাখ্যা। তাই সেখানে অনেক কিছুই বিস্তৃতভাবে বর্ণিত হয়েছে। যেমনঃ রিবা। পবিত্র কোরান অনুযায়ী,রিবা হচ্ছে সুদের লেনদেন। কিন্তু হাদিস সাহিত্যে রিবার বিষয়টি বিস্তৃত হয়েছে এবং বলা হয়েছে যে,ব্যবসায় দু’নম্বরী করা বা ক্রেতাকে ঠকানোও একপ্রকারের রিবা। একইভাবে,রুমের বিষয়টিও হাদিস সাহিত্যে বিস্তৃত হয়েছে। হাদিস সাহিত্যে আরো একটি রুমের কথা বলা হয়েছে যা বায়জেন্টাইন সাম্রাজ্য বা অর্থোডক্স খ্রিস্টান নয়। সেটা হলো ল্যাটিনভাষী পশ্চিম রুম সাম্রাজ্য যারা মূলত মুশরিক ছিল ও পরবর্তীতে খ্রিস্টান ধর্ম গ্রহণ করে। পূর্বরুমঃ পূর্বরুম বা বায়জেন্টাইন সাম্রাজ্য ছিল অর্থোডক্স খ্রিস্টাবলম্বী। তাদের রাজধানী ছিল বর্তমান তুরস্কের ইস্তাম্বুলে যার পূর্বনাম ছিল কন্সট্যান্টিনোপল। সম্রাট কন্সট্যান্টাইন খ্রিস্টান ধর্ম গ্রহণের পর এই শহর তৈরী করেন বিধায় এর নাম দেয়া হয় কন্সট্যান্টিনোপল। রাসুলুল্লাহ হযরত মুহাম্মদ (সা)-ও এই শহরের নাম কন্সট্যান্টিনোপল (আরবিতে কুন্সতুন্তিনিয়া) বলেছিলেন। তাই এই শহরকে কন্সট্যান্টিনোপল বলা একটি সুন্নত কাজ,ইস্তাম্বুল নয়। রাসুলুল্লাহ (সা) ভবিষ্যতবাণী করে গিয়েছিলেন যে,অবশ্যই মুসলিমরা একদিন কন্সট্যান্টিনোপল বিজয় করবে। তিনি সেই কন্সট্যান্টিনোপল বিজয়ী মুসলিম বাহিনীর প্রশংসা করেন,সেই মুসলিম বাহিনীর নেতার প্রশংসা করেন। রাসুলুল্লাহ (সা) এর নব্যুওয়াতের প্রাথমিক যুগে আন্তর্জাতিক বিশ্বের পরিস্থিতি ছিল ভয়াবহ। সেসময় দুই পরাশক্তি বায়জেন্টাইন সাম্রাজ্য ও পারস্য সাসানিদ সাম্রাজ্যের মধ্যে যুদ্ধ চলছিল। বায়জেন্টাইন সাম্রাজ্য ছিল একেশ্বরবাদী সাম্রাজ্য। অন্যদিকে,পারস্য সাম্রাজ্য ছিল পৌত্তলিক। মক্কার পৌত্তলিক কুরাইশগণ পারস্যের পৌত্তলিক সাম্রাজ্যের অন্তর্গত এবং তারা পারস্যসম্রাটের সাহায্য পেয়ে আসছিল। মক্কার নব্য অসহায় মুসলিমগণ তখন একেশ্বরবাদী বায়জেন্টাইন সাম্রাজ্যের পক্ষে অবস্থান নেয় যেহেতু তারা তওহীদপন্থী। মক্কার পৌত্তলিকরা যখন মক্কার অসহায় মুসলিমদের উপর ভয়াবহ অত্যাচার শুরু করে দেয়,তখন মুসলিমদের হিজরতের প্রয়োজনীয়তা দেখা দেয়। কিন্ত মদিনার দরজা তখন মুসলিমদের জন্য বন্ধ ছিল। কারণ,মক্কার পৌত্তলিকদের সাহায্যকারী হলো পারস্য সাম্রাজ্য। মদিনা তাই ভীত ছিল। মক্কার অসহায় মুসলিমগণ তখন বায়জেন্টাইন সাম্রাজ্যের অন্তর্গত অর্থোডক্স খ্রিস্টান রাজ্য আবিসিনিয়ায় হিজরত করেন। আবিসিনিয়া মুহাজির মুসলিমদেরকে পৌত্তলিক মক্কার বিরুদ্ধে সামরিক নিরাপত্তা প্রদান করে। যখন আবিসিনিয়া মুসলিমদের পক্ষে অবস্থান নেয়, তখন মদিনার দরজাও মুসলিমদের জন্য উন্মুক্ত হয়ে যায়। কারণ,আবিসিনিয়া বায়জেন্টাইন সাম্রাজ্যের অধীন। তাই তাদের আর পারস্য সাম্রাজ্যের আক্রমণের ভয় থাকে না। অর্থাৎ আল্লাহ সুবহানওয়াতালা রুমের দ্বারা দ্বারা প্রাথমিক যুগের অসহায় মুসলিমদের রক্ষা করেন। নইলে মুসলিম জাতি মক্কার পৌত্তলিকদের দ্বারা বিলুপ্ত হয়ে যেত। আল্লাহ সুবহানওয়াতালা সুরা রুমে রুমের বিজয় ভবিষ্যতবাণী করেছেন এবং সে বিজয়ে মু’মিনদের উল্লাস প্রকাশ করার কথা ঘোষণা করেছেন। সেসময় পারস্য সাম্রাজ্য বায়জেন্টাইনকে প্রায় নাস্তানাবুদ করে ফেলেছিল। তাই পবিত্র কোরানের এই আয়াত অবতীর্ণ হলে অবিশ্বাসী সম্প্রদায় ব্যঙ্গ বিদ্রুপ করতে থাকে আর মুনাফিকরা সন্দেহে পড়ে যায়,”এটা কীভাবে সম্ভব!” কিন্তু আল্লাহর ঘোষণা মানে আল্লাহর ঘোষণা। পবিত্র কোরানের ভবিষ্যতবাণীর পরপরই খেলা ঘুরে যায়। বায়জেন্টাইন সম্রাট হিডাক্লিয়াসের বুদ্ধিমত্তা ও সামরিক দক্ষতার কাছে পারস্য সাম্রাজ্যকে পরাজয় স্বীকার করে নিতেই হয়। যদি পারস্য সেই যুদ্ধে জিতে যেত,তবে খ্রিস্টান ধর্মের অস্তিত্ব বিলুপ্ত হয়ে যেত। তাই খ্রিস্টানদের চোখে এই যুদ্ধ এমন একটি পবিত্র যুদ্ধ যা খ্রিস্টান ধর্মকে রক্ষা করেছিল। বায়জেন্টাইন সাম্রাজ্যের বিজয়ে মুসলিমরাও উল্লাস প্রকাশ করেছিল এবং রাসুলুল্লাহ (সা) মদিনাকে মুসলিম দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে সমর্থ হয়েছিলেন। মক্কার পৌত্তলিক কুরাইশগণ পারস্য সাম্রাজ্যের পরাজয়ে ভেঙে পড়ে এবং পারস্যের সাহায্যও হারিয়ে ফেলে। ফলে তারা মুসলিমদের সাথে “হুদাইবিয়ার চুক্তি” করতে বাধ্য হয় যে চুক্তিকে পবিত্র কোরান মুসলিমদের স্পষ্ট বিজয় বলে ঘোষণা করে এবং তৎকালীন অত্যাচারী ইহুদি রাস্ট্র খাইবার বিজয়ের পর মুসলমানরা বিনা বাঁধায় মক্কা বিজয় করতে সমর্থ হয়। সুতরাং,বায়জেন্টাইন রুম বা অর্থোডক্স খ্রিস্টানদের বিজয় এবং মুসলিমদের বিজয় পরষ্পর সম্পর্কযুক্ত। অর্থোডক্স খ্রিস্টানদের বিজয়ে ইসলামের চাঁদ উদিত হয়েছিল এবং সেই চাঁদ ধীরে ধীরে বড় হয়ে একটি পূর্ণ শক্তি হিসেবে ভূরাজনীতিতে আবির্ভূত হয়েছিল। সূরা রূমে আছে, “রোমকরা পরাজিত হইয়াছে। অতি শীঘ্রই তাহারা (জাযিরাতুল আরবের) নিকটবর্তী অঞ্চলে বিজয়ী হইবে। কয়েক বছরের মধ্যে। পূর্বের ও পরের ফয়সালা আল্লাহ্‌রই। এবং সেদিন মু’মিনরা আনন্দিত হইবে। (সূরা রূম, আয়াত ২ – ৪) আল্লাহ্‌ বলছেন, পূর্বের ও পরের ফয়সালা আল্লাহ্‌রই। অর্থাৎ পূর্বেও যেমন মুসলমানরা রোমকদের বিজয়ে আনন্দিত হইয়াছিল ইহা আবার পরেও হইবে। অর্থোডক্স খ্রিস্টান আবার বিজয়ী হবে এবং মুমিন মুসলিমদের জন্য তা আশীর্বাদ বয়ে নিয়ে আসবে। পবিত্র কোরান নাযিলের সময় পূর্বরুম ছিল আনাতোলিয়ায় বা বর্তমান তুরস্কে। অটোমান সাম্রাজ্য কন্সট্যান্টিনোপল দখল করে রুমকে সেখান থেকে সরিয়ে দেয়। অটোমান সাম্রাজ্য যেটা করেছিল, সেটা নিন্দনীয়। অটোমানরা ছিল তুর্কজাতি। তারা আরবদের কাছ থেকে খিলাফতব্যবস্থা কেড়ে নিয়েছিল। হাদিস সাহিত্যে রয়েছে যে, যদি মাত্র দুজন কুরাইশ ব্যক্তিও জীবিত থাকে, তবে তাদের একজন মুসলিম জাহানের খলীফা হবে। কারণ,আল্লাহ সুবহানওয়াতালা কুরাইশ বংশের হাতে এই মহান দায়িত্ব অর্পন করেছেন এবং তাদেরকে কা’বা শরীফের খাদেম করেছেন। অথচ মধ্য এশিয়া থেকে মিসটেরিয়াস শক্তি নিয়ে এসে একটি জাতি হঠাৎ করে আরবদের কাছ থেকে খিলাফতব্যবস্থা কেড়ে নিয়ে নিজেদের করে নেয় এবং তাকে ন্যায় প্রমাণ করার জন্য কন্সট্যান্টিনোপল আক্রমণ করে ও বায়জেন্টাইন রুম সাম্রাজ্যকে ধ্বংস করে এবং নিজেদেরকে হাদিস সাহিত্যে ভবিষ্যতবাণীকৃত কন্সট্যান্টিনোপল বিজয়ী মুসলিম দল হিসেবে ঘোষণা করে। আর ততৎকালীন আলেম ওলামাগণও নিজেদের জ্ঞানের মাথা খেয়ে সুলতান ফাতেহর সেই তুর্কি দলকেই কন্সট্যান্টিনোপল বিজয়ী সেই বাহিনী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়। অথচ,সুনান আবু দাউদের সহীহ হাদিস সাহিত্যে স্পষ্ট উল্লেখ আছে, কন্সট্যান্টিনোপল বিজয় হয়ে মালহামার পর এবং ইহুদিরাজ মিথ্যে মসীহ দাজ্জাল আগমণের কয়েক মাস বা বছর আগে। যা স্পষ্টভাবে প্রমাণ করে অটোমান সাম্রাজ্যের এই দাবী ছিল মিথ্যে এবং তারা এটা করেছিল নিজেদের খিলাফতব্যবস্থাকে মুসলিম বিশ্বের কাছে ন্যায়ভিত্তিক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে। তারা অর্থোডক্স খ্রিস্টানদের উপর অত্যাচার করতে থাকে। অর্থোডক্স খ্রিস্টানদের অতি পবিত্র উপাসনালয় হাগিয়া সোফিয়া দখল করে সেটাকে ক্যাথেড্রাল থেকে মসজিদে রূপান্তর করে। অর্থোডক্স খ্রিস্টানদের রাজধানী কন্সট্যান্টিনোপলকে মুসলিম খিলাফতের রাজধানীতে পরিণত করে। অর্থোডক্স খ্রিস্টান নারীদের দাস বানিয়ে নিজেদের লালসার স্বীকার বানায়। বায়জেন্টাইন রুম বা অর্থোডক্স খ্রিস্টানরা তখন পূর্ব ইউরোপ ও রাশিয়ায় হিজরত করতে থাকে। একটিদিনও নেই যেদিন অটোমান সাম্রাজ্য রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধ না করে থেকেছে। তারা অর্থোডক্স নারীদের দাস বানিয়ে তাদের গর্ভ থেকে হওয়া সন্তানদেরকে অর্থোডক্স খ্রিস্টানদের বিরুদ্ধেই যুদ্ধে পাঠিয়েছে। তারা শুধুমাত্র শীতকাল ব্যতীত সবসময়ই রাশিয়ার সাথে যুদ্ধে লিপ্ত থাকত। কারণ,শীতকালে যুদ্ধ করা সম্ভব ছিল না, তাই তারা তখন বসন্তকালীন যুদ্ধের প্রস্তুতি গ্রহণ করত। সুতরাং,রুম চলে যায় রাশিয়ায়। রাশিয়ায় উষ্ণজলের সমুদ্রের খুব অভাব। কিন্তু সেসময় নৌবাহিনীই ছিল ক্ষমতার উৎস। প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময় ব্রিটেন ও ফ্রান্স রাশিয়াকে লোভ দেখায় যে, তাদের পক্ষে যুদ্ধ করলে অটোমান সাম্রাজ্য অর্থাৎ বর্তমান তুরস্ক তাদের দিয়ে দেয়া হবে। তুরস্ক পাওয়া মানে কৃষ্ণসাগর পাওয়া। রাশিয়া তাই এ প্রস্তাবে রাজি হয়। কিন্তু যুদ্ধের পর পশ্চিমারা ইহুদিদের দ্বারা রাশিয়ায় বলশেভিক রেভ্যুলেশন ঘটায়। ফলে রাশিয়ার আর তুরস্ককে পাওয়া হয়না বরং নিজেরই অস্তিত্ব হারিয়ে নাস্তিক সোভিয়েত ইউনিওনে পরিণত হয়। সোভিয়েত ইউনিওন সৃষ্টি করা হয়েছিল রাশিয়াকে তথা অর্থোডক্স খ্রিস্টান বা রুমকে ধ্বংস করার জন্য। সোভিয়েত ইউনিওন রাশিয়ার একমাত্র উষ্ণসমুদ্রের উৎস ক্রিমিয়াকে ইউক্রেনের কাছে হস্তান্তর করে যাতে রাশিয়ার পরাশক্তি হয়ে ওঠার শেষ সম্ভাবনাকেও ধ্বংস করে রাশিয়াকে সম্পূর্ণভাবে পঙ্গু করে দেয়া যায়। যখন ইহুদিরা নিশ্চিত হলো,রুম শেষ,তখন তারা সোভিয়েতকে ভেঙে দিয়ে দলে দলে ইজরাইলে পাড়ি দিল। কিন্তু তারাও পরিকল্পনা করে আর আল্লাহও পরিকল্পনা করেন। আর আল্লাহ শ্রেষ্ঠ পরিকল্পনাকারী। রাশিয়া সেই ধ্বংস থেকে পুনরায় গড়ে উঠতে থাকে এবং ভ্লাদিমির পুতিনের নেতৃত্বে পুনরায় একটি পরাশক্তি হিসেবে আবির্ভূত হয়। শুধু পরাশক্তি হিসেবেই নয়,বরং বিশ্বাসী পরাশক্তি হিসেবে। রাশিয়া সোভিয়েত শয়তানিজম থেকে পুনরায় অর্থোডক্স খ্রিস্টানের পথে,রুমের পথে আসতে শুরু করে। যেখানে ভ্যাটিকান সিটির পোপ পর্যন্ত ইঞ্জিলে বর্ণিত সোডোম ও গোমরাহর শিক্ষা ভুলে,আল্লাহর আদেশকে অমান্য করে সমকামীতার পক্ষে অবস্থান নেয়,সেখানে রাশিয়া ঘোষণা করে,নো গে, নো লেসবিয়ান। নো এলজিবিটি ইন রাশিয়া। যেখানে পশ্চিমারা নিজেদের খ্রিস্টান পরিচয়ের চেয়ে সেক্যুলার এথিস্ট পরিচয় দেয়াটাকেই সাইন্টিফিক ও যুক্তিযুক্ত মনে করে আনন্দ প্রকাশ করে বলে, “খোদা এখন সভ্যতার যাদুঘরে থাকে”;সেখানে রাশিয়ায় “খোদা নেই” বললে গ্রেফতার করা হয়। রাশিয়ার ধর্মীয় নেতা বলেন,”রাশিয়া জানে ধর্মহীন রাস্ট্র কেমন হয়। তাই রাশিয়া প্রত্যাবর্তন করছে বিশ্বাসের পথে।” রাশিয়া হলো সেই রুম যে রুম পুনরায় বিজয় অর্জন করবে এবং মুমিন মুসলমানদের জন্য সুসংবাদ ও আশীর্বাদ বয়ে নিয়ে আসবে। আশীর্বাদ ইসলামের নতুন চাঁদ উদিত হওয়ার আর সুসংবাদ খোলাফায়ে রাশেদিনের সেই সত্যিকারের ইসলামী শাসনতন্ত্র পুনরায় প্রতিষ্ঠিত হওয়ার। মুসলমানরা সেদিন আনন্দিত হবে কারণ তা জেরুজালেম বিজয়ের পথ খুলে দিবে, যেভাবে অতীতে রোমকদের বিজয় মক্কা বিজয়ের পথ খুলে দিয়েছিল। পশ্চিম রুমঃ পশ্চিম রুম হলো আরেকধরণের রুম যে রুমের কথা হাদিস শরীফে বর্ণিত হয়েছে। ইটালির রোমে অবস্থিত ল্যাটিনভাষী পশ্চিম রুম সাম্রাজ্য যারা ছিল মূলত পৌত্তলিক। কিন্তু পরবর্তীতে খ্রিস্টান ধর্ম গ্রহণ করে। যদিও তারা খ্রিস্টান হয়ে যায়,তবুও তারা তাদের পৌত্তলিক সভ্যতাকে ভুলতে পারছিল না। তারা এক নতুন খ্রিস্টান সেক্টের উদ্ভব ঘটায় যা মূল অর্থোডক্স খ্রিস্টান থেকে ভিন্ন। আর সেটা হলো পশ্চিমা খ্রিস্টান (ক্যাথলিক ও প্রোটেস্টেন্ট)। পশ্চিমা খ্রিস্টানরা তাদের পৌত্তলিকতাকে ভুলতে না পারায় তাদের সভ্যতা,সংস্কৃতি এমনকি ভ্যাটিকান সিটির পবিত্র গীর্জাতেও মূর্তি ও মূর্তির বেদি রেখে দেয় এবং সেগুলোকেও উপাসনার অংশ ভাবে। পশ্চিমা খ্রিস্টানরা এক অদ্ভুত জিনিস করে যা পৃথিবীর ইতিহাস আগে কখনো দেখেনি। সেটা হলো ইহুদি-খ্রিস্ট মিত্রতা। ইহুদিরা চিরকাল খ্রিস্টানদের ভ্রান্তবাদী বলে এসেছে এবং খ্রিস্টানরা ইহুদিদের নিজেদের ঈশ্বর হত্যাকারী বলে এসেছে। তারা পরষ্পরের শত্রু ও পরষ্পরকে ঘৃণার দৃষ্টিতে দেখে এসেছে। নিজেদের বিষয়কে যথার্থ প্রমাণ করতে বাগবিতণ্ডা করে এসেছে। এমনকি রাসুলুল্লাহ (সা) এর সামনেও তারা পরষ্পরের বিরুদ্ধে বাগবিতণ্ডা করেছে। তারা কখনো বন্ধু ছিল না! কিন্তু পশ্চিমা খ্রিস্টানরা ইতিহাসে প্রথমবারের মত ইহুদিদের সাথে বন্ধুত্ব স্থাপন করে। ভ্যাটিকান পোপ ঘোষণা করে,ইহুদিদের ঘৃণা করা যাবেনা, দায়ী করা যাবেনা। বরং তাদের সাথে মিলিত হয়ে পবিত্র ভূমিতে ইহুদিদের অধিকার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে মিলিতভাবে কাজ করে যেতে হবে। একে বলে “যায়োনিজম” যখন কিছুসংখ্যক ইউরোপীয় খ্রিস্টান ও কিছুসংখ্যক ইউরোপীয় ইহুদি মিলে ইহুদি খ্রিস্ট যায়োনিস্ট এলায়েন্স গঠন করে যার প্রধান লক্ষ্য ছিল পবিত্র ভূমি বায়তুল মুকাদ্দাস বা ফিলিস্তিন দখল করা। পবিত্র কোরানের ভাষ্য অনুযায়ী, এই যায়োনিস্টরাই হলো ইয়াজুজ মাজুজ যারা খ্রিস্টান ধর্ম গ্রহণ করে পশ্চিম রুম বা পশ্চিমা খ্রিস্টানদের সাথে মিশে যায় আর ইহুদি ধর্ম গ্রহণ করে বনী ইসরাইলিদের সাথে ১৩ তম গোত্র হিসেবে মিশে যায়। পশ্চিমা খ্রিস্টানদের সামরিক ও অর্থনৈতিক রাজধানী ছিল ব্রিটেনে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর তা চলে যায় যুক্তরাস্ট্রে। এই রুমের সাথেই ওহাবী মুসলিমরা চুক্তি করেছিল তাদের শত্রুর বিরুদ্ধে লড়াই করতে। ওহাবী মুসলিম ও পশ্চিম রুমের দ্বারাই সৃষ্টি হয়েছিল তালেবান,আল-কায়েদা,আল-নুসরার মত জংগী দলগুলো যাদের প্রধান লক্ষ্য ছিল তেলসম্পদ সমৃদ্ধ অঞ্চলসমূহকে অশান্ত করা যাতে গণিমত হিসেবে সেগুলো লাভ করা যায়। যুদ্ধগুলো হলো আফগান যুদ্ধ, ইরাক যুদ্ধ এবং লিবিয়া যুদ্ধ। লিবিয়া যুদ্ধে গাদ্দাফিকে অন্যায়ভাবে হত্যা করার পর সমস্ত ক্রেডিট পশ্চিমা খ্রিস্টানরা নিয়ে যায়। তারা ঘোষণা করে, “ক্রস জয়যুক্ত হয়েছে।” অর্থাৎ ন্যাটোই বিজয় লাভ করেছে। হিলারি ক্লিনটন হাসতে হাসতে বলল,”আমরা এলাম, দেখলাম, সে (গাদ্দাফি) মরে গেল।” তারপর পশ্চিম রুম ওহাবী মুসলিমদের ধোঁকা দিল। এতদিন জংগী ইন্ডাস্ট্রি ছিল সৌদি-যুক্তরাস্ট্র প্রজেক্ট। এবার যুক্তরাস্ট্র সৌদিকে বাদ দিয়ে দায়েশ তৈরী করল যা ছিল তুরস্ক-যুক্তরাস্ট্র প্রজেক্ট। দায়েশের অন্যতম লক্ষ্য ছিল সৌদি আরব দখল করা। এখন,সৌদি আরব ধীরে ধীরে সত্যিকারের বন্ধুরুম রাশিয়ার দিকে আসছে। যদি সৌদি আরব রাশিয়ার সাথে মিলে তেল বয়কট করে,তবে তা হবে সিম্বলিকালি একজন মুসলিমের “না ক্রস নয়,বরং মুসলিমই বিজয়ী হয়েছে” ঘোষণা করা। পশ্চিম রুম মুসলিম ও পূর্বরুমের বিরুদ্ধে মালহামার প্রস্তুতি নিচ্ছে। আর সুরা রুম থেকে আমরা জানি, এ যুদ্ধে পূর্বরুম ও মুসলিমই বিজয়ী হবে ইন শা আল্লাহ। মালহামার পর বা চলাকালীন মুসলিমরা কন্সট্যান্টিনোপল বিজয় করবে এবং হাদিসের ভবিষ্যতবাণী পূর্ণ করবে। কন্সট্যান্টিনোপল বিজয় মানে তুরস্ককে ন্যাটো থেকে মুক্ত করা। সেই কন্সট্যান্টিনোপল বিজয়ী মুসলিম নেতা হাগিয়া সোফিয়াকে পুনরায় অর্থোডক্স খ্রিস্টানদেরকে ফিরিয়ে দেবে। এসব ব্যপারে আল্লাহ ব্যতীত অধিক জ্ঞানী কেউ নয়। Patriarch Kirill (right) in 2009 and Pope Francis (left) in 2015. Successors of the Greek East and Latin West. One is the Pope of Eastern Roman Catholic Church and the other is the Patriarch of the Russian Orthodox Church (ROC), the largest of the Eastern Orthodox churches. Look at the bearded appearance of the Patriarch and no beard of the Pope. There is only one bearded man in Catholics, the Santa Claus.
    1
    0 Comments 0 Shares
  • চমৎকার একটি উর্দু নাশীদ শুনলে অবশ্যই ভালো লাগবেে....
    চমৎকার একটি উর্দু নাশীদ শুনলে অবশ্যই ভালো লাগবেে....
    2
    10 0 Comments 0 Shares
  • রসূল (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়াসাল্লাম) বলেছেন,
    “ধৈর্যের (রমযান) মাসে সিয়াম আর প্রত্যেক মাসের তিনটি সিয়াম অন্তরের বিদ্বেষ ও খট্কা দূর করে দেয়।”
    [হাদিস সম্ভারঃ১১০০]
    #Al_Hadith
    রসূল (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়াসাল্লাম) বলেছেন, “ধৈর্যের (রমযান) মাসে সিয়াম আর প্রত্যেক মাসের তিনটি সিয়াম অন্তরের বিদ্বেষ ও খট্কা দূর করে দেয়।” [হাদিস সম্ভারঃ১১০০] #Al_Hadith
    2
    0 Comments 0 Shares
  • আমি তোমাদের প্রতি একটি লিখিত বর্ণনা বা আলোচনা অবর্তীর্ণ করেছি; এতে লাভ-ক্ষতি সংক্রান্ত চূড়ান্ত দিকনির্দেশনা রয়েছে।
    সূরা-২১:১০
    #Al_Quran
    আমি তোমাদের প্রতি একটি লিখিত বর্ণনা বা আলোচনা অবর্তীর্ণ করেছি; এতে লাভ-ক্ষতি সংক্রান্ত চূড়ান্ত দিকনির্দেশনা রয়েছে। সূরা-২১:১০ #Al_Quran
    1
    0 Comments 0 Shares
  • শান্তিময় সে রাত (লাইলাতুলকদর), ফজরের আবির্ভাব পর্যন্ত।
    [সূরা আল-ক্বাদরঃ ৫]
    #Al_Quran
    শান্তিময় সে রাত (লাইলাতুলকদর), ফজরের আবির্ভাব পর্যন্ত। [সূরা আল-ক্বাদরঃ ৫] #Al_Quran
    2
    0 Comments 0 Shares
  • দেখতে দেখতে রমজান চলেযাচ্ছে 😭
    দেখতে দেখতে রমজান চলেযাচ্ছে 😭
    1
    0 Comments 0 Shares
  • 🥰🏦🛒 শপিং করতে আর নয় মার্কেটে বরং আপনার পছন্দের শপিং যাবে আপনার ঘরে 🥰🏦🛒

    এই বছরের ধামাকা,,,,,, ঈদের 🥰অফার 🥰অফার 🥰অফার

    🥰🛒 আপনাকে বার বার কোয়ালিটি সার্ভিস দেওয়া আমাদের মূল লক্ষ্য 🛒🥰।
    👉 ১০০% কোয়ালিটি প্রোডাক্টসের নিশ্চয়তা আমরা দিচ্ছি আপনাকে।

    👉 অর্ডার করার 24 ঘন্টা মধ্যে ডেলিভারি দেয়া হয়,,
    👉 ক্যাশ অন এবং হোম ডেলিভারি সুবিধা।
    👉 ছবির সাথে মিল, সেম ড্রেস প্রাপ্তির নিশ্চয়তা আমরা আপনাকে দিতে পারি ইনশাআল্লাহ ।
    👉👉 ছবির সাথে পণ্যের মিল না থাকলে ফেরত দিতে পারবেন। https://justbd.net/contact-support-delivery-return-replace/

    👉 আকর্ষনীয় এবং আরামদায়ক ড্রেস।
    👉 ক্রয় করতে পারেন পেজ থেকে বা আমাদের ওয়েভ সাইট থেকে। ওয়েভ সাইট লিংক https://justbd.net/
    👉 প্রয়োজনে ফোন করুনঃ 01708099136.

    👉 ডেলিভারী চার্জ ঢাকা ও চট্টগ্রাম মেট্রো এর ভিতরে ৬০/- টাকা। ঢাকা চট্টগ্রাম মেট্রো এর বাহিরে ডেলিভারী চার্জ ১৩০/- টাকা।
    বিঃ দ্রঃ অর্ডার কনফার্ম করার জন্য শুধুমাত্র ডেলিভারি চার্জ টা বিকাশ/ নগদ/ রকেটে পাঠাতে হবে।
    (বিকাশ-01815149172).
    (নগদ/ রকেট-01708099136).

    ঘরে বসে স্বাচ্ছন্দে্ শপিং করুন justbd.net হতে, আর নিশ্চিন্তে থাকুন পণ্যের গুনগত মান ও ডেলিভারি নিয়ে। এছাড়াও পণ্যগুলো দেখতেও আকর্ষণীয় এবং দামে সাশ্রয়ী।
    বিস্তারিত জানতে অথবা অর্ডার করতে SHOP NOW বাঁটনে ক্লিক করুন বা কল করুনঃ 01708099136.
    আরও তথ্যের জন্য লিংকে ক্লিক করুন https://justbd.net/ অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন: 01708099136.
    🤔আপনার অনলাইন শপিং হোক সুনিশ্চিত, আনন্দের ও আস্থার ।
    আমাদের Android App লিংক https://play.google.com/store/apps/details?id=com.bponi.storeJustbd
    আমাদের সাথে থাকার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ, ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন, আল্লাহ হাফেজ 🥰
    🥰🏦🛒 শপিং করতে আর নয় মার্কেটে বরং আপনার পছন্দের শপিং যাবে আপনার ঘরে 🥰🏦🛒 এই বছরের ধামাকা,,,,,, ঈদের 🥰অফার 🥰অফার 🥰অফার 🥰🛒 আপনাকে বার বার কোয়ালিটি সার্ভিস দেওয়া আমাদের মূল লক্ষ্য 🛒🥰। 👉 ১০০% কোয়ালিটি প্রোডাক্টসের নিশ্চয়তা আমরা দিচ্ছি আপনাকে। 👉 অর্ডার করার 24 ঘন্টা মধ্যে ডেলিভারি দেয়া হয়,, 👉 ক্যাশ অন এবং হোম ডেলিভারি সুবিধা। 👉 ছবির সাথে মিল, সেম ড্রেস প্রাপ্তির নিশ্চয়তা আমরা আপনাকে দিতে পারি ইনশাআল্লাহ । 👉👉 ছবির সাথে পণ্যের মিল না থাকলে ফেরত দিতে পারবেন। https://justbd.net/contact-support-delivery-return-replace/ 👉 আকর্ষনীয় এবং আরামদায়ক ড্রেস। 👉 ক্রয় করতে পারেন পেজ থেকে বা আমাদের ওয়েভ সাইট থেকে। ওয়েভ সাইট লিংক https://justbd.net/ 👉 প্রয়োজনে ফোন করুনঃ 01708099136. 👉 ডেলিভারী চার্জ ঢাকা ও চট্টগ্রাম মেট্রো এর ভিতরে ৬০/- টাকা। ঢাকা চট্টগ্রাম মেট্রো এর বাহিরে ডেলিভারী চার্জ ১৩০/- টাকা। বিঃ দ্রঃ অর্ডার কনফার্ম করার জন্য শুধুমাত্র ডেলিভারি চার্জ টা বিকাশ/ নগদ/ রকেটে পাঠাতে হবে। (বিকাশ-01815149172). (নগদ/ রকেট-01708099136). ঘরে বসে স্বাচ্ছন্দে্ শপিং করুন justbd.net হতে, আর নিশ্চিন্তে থাকুন পণ্যের গুনগত মান ও ডেলিভারি নিয়ে। এছাড়াও পণ্যগুলো দেখতেও আকর্ষণীয় এবং দামে সাশ্রয়ী। বিস্তারিত জানতে অথবা অর্ডার করতে SHOP NOW বাঁটনে ক্লিক করুন বা কল করুনঃ 01708099136. আরও তথ্যের জন্য লিংকে ক্লিক করুন https://justbd.net/ অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন: 01708099136. 🤔আপনার অনলাইন শপিং হোক সুনিশ্চিত, আনন্দের ও আস্থার । আমাদের Android App লিংক https://play.google.com/store/apps/details?id=com.bponi.storeJustbd আমাদের সাথে থাকার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ, ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন, আল্লাহ হাফেজ 🥰
    1
    0 Comments 0 Shares
  • 🥰🏦🛒 শপিং করতে আর নয় মার্কেটে বরং আপনার পছন্দের শপিং যাবে আপনার ঘরে 🥰🏦🛒

    এই বছরের ধামাকা,,,,,, ঈদের 🥰অফার 🥰অফার 🥰অফার

    🥰🛒 আপনাকে বার বার কোয়ালিটি সার্ভিস দেওয়া আমাদের মূল লক্ষ্য 🛒🥰।
    👉 ১০০% কোয়ালিটি প্রোডাক্টসের নিশ্চয়তা আমরা দিচ্ছি আপনাকে।

    👉 অর্ডার করার 24 ঘন্টা মধ্যে ডেলিভারি দেয়া হয়,,
    👉 ক্যাশ অন এবং হোম ডেলিভারি সুবিধা।
    👉 ছবির সাথে মিল, সেম ড্রেস প্রাপ্তির নিশ্চয়তা আমরা আপনাকে দিতে পারি ইনশাআল্লাহ ।
    👉👉 ছবির সাথে পণ্যের মিল না থাকলে ফেরত দিতে পারবেন। https://justbd.net/contact-support-delivery-return-replace/

    👉 আকর্ষনীয় এবং আরামদায়ক ড্রেস।
    👉 ক্রয় করতে পারেন পেজ থেকে বা আমাদের ওয়েভ সাইট থেকে। ওয়েভ সাইট লিংক https://justbd.net/
    👉 প্রয়োজনে ফোন করুনঃ 01708099136.

    👉 ডেলিভারী চার্জ ঢাকা ও চট্টগ্রাম মেট্রো এর ভিতরে ৬০/- টাকা। ঢাকা চট্টগ্রাম মেট্রো এর বাহিরে ডেলিভারী চার্জ ১৩০/- টাকা।
    বিঃ দ্রঃ অর্ডার কনফার্ম করার জন্য শুধুমাত্র ডেলিভারি চার্জ টা বিকাশ/ নগদ/ রকেটে পাঠাতে হবে।
    (বিকাশ-01815149172).
    (নগদ/ রকেট-01708099136).

    ঘরে বসে স্বাচ্ছন্দে্ শপিং করুন justbd.net হতে, আর নিশ্চিন্তে থাকুন পণ্যের গুনগত মান ও ডেলিভারি নিয়ে। এছাড়াও পণ্যগুলো দেখতেও আকর্ষণীয় এবং দামে সাশ্রয়ী।
    বিস্তারিত জানতে অথবা অর্ডার করতে SHOP NOW বাঁটনে ক্লিক করুন বা কল করুনঃ 01708099136.
    আরও তথ্যের জন্য লিংকে ক্লিক করুন https://justbd.net/ অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন: 01708099136.
    🤔আপনার অনলাইন শপিং হোক সুনিশ্চিত, আনন্দের ও আস্থার ।
    আমাদের Android App লিংক https://play.google.com/store/apps/details?id=com.bponi.storeJustbd
    আমাদের সাথে থাকার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ, ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন, আল্লাহ হাফেজ 🥰
    https://justbd.net/
    🥰🏦🛒 শপিং করতে আর নয় মার্কেটে বরং আপনার পছন্দের শপিং যাবে আপনার ঘরে 🥰🏦🛒 এই বছরের ধামাকা,,,,,, ঈদের 🥰অফার 🥰অফার 🥰অফার 🥰🛒 আপনাকে বার বার কোয়ালিটি সার্ভিস দেওয়া আমাদের মূল লক্ষ্য 🛒🥰। 👉 ১০০% কোয়ালিটি প্রোডাক্টসের নিশ্চয়তা আমরা দিচ্ছি আপনাকে। 👉 অর্ডার করার 24 ঘন্টা মধ্যে ডেলিভারি দেয়া হয়,, 👉 ক্যাশ অন এবং হোম ডেলিভারি সুবিধা। 👉 ছবির সাথে মিল, সেম ড্রেস প্রাপ্তির নিশ্চয়তা আমরা আপনাকে দিতে পারি ইনশাআল্লাহ । 👉👉 ছবির সাথে পণ্যের মিল না থাকলে ফেরত দিতে পারবেন। https://justbd.net/contact-support-delivery-return-replace/ 👉 আকর্ষনীয় এবং আরামদায়ক ড্রেস। 👉 ক্রয় করতে পারেন পেজ থেকে বা আমাদের ওয়েভ সাইট থেকে। ওয়েভ সাইট লিংক https://justbd.net/ 👉 প্রয়োজনে ফোন করুনঃ 01708099136. 👉 ডেলিভারী চার্জ ঢাকা ও চট্টগ্রাম মেট্রো এর ভিতরে ৬০/- টাকা। ঢাকা চট্টগ্রাম মেট্রো এর বাহিরে ডেলিভারী চার্জ ১৩০/- টাকা। বিঃ দ্রঃ অর্ডার কনফার্ম করার জন্য শুধুমাত্র ডেলিভারি চার্জ টা বিকাশ/ নগদ/ রকেটে পাঠাতে হবে। (বিকাশ-01815149172). (নগদ/ রকেট-01708099136). ঘরে বসে স্বাচ্ছন্দে্ শপিং করুন justbd.net হতে, আর নিশ্চিন্তে থাকুন পণ্যের গুনগত মান ও ডেলিভারি নিয়ে। এছাড়াও পণ্যগুলো দেখতেও আকর্ষণীয় এবং দামে সাশ্রয়ী। বিস্তারিত জানতে অথবা অর্ডার করতে SHOP NOW বাঁটনে ক্লিক করুন বা কল করুনঃ 01708099136. আরও তথ্যের জন্য লিংকে ক্লিক করুন https://justbd.net/ অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন: 01708099136. 🤔আপনার অনলাইন শপিং হোক সুনিশ্চিত, আনন্দের ও আস্থার । আমাদের Android App লিংক https://play.google.com/store/apps/details?id=com.bponi.storeJustbd আমাদের সাথে থাকার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ, ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন, আল্লাহ হাফেজ 🥰 https://justbd.net/
    4
    0 Comments 0 Shares
  • 🥰🏦🛒 শপিং করতে আর নয় মার্কেটে বরং আপনার পছন্দের শপিং যাবে আপনার ঘরে 🥰🏦🛒

    এই বছরের ধামাকা,,,,,, ঈদের 🥰অফার 🥰অফার 🥰অফার

    🥰🛒 আপনাকে বার বার কোয়ালিটি সার্ভিস দেওয়া আমাদের মূল লক্ষ্য 🛒🥰।
    👉 ১০০% কোয়ালিটি প্রোডাক্টসের নিশ্চয়তা আমরা দিচ্ছি আপনাকে।

    👉 অর্ডার করার 24 ঘন্টা মধ্যে ডেলিভারি দেয়া হয়,,
    👉 ক্যাশ অন এবং হোম ডেলিভারি সুবিধা।
    👉 ছবির সাথে মিল, সেম ড্রেস প্রাপ্তির নিশ্চয়তা আমরা আপনাকে দিতে পারি ইনশাআল্লাহ ।
    👉👉 ছবির সাথে পণ্যের মিল না থাকলে ফেরত দিতে পারবেন। https://justbd.net/contact-support-delivery-return-replace/

    👉 আকর্ষনীয় এবং আরামদায়ক ড্রেস।
    👉 ক্রয় করতে পারেন পেজ থেকে বা আমাদের ওয়েভ সাইট থেকে। ওয়েভ সাইট লিংক https://justbd.net/
    👉 প্রয়োজনে ফোন করুনঃ 01708099136.

    👉 ডেলিভারী চার্জ ঢাকা ও চট্টগ্রাম মেট্রো এর ভিতরে ৬০/- টাকা। ঢাকা চট্টগ্রাম মেট্রো এর বাহিরে ডেলিভারী চার্জ ১৩০/- টাকা।
    বিঃ দ্রঃ অর্ডার কনফার্ম করার জন্য শুধুমাত্র ডেলিভারি চার্জ টা বিকাশ/ নগদ/ রকেটে পাঠাতে হবে।
    (বিকাশ-01815149172).
    (নগদ/ রকেট-01708099136).

    ঘরে বসে স্বাচ্ছন্দে্ শপিং করুন justbd.net হতে, আর নিশ্চিন্তে থাকুন পণ্যের গুনগত মান ও ডেলিভারি নিয়ে। এছাড়াও পণ্যগুলো দেখতেও আকর্ষণীয় এবং দামে সাশ্রয়ী।
    বিস্তারিত জানতে অথবা অর্ডার করতে SHOP NOW বাঁটনে ক্লিক করুন বা কল করুনঃ 01708099136.
    আরও তথ্যের জন্য লিংকে ক্লিক করুন https://justbd.net/ অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন: 01708099136.
    🤔আপনার অনলাইন শপিং হোক সুনিশ্চিত, আনন্দের ও আস্থার ।
    আমাদের Android App লিংক https://play.google.com/store/apps/details?id=com.bponi.storeJustbd
    আমাদের সাথে থাকার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ, ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন, আল্লাহ হাফেজ 🥰
    🥰🏦🛒 শপিং করতে আর নয় মার্কেটে বরং আপনার পছন্দের শপিং যাবে আপনার ঘরে 🥰🏦🛒 এই বছরের ধামাকা,,,,,, ঈদের 🥰অফার 🥰অফার 🥰অফার 🥰🛒 আপনাকে বার বার কোয়ালিটি সার্ভিস দেওয়া আমাদের মূল লক্ষ্য 🛒🥰। 👉 ১০০% কোয়ালিটি প্রোডাক্টসের নিশ্চয়তা আমরা দিচ্ছি আপনাকে। 👉 অর্ডার করার 24 ঘন্টা মধ্যে ডেলিভারি দেয়া হয়,, 👉 ক্যাশ অন এবং হোম ডেলিভারি সুবিধা। 👉 ছবির সাথে মিল, সেম ড্রেস প্রাপ্তির নিশ্চয়তা আমরা আপনাকে দিতে পারি ইনশাআল্লাহ । 👉👉 ছবির সাথে পণ্যের মিল না থাকলে ফেরত দিতে পারবেন। https://justbd.net/contact-support-delivery-return-replace/ 👉 আকর্ষনীয় এবং আরামদায়ক ড্রেস। 👉 ক্রয় করতে পারেন পেজ থেকে বা আমাদের ওয়েভ সাইট থেকে। ওয়েভ সাইট লিংক https://justbd.net/ 👉 প্রয়োজনে ফোন করুনঃ 01708099136. 👉 ডেলিভারী চার্জ ঢাকা ও চট্টগ্রাম মেট্রো এর ভিতরে ৬০/- টাকা। ঢাকা চট্টগ্রাম মেট্রো এর বাহিরে ডেলিভারী চার্জ ১৩০/- টাকা। বিঃ দ্রঃ অর্ডার কনফার্ম করার জন্য শুধুমাত্র ডেলিভারি চার্জ টা বিকাশ/ নগদ/ রকেটে পাঠাতে হবে। (বিকাশ-01815149172). (নগদ/ রকেট-01708099136). ঘরে বসে স্বাচ্ছন্দে্ শপিং করুন justbd.net হতে, আর নিশ্চিন্তে থাকুন পণ্যের গুনগত মান ও ডেলিভারি নিয়ে। এছাড়াও পণ্যগুলো দেখতেও আকর্ষণীয় এবং দামে সাশ্রয়ী। বিস্তারিত জানতে অথবা অর্ডার করতে SHOP NOW বাঁটনে ক্লিক করুন বা কল করুনঃ 01708099136. আরও তথ্যের জন্য লিংকে ক্লিক করুন https://justbd.net/ অথবা আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন: 01708099136. 🤔আপনার অনলাইন শপিং হোক সুনিশ্চিত, আনন্দের ও আস্থার । আমাদের Android App লিংক https://play.google.com/store/apps/details?id=com.bponi.storeJustbd আমাদের সাথে থাকার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ, ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন, আল্লাহ হাফেজ 🥰
    3
    0 Comments 0 Shares
  • https://aladdin.social/video/v/yUkMBl
    https://aladdin.social/video/v/yUkMBl
    ALADDIN.SOCIAL
    মাভেরা সিজনঃ ১ ভলিউমঃ ১১ সম্পূর্ণ পর্ব HD বাংলা সাবটাইটেল
    ⁣মাভেরা সিজনঃ ১ ভলিউমঃ ১১ সম্পূর্ণ পর্ব HD বাংলা সাবটাইটেল অনুুুুুবাদ মিডিয়া
    2
    0 Comments 0 Shares
  • রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন…
    তোমরা রমাদানের শেষ দশকের বেজোড় রাতগুলোতে (২১,২৩,২৫,২৭,২৯) লাইলাতুল কদরের অনুসন্ধান করো,,

    📚 বুখারী / ২০১৭
    #Al_Hadith
    রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন… তোমরা রমাদানের শেষ দশকের বেজোড় রাতগুলোতে (২১,২৩,২৫,২৭,২৯) লাইলাতুল কদরের অনুসন্ধান করো,, 📚 বুখারী / ২০১৭ #Al_Hadith
    0 Comments 0 Shares
  • লাইলাতুল কদর হাজার মাসের চেয়ে শ্রেষ্ঠ।
    [সূরা আল-ক্বাদরঃ ৩]
    #Al_Quran
    লাইলাতুল কদর হাজার মাসের চেয়ে শ্রেষ্ঠ। [সূরা আল-ক্বাদরঃ ৩] #Al_Quran
    3
    0 Comments 0 Shares
  • At least 769 killed in #Myanmar since Feb 1 coup

    ▪️The death toll in Myanmar's anti-coup protests has risen to 769.
    ▪️3,677 people are detained by the #military in the country.
    At least 769 killed in #Myanmar since Feb 1 coup ▪️The death toll in Myanmar's anti-coup protests has risen to 769. ▪️3,677 people are detained by the #military in the country.
    3
    0 Comments 0 Shares
  • #Al_Quran
    #Al_Quran
    4
    0 Comments 0 Shares
  • #Al_Quran
    #Al_Quran
    0 Comments 0 Shares
  • পাকিস্তান সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া আজ রিয়াদে সৌদি সশস্ত্র বাহিনী, চিফ অফ জেনারেল স্টাফ (সিজিএস) জেনারেলজেনারেল ফায়িহাদ বিন হামেদ আল রুওইলির সাথে সাক্ষাত করেছেন।

    বৈঠকে পারস্পরিক স্বার্থ, আফগান শান্তি প্রক্রিয়া, আঞ্চলিক সুরক্ষা পরিস্থিতি, প্রতিরক্ষা ও সুরক্ষা এবং সামরিক থেকে সামরিক সহযোগিতা সম্পর্কিত বিষয়াদি নিয়ে আলোচনা হয়। সিওএএস দু'জন সশস্ত্র বাহিনীর মধ্যে সামরিক সহযোগিতা আরও বাড়ানোর প্রয়োজনীয়তার উপর জোর দিয়েছিল এবং বলেছিল যে পাকিস্তান-কেএসএ সহযোগিতা এই অঞ্চলে শান্তি ও সুরক্ষায় ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে।
    পাকিস্তান সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া আজ রিয়াদে সৌদি সশস্ত্র বাহিনী, চিফ অফ জেনারেল স্টাফ (সিজিএস) জেনারেলজেনারেল ফায়িহাদ বিন হামেদ আল রুওইলির সাথে সাক্ষাত করেছেন। বৈঠকে পারস্পরিক স্বার্থ, আফগান শান্তি প্রক্রিয়া, আঞ্চলিক সুরক্ষা পরিস্থিতি, প্রতিরক্ষা ও সুরক্ষা এবং সামরিক থেকে সামরিক সহযোগিতা সম্পর্কিত বিষয়াদি নিয়ে আলোচনা হয়। সিওএএস দু'জন সশস্ত্র বাহিনীর মধ্যে সামরিক সহযোগিতা আরও বাড়ানোর প্রয়োজনীয়তার উপর জোর দিয়েছিল এবং বলেছিল যে পাকিস্তান-কেএসএ সহযোগিতা এই অঞ্চলে শান্তি ও সুরক্ষায় ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে।
    4
    0 Comments 0 Shares
  • 0 Comments 0 Shares
  • Istanbul, Turkey ❤️🇹🇷
    Istanbul, Turkey ❤️🇹🇷
    1
    0 Comments 0 Shares
  • জান্নাতে প্রবেশ করার পর আর কেউ দুনিয়াতে ফিরে আসার আকাংক্ষা করবে না, যদিও দুনিয়ার সকল সম্পদ তাকে দেয়া হয় |🥀
    [সহিহ বুখারি-২৮১৭]
    #Al_Hadith
    জান্নাতে প্রবেশ করার পর আর কেউ দুনিয়াতে ফিরে আসার আকাংক্ষা করবে না, যদিও দুনিয়ার সকল সম্পদ তাকে দেয়া হয় |🥀 [সহিহ বুখারি-২৮১৭] #Al_Hadith
    0 Comments 0 Shares
  • True☹️☹️
    True☹️☹️
    3
    7 0 Comments 0 Shares
  • রাসূল( ﷺ)বলেন:
    مَنْ قَامَ لَيْلَةَ الْقَدْرِ إِيمَانًا وَاحْتِسَابًا غُفِرَ لَهُ مَا تَقَدَّمَ مِنْ ذَنْبِهِ
    “যে ব্যক্তি ঈমানের সাথে ও
    সোয়াবের আশায় শবে কদরে
    রাত জাগরণ করে নফল নামায
    ও ইবাদত বন্দেগী করবে
    তার পূর্বের সকল (ছোট) গুনাহ
    মাফ করে দেয়া হবে।
    রাসূল( ﷺ)বলেন: مَنْ قَامَ لَيْلَةَ الْقَدْرِ إِيمَانًا وَاحْتِسَابًا غُفِرَ لَهُ مَا تَقَدَّمَ مِنْ ذَنْبِهِ “যে ব্যক্তি ঈমানের সাথে ও সোয়াবের আশায় শবে কদরে রাত জাগরণ করে নফল নামায ও ইবাদত বন্দেগী করবে তার পূর্বের সকল (ছোট) গুনাহ মাফ করে দেয়া হবে।
    0 Comments 0 Shares
  • رَبِّ  ارْحَـمْـهُـمَـا  كَـمَـا  رَبَِّـيــنِـىْ  صَـغِـيْـرًا

    👉রব্বির হাম্‌ হুমা কামা রব্বা ইয়ানি সগিরা🤲

    হে আমাদের প্রতিপালক! তাদের উভয়ের (পিতা-মাতার) প্রতি দয়া কর যেভাবে শৈশবে তারা আমাকে প্রতিপালন করেছিলেন।

    (সূরা বানী ইসরাইল, আয়াত : ২৪)
    #Al_Quran
    رَبِّ  ارْحَـمْـهُـمَـا  كَـمَـا  رَبَِّـيــنِـىْ  صَـغِـيْـرًا 👉রব্বির হাম্‌ হুমা কামা রব্বা ইয়ানি সগিরা🤲 হে আমাদের প্রতিপালক! তাদের উভয়ের (পিতা-মাতার) প্রতি দয়া কর যেভাবে শৈশবে তারা আমাকে প্রতিপালন করেছিলেন। (সূরা বানী ইসরাইল, আয়াত : ২৪) #Al_Quran
    0 Comments 0 Shares
  • তোমরা রমযানের শেষ দশকে বেজোড় রাতে লাইলাতুল ক্বদ্‌র অনুসন্ধান কর।
    (সহিহ বুখারী, ২০১৭)
    #Al_Hadith
    তোমরা রমযানের শেষ দশকে বেজোড় রাতে লাইলাতুল ক্বদ্‌র অনুসন্ধান কর। (সহিহ বুখারী, ২০১৭) #Al_Hadith
    3
    0 Comments 0 Shares
  • 0 Comments 0 Shares
  • 0 Comments 0 Shares
  • ৩ কাজের ৩ পুরুষ্কার - অশ্লীলতার জন্য মহামারী। ওযনে কারচুপির জন্য দুর্ভিক্ষ। যাকাত না দেয়ার জন্য অনাবৃষ্টি।
    ইবনে মাজাহ হাদীস-৪০১৯
    ৩ কাজের ৩ পুরুষ্কার - অশ্লীলতার জন্য মহামারী। ওযনে কারচুপির জন্য দুর্ভিক্ষ। যাকাত না দেয়ার জন্য অনাবৃষ্টি। ইবনে মাজাহ হাদীস-৪০১৯
    3
    0 Comments 0 Shares
  • “আল্লাহ ও তাঁর রাসূল যা হারাম করেছেন তারা তাকে হারাম গণ্য করে না এবং সত্য দ্বীনকে তাদের দীন হিসাবে গ্রহণ করে না”।
    [সূরা আত-তাওবাহ: ২৯] #Al_Quran
    “আল্লাহ ও তাঁর রাসূল যা হারাম করেছেন তারা তাকে হারাম গণ্য করে না এবং সত্য দ্বীনকে তাদের দীন হিসাবে গ্রহণ করে না”। [সূরা আত-তাওবাহ: ২৯] #Al_Quran
    3
    0 Comments 0 Shares
  • #💭🗯️
    #💭🗯️
    1
    0 Comments 0 Shares
  • পোশাকের তাত্ত্বিক পর্যালোচনা বা জুব্বা কি সত্যিই ইসলামী পোশাক?
    বন্ধুরা,
    পোশাক হলো,নৃজাতির ভূষণ। এই পোশাকের ব্যবহারই নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীকে অন্যান্য হাইওয়ান বা পশু থেকে স্বতন্ত্র করে রেখেছে।
    এই পোশাকী ব্যবহার আমরা আদি পৈতৃক সূত্রে শিক্ষা লাভ করেছি। হযরত আদম হাওয়া যখন জান্নাতে ছিলেন আল্লাহ তাদেরকে পোশাকের শালীন ব্যবহার শিক্ষা দিয়েছিলেন।

    আমি কোরআন সুন্নাহ যতদূর গবেষণা করেছি,
    ইসলাম স্পেসেফিকলী বা সুনির্দিষ্টভাবে পোশাকের কোন সাইজ বর্ণনা করেননি বরং পোশাকের ধরন বিভিন্ন অঞ্চল, দেশ, আবহাওয়া ও রুচিবোধে গড়ে উঠেছে। এক সময় বাঙালিদের শালীন পোষাক ছিল ধুতি পাঞ্জাবী। শিকদের শালীন পোশাক হচ্ছে, জুব্বা পাগড়ি। পাকিস্তানের শালীন পোশাক হচ্ছে, সেলোয়ার পাঞ্জাবি।

    ঠিক তেমনি আরব বিশ্বের ট্রাডিশনাল তথা প্রথাগত পোশাক হলো, জুব্বা পাগড়ি। মুসলিম অমুসলিম সকলের পোশাক একই ছিল এবং জেনেটিকভাবে আরবরা দাঁড়ি ও রাখতো।

    জুব্বা পাগড়ি একমাত্র ইসলামী পোশাক এমন কোটেশন কোরআন সুন্নাহর কোথাও খুঁজে পাওয়া যায়নি। আসল কথা হলো, তিনটি নিয়ম অবলম্বন করে যে কোন পোশাক পরিধান করা যায়। এক. সতর ঢেকে থাকে এমন পোশাক। দুই. পোশাকটি শালীন হতে হবে। তিন.পোশাকে অহংকার প্রকাশ বর্জনীয়।

    এ দেশের কাঠমোল্লারা খামোখা জুব্বার সাইজ, টুপির সাইজ ও পাগড়ির সাইজ নিয়ে ঝগড়া করে!
    জুব্বা পাগড়ি ওয়ালাদের হাল জমানার হাকিকত যদি বর্ণনা করি আপনারা অপবাদ দিবেন আমি নাকি গীবত করি। যে যা-ই বলুন সত্য প্রচারই আমার একমাত্র ব্রত।

    হাযা মা ইনদি ওয়াল ইলমু ইনদাল্লাহ, আলাইহি তাওয়াক্কালতু ওয়া ইলাইহি উনিব।
    পোশাকের তাত্ত্বিক পর্যালোচনা বা জুব্বা কি সত্যিই ইসলামী পোশাক? বন্ধুরা, পোশাক হলো,নৃজাতির ভূষণ। এই পোশাকের ব্যবহারই নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীকে অন্যান্য হাইওয়ান বা পশু থেকে স্বতন্ত্র করে রেখেছে। এই পোশাকী ব্যবহার আমরা আদি পৈতৃক সূত্রে শিক্ষা লাভ করেছি। হযরত আদম হাওয়া যখন জান্নাতে ছিলেন আল্লাহ তাদেরকে পোশাকের শালীন ব্যবহার শিক্ষা দিয়েছিলেন। আমি কোরআন সুন্নাহ যতদূর গবেষণা করেছি, ইসলাম স্পেসেফিকলী বা সুনির্দিষ্টভাবে পোশাকের কোন সাইজ বর্ণনা করেননি বরং পোশাকের ধরন বিভিন্ন অঞ্চল, দেশ, আবহাওয়া ও রুচিবোধে গড়ে উঠেছে। এক সময় বাঙালিদের শালীন পোষাক ছিল ধুতি পাঞ্জাবী। শিকদের শালীন পোশাক হচ্ছে, জুব্বা পাগড়ি। পাকিস্তানের শালীন পোশাক হচ্ছে, সেলোয়ার পাঞ্জাবি। ঠিক তেমনি আরব বিশ্বের ট্রাডিশনাল তথা প্রথাগত পোশাক হলো, জুব্বা পাগড়ি। মুসলিম অমুসলিম সকলের পোশাক একই ছিল এবং জেনেটিকভাবে আরবরা দাঁড়ি ও রাখতো। জুব্বা পাগড়ি একমাত্র ইসলামী পোশাক এমন কোটেশন কোরআন সুন্নাহর কোথাও খুঁজে পাওয়া যায়নি। আসল কথা হলো, তিনটি নিয়ম অবলম্বন করে যে কোন পোশাক পরিধান করা যায়। এক. সতর ঢেকে থাকে এমন পোশাক। দুই. পোশাকটি শালীন হতে হবে। তিন.পোশাকে অহংকার প্রকাশ বর্জনীয়। এ দেশের কাঠমোল্লারা খামোখা জুব্বার সাইজ, টুপির সাইজ ও পাগড়ির সাইজ নিয়ে ঝগড়া করে! জুব্বা পাগড়ি ওয়ালাদের হাল জমানার হাকিকত যদি বর্ণনা করি আপনারা অপবাদ দিবেন আমি নাকি গীবত করি। যে যা-ই বলুন সত্য প্রচারই আমার একমাত্র ব্রত। হাযা মা ইনদি ওয়াল ইলমু ইনদাল্লাহ, আলাইহি তাওয়াক্কালতু ওয়া ইলাইহি উনিব।
    3
    0 Comments 0 Shares
  • 📖 রাসূল (সাঃ) বলেন -

    "আল্লাহ তাদের জীবনকে আলোকিত
    করুক- যারা আমাদের কাছ থেকে একটি
    হাদিস শুনে, তা অন্তরে প্রেরণ করে এবং
    অন্যদের কাছে পৌঁছে দেয় ।"

    #Al_Hadith [আবু দাউদ, ৩৬৬০]
    📖 রাসূল (সাঃ) বলেন - "আল্লাহ তাদের জীবনকে আলোকিত করুক- যারা আমাদের কাছ থেকে একটি হাদিস শুনে, তা অন্তরে প্রেরণ করে এবং অন্যদের কাছে পৌঁছে দেয় ।" #Al_Hadith [আবু দাউদ, ৩৬৬০]
    1
    0 Comments 0 Shares
  • আল্লাহ কাবা ঘরকে মানুষের
    প্রত্যাবর্তনস্থল ও শান্তির আঁধার করেছে

    [সুরা বাকারা: ১২৫]
    আল্লাহ কাবা ঘরকে মানুষের প্রত্যাবর্তনস্থল ও শান্তির আঁধার করেছে [সুরা বাকারা: ১২৫]
    3
    0 Comments 0 Shares
  • আপনি কি জানেন তুরস্ক 🇹🇷 একটি হাইপারসনিক মিসাইল তৈরী করার চেষ্টা চালাচ্ছে।
    এ মিসাইলটি মাত্র ১৫ মিনিটে তুরস্ক থেকে ফ্রান্সে 🇫🇷 হামলা করতে পারবে।
    কিন্তু এটা নিউক্লিয়ার ক্যাপাবেল হবে না।
    শব্দের চেয়ে ৫গুন কিংবা তার চেয়ে দ্রুত গতির মিসাইলকে হাইপারসনিক মিসাইল বলে।
    #turkey #france #hypersonic_missael
    আপনি কি জানেন তুরস্ক 🇹🇷 একটি হাইপারসনিক মিসাইল তৈরী করার চেষ্টা চালাচ্ছে। এ মিসাইলটি মাত্র ১৫ মিনিটে তুরস্ক থেকে ফ্রান্সে 🇫🇷 হামলা করতে পারবে। কিন্তু এটা নিউক্লিয়ার ক্যাপাবেল হবে না। শব্দের চেয়ে ৫গুন কিংবা তার চেয়ে দ্রুত গতির মিসাইলকে হাইপারসনিক মিসাইল বলে। #turkey #france #hypersonic_missael
    4
    0 Comments 0 Shares
  • রাসূল (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেছেন, যখন তোমার নেক কাজে আনন্দ হবে। এবং নিজের অসৎ কাজে দুঃখ হবে। তখন তুমি নিজেকে মুমিন মনে করো।
    [তিরমিযি ২-৩৯]
    #Al_Hadith
    রাসূল (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেছেন, যখন তোমার নেক কাজে আনন্দ হবে। এবং নিজের অসৎ কাজে দুঃখ হবে। তখন তুমি নিজেকে মুমিন মনে করো। [তিরমিযি ২-৩৯] #Al_Hadith
    0 Comments 0 Shares
  • অল্প বয়সে দাড়ি রাখা😊
    আর অল্প বয়সে পর্দা করা😊

    ছোটখাটো বিষয় নয় এই দুটি কাজ করতে মজবুত ঈমান দরকার🥰
    অল্প বয়সে দাড়ি রাখা😊 আর অল্প বয়সে পর্দা করা😊 ছোটখাটো বিষয় নয় এই দুটি কাজ করতে মজবুত ঈমান দরকার🥰
    2
    0 Comments 0 Shares
  • .
    হে মুমিনগণ!
    আল্লাহকে ভয় কর এবং সঠিক কথা বল.
    [সূরা আল-আহযাবঃ ৭০]
    . #Al_Quran
    . হে মুমিনগণ! আল্লাহকে ভয় কর এবং সঠিক কথা বল. [সূরা আল-আহযাবঃ ৭০] . #Al_Quran
    3
    0 Comments 0 Shares
  • রাসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেছেন,
    “যে কেউ ঈমান ও সওয়াবের আশায় লাইলাতুল কদর রাত্রিতে সালাত আদায় করতে দাঁড়াবে তার পূর্ববর্তী সমস্ত গোনাহ ক্ষমা করে দেয়া হবে।”
    [বুখারী: ১০৯১, আবু দাউদ: ১৩৭২]
    #Al_Hadith
    রাসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেছেন, “যে কেউ ঈমান ও সওয়াবের আশায় লাইলাতুল কদর রাত্রিতে সালাত আদায় করতে দাঁড়াবে তার পূর্ববর্তী সমস্ত গোনাহ ক্ষমা করে দেয়া হবে।” [বুখারী: ১০৯১, আবু দাউদ: ১৩৭২] #Al_Hadith
    3
    0 Comments 0 Shares
  • প্রতিটি জিনিস তার সৌন্দর্য নিখুঁতভাবে সঠিক সময়ে আত্ম প্রকাশ করে।
    প্রতিটি জিনিস তার সৌন্দর্য নিখুঁতভাবে সঠিক সময়ে আত্ম প্রকাশ করে।
    0 Comments 0 Shares
  • মা মেয়েকে নামাজ শিক্ষা দিচ্ছেন!
    এর থেকে ভালো কাজ পৃথিবীতে
    আর কি হতে পারে? --------------- #MashaAllah
    মা মেয়েকে নামাজ শিক্ষা দিচ্ছেন! এর থেকে ভালো কাজ পৃথিবীতে আর কি হতে পারে? --------------- #MashaAllah
    2
    0 Comments 0 Shares
  • #Flowers
    #Flowers
    1
    0 Comments 0 Shares
  • "নবী কারীম (সাঃ) বলেছেন" :-

    খুব কষ্ট হওয়া সত্ত্বেও যে বারবার কোরআন পাঠ করে, সে দ্বিগুন পুরস্কার পাবে।

    ---[সহীহ বুখারী- ৪৯৩৭]-----
    #Al_Hadith
    "নবী কারীম (সাঃ) বলেছেন" :- খুব কষ্ট হওয়া সত্ত্বেও যে বারবার কোরআন পাঠ করে, সে দ্বিগুন পুরস্কার পাবে। ---[সহীহ বুখারী- ৪৯৩৭]----- #Al_Hadith
    1
    0 Comments 0 Shares
  • হাবিবি ইয়া রাসূল আল্লাহ.. 🥰🤫
    Habibi Yra Rasul Alllah
    হাবিবি ইয়া রাসূল আল্লাহ.. 🥰🤫 Habibi Yra Rasul Alllah
    4
    20 4 Comments 0 Shares
  • "হযরত মুসা (আঃ) একদিন আল্লাহর কাছে জিজ্ঞাসা করলেনঃ
    "হে প্রভু! আমার অনুসারীদের মধ্যে কে সবচেয়ে বড় পাপি?"
    :
    আল্লাহর উত্তরঃ "যে ব্যক্তি সর্বপ্রথম এই পথ অতিক্রম করবে, সে ব্যক্তি-ই হলো তোমার অনুসারীদের মধ্যে বড় পাপি"
    :
    আল্লাহর কথানুযায়ী হযরত মুসা (আঃ) বসে দেখছেন, কিছুক্ষণ পর দেখলেন এক ব্যাক্তি ছোট একটি ছেলেকে কোলে করে পথ অতিক্রম করছে। মুসা (আঃ) বুঝে ফেললেন এই সেই বড় পাপি
    :
    মুসা (আঃ) আল্লাহ কে বললেনঃ "প্রভু, এখন আমাকে সবচেয়ে নেকী মানুষটিকে দেখান।"
    :
    আল্লাহর উত্তরঃ "সূর্য ডুবার সাথে সাথে যে লোকটি তোমার পূর্বস্থান দিয়ে চলে যাবে সেই হইলো সবচেয়ে নেকী"
    :
    মুসা (আঃ) সূর্য ডুবার বেশ আগের থেকে বসে রইলেন যেই সূর্য ডুবছিলো দেখলেন সে সকালের ঐ ব্যাক্তি-ই ছোট ছেলেকে কোলে করে ফিরে যাচ্ছে। মুসা (আঃ) হতভম্ব হয়ে আল্লাহকে জিজ্ঞাসা করলেনঃ "প্রভু একই ব্যক্তি মহা পাপি আবার মহা নেকী" .
    :
    আল্লাহ বললেনঃ "হে- মুসা! সকালে যখন এই ব্যাক্তি ছেলেকে সাথে নিয়ে তোমাকে অতিক্রম করে জঙ্গলে প্রবেশ করলো, তখন কোলের ছেলেটি বাবাকে প্রশ্ন করে ছিলো, বাবা! এই জঙ্গল কতবড়?
    বাবা উত্তরে বলেছিলো,অনেক বড়। ছেলে আবার প্রশ্ন করলো, বাবা! জঙ্গল থেকে কি বড় কোনো কিছু আছে?
    তখন বাবা বলেছিলো, হ্যাঁ বাবা! ঐ পাহাড়গুলো জঙ্গল থেকে বড়। ছেলে পুনরায় প্রশ্ন করলো,পাহাড় থেকে কি বড় কিছু আছে?
    বাবা বললো, আছে, এই আকাশ। ছেলে আবার প্রশ্ন করলো, আকাশ থেকে কি বড় কিছু আছে?
    সেই ব্যক্তি বললো, হ্যাঁ, আমার পাপ এই আকাশ থেকেও বড়। ছেলে বাবার এ উত্তর শোনে বললো, বাবা! তোমার পাপ থেকে বড় কি কোনো কিছু নেই?
    তখন বাবাটি চিৎকার দিয়ে ছেলেটিকে জড়িয়ে ধরে কাঁদতে কাঁদতে বললো আমার পাপ থেকেও অনেক অনেক বড় আমাদের আল্লাহর রহমত।
    :
    হে-মুসা! এই ব্যক্তির পাপের অনুভূতি ও অনুশোচনা আমার এতোই পছন্দ হয়েছে যে সবচেয়ে পাপি ব্যক্তিকে সবচেয়ে' নেকী ব্যক্তি বানিয়ে দিয়েছি। মনে রেখো আমার শাস্তির হাত থেকে ক্ষমার হাত বহুগুন বড়।
    :
    হে আল্লাহ আপনি আমাদের সকলকে পিছনের গুনাহসমূহ ক্ষমা করে সামনের দিনগুলোকে সত্যপথে চলার তাওফিক দান করুন"
    আমিন।
    "হযরত মুসা (আঃ) একদিন আল্লাহর কাছে জিজ্ঞাসা করলেনঃ "হে প্রভু! আমার অনুসারীদের মধ্যে কে সবচেয়ে বড় পাপি?" : আল্লাহর উত্তরঃ "যে ব্যক্তি সর্বপ্রথম এই পথ অতিক্রম করবে, সে ব্যক্তি-ই হলো তোমার অনুসারীদের মধ্যে বড় পাপি" : আল্লাহর কথানুযায়ী হযরত মুসা (আঃ) বসে দেখছেন, কিছুক্ষণ পর দেখলেন এক ব্যাক্তি ছোট একটি ছেলেকে কোলে করে পথ অতিক্রম করছে। মুসা (আঃ) বুঝে ফেললেন এই সেই বড় পাপি : মুসা (আঃ) আল্লাহ কে বললেনঃ "প্রভু, এখন আমাকে সবচেয়ে নেকী মানুষটিকে দেখান।" : আল্লাহর উত্তরঃ "সূর্য ডুবার সাথে সাথে যে লোকটি তোমার পূর্বস্থান দিয়ে চলে যাবে সেই হইলো সবচেয়ে নেকী" : মুসা (আঃ) সূর্য ডুবার বেশ আগের থেকে বসে রইলেন যেই সূর্য ডুবছিলো দেখলেন সে সকালের ঐ ব্যাক্তি-ই ছোট ছেলেকে কোলে করে ফিরে যাচ্ছে। মুসা (আঃ) হতভম্ব হয়ে আল্লাহকে জিজ্ঞাসা করলেনঃ "প্রভু একই ব্যক্তি মহা পাপি আবার মহা নেকী" . : আল্লাহ বললেনঃ "হে- মুসা! সকালে যখন এই ব্যাক্তি ছেলেকে সাথে নিয়ে তোমাকে অতিক্রম করে জঙ্গলে প্রবেশ করলো, তখন কোলের ছেলেটি বাবাকে প্রশ্ন করে ছিলো, বাবা! এই জঙ্গল কতবড়? বাবা উত্তরে বলেছিলো,অনেক বড়। ছেলে আবার প্রশ্ন করলো, বাবা! জঙ্গল থেকে কি বড় কোনো কিছু আছে? তখন বাবা বলেছিলো, হ্যাঁ বাবা! ঐ পাহাড়গুলো জঙ্গল থেকে বড়। ছেলে পুনরায় প্রশ্ন করলো,পাহাড় থেকে কি বড় কিছু আছে? বাবা বললো, আছে, এই আকাশ। ছেলে আবার প্রশ্ন করলো, আকাশ থেকে কি বড় কিছু আছে? সেই ব্যক্তি বললো, হ্যাঁ, আমার পাপ এই আকাশ থেকেও বড়। ছেলে বাবার এ উত্তর শোনে বললো, বাবা! তোমার পাপ থেকে বড় কি কোনো কিছু নেই? তখন বাবাটি চিৎকার দিয়ে ছেলেটিকে জড়িয়ে ধরে কাঁদতে কাঁদতে বললো আমার পাপ থেকেও অনেক অনেক বড় আমাদের আল্লাহর রহমত। : হে-মুসা! এই ব্যক্তির পাপের অনুভূতি ও অনুশোচনা আমার এতোই পছন্দ হয়েছে যে সবচেয়ে পাপি ব্যক্তিকে সবচেয়ে' নেকী ব্যক্তি বানিয়ে দিয়েছি। মনে রেখো আমার শাস্তির হাত থেকে ক্ষমার হাত বহুগুন বড়। : হে আল্লাহ আপনি আমাদের সকলকে পিছনের গুনাহসমূহ ক্ষমা করে সামনের দিনগুলোকে সত্যপথে চলার তাওফিক দান করুন" আমিন।
    5
    0 Comments 0 Shares
  • 📖 পৃথিবীর সবকিছু তিনি তোমাদের জন্য সৃষ্টি করেছেন।

    📚👉 সুরা বাক্বারা, আয়াত ২৯
    📖 পৃথিবীর সবকিছু তিনি তোমাদের জন্য সৃষ্টি করেছেন। 📚👉 সুরা বাক্বারা, আয়াত ২৯
    3
    0 Comments 0 Shares
  • দুআ ইবাদতের মূল, আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনের মাধ্যম

    দুআ করি নিজের জন্য ও অপর ভাইয়ের জন্য

    রামাদান মাস প্রায় শেষের দিকে চলে এসেছে। আমরা কি আমাদের পরিকল্পনা অনুযায়ী আমল করতে পেরেছি? আমরা কি আমাদের গুনাহগুলো থেকে ক্ষমাপ্রাপ্ত হতে পেরেছি? আমরা কি আমাদের দুনিয়া ও আখিরাতের সমুদয় কল্যান অর্জনে নিয়মিত দুআ করছি? দুআগুলো কি শুধু মুখস্থ মুখে আউড়ে যাচ্ছি নাকি মন থেকেও চাচ্ছি?

    দুআ কবুল হওয়ার বিষয়ে একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে নিজের জন্য যেই দুআ করছি তা অপর ভাইয়ের জন্যও করা। তাহলে আল্লাহ সে দুআ কবুল করেন। তাই নিজের জন্য ক্ষমাপ্রার্থনা, পড়াশোনা, চাকুরি ইত্যাদির জন্য দুআ করার পাশাপাশি অপর ভাইয়ের জন্যও দুআ করব। তাহলে সে দুআ কবুল হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। আমার ভাল রেজাল্টের জন্য যখন দুআ করব, তখন আমার সাথের ভাইদের জন্যও দুআ করব। আমার প্রমোশনের জন্য দুআ করার পাশাপাশি, আমার প্রতিযোগি ভাইয়ের প্রমোশনের জন্যেও দুআ করব। আমার দোকানের ব্যবসায়ের উন্নতির দুআ করার পাশাপাশি, আমার পাশের দোকানের উন্নতির জন্যও দুআ করব। তাহলে আমাদের দুআ যেমন কবুল হবে, নিজেদের মনে অপর ভাইয়ের প্রতি বিদ্বেষ ও হিংসাও দূর হবে। তাই দুআ করার সময় প্রথমে নিজের জন্য এরপর অন্যান্যদের জন্য দুআ করব। আল্লাহর দয়া ও রহমতের ভান্ডার অফুরন্ত। আমার পাশের ভাইটির উন্নতি হলে আমার ক্ষতিই হবে বিষয়টি এমন নয়। আল্লাহ উভয়কেই ভাল অবস্থানে রাখতে পারেন।

    রমাদানের বেশি বেশি তওবা ও ইস্তিগফার করা উচিত। আমাদের গুনাহগুলো থেকে আল্লাহ যেন আমাদেরকে মুক্ত করেন। আল্লাহ না করুন যদি আমরা রামাদান পেয়েও গুনাহ থেকে নিজেদেরকে মুক্ত করতে না পেরে থাকি। তাহলে জিবরাইল (আঃ) যে অভিশম্পাত করেছিলেন আর নবীজি (সা) তা কবুল হওয়ার জন্য "আমীন" বলেছিলেন। তা আমাদের উপর পতিত হতে পারে।

    মালেক বিন হাসান বিন মালেক বিন হুয়াইরিষ তাঁর পিতা থেকে বর্ণিতঃ তিনি (হাসান) তাঁর (মালেকের) পিতামহ (মালেক বিন হুয়াইরিষ) হতে বর্ণনা করে বলেনঃ
    একদা আল্লাহর রসূল (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়াসাল্লাম) মিম্বারে চড়েন। প্রথম ধাপে চড়েই বললেন, “আমীন।” অতঃপর দ্বিতীয় ধাপে চড়ে বললেন, “আমীন” অনুরূপ তৃতীয় ধাপেও চড়ে বললেন, “আ-মীন।”
    অতঃপর তিনি (এর রহস্য ব্যক্ত করে) বললেন, “আমার নিকট জিবরীল উপস্থিত হয়ে বললেন, ‘হে মুহাম্মাদ! যে ব্যক্তি রমযান পেল অথচ পাপমুক্ত হতে পারল না আল্লাহ তাকে দূর করেন।’ তখন আমি (প্রথম) ‘আ-মীন’ বললাম। তিনি আবার বললেন, ‘যে ব্যক্তি তার পিতা-মাতাকে অথবা তাদের একজনকে জীবিতাবস্থায় পেল অথচ তাকে দোযখে যেতে হবে, আল্লাহ তাকেও দূর করুন।’ এতে আমি (দ্বিতীয়) ‘আ-মীন’ বললাম। অতঃপর তিনি বললেন, ‘যার নিকট আপনার (নাম) উল্লেখ করা হয় অথচ সে আপনার উপর দরূদ পাঠ করে না, আল্লাহ তাকেও দূর করুন।’ এতে আমি (তৃতীয়) ‘আমীন’ বললাম।”
    (ইবনে হিব্বান ৯০৭, সহীহ তারগীব ৯৯৬ http://ihadis.com/books/hadis-somvar/hadis/1028)

    তাই আসুন, রমাদানের বাকি যে কয়েকটি দিন রয়েছে তাতে, আল্লাহর কাছে অনুতপ্ত হই। নিজেদের ইচ্ছাকৃত-অনিচ্ছাকৃত গুনাহের জন্য তওবা করি। এমন মনে করার কোনো কারণ নাই যে, আমি অনেক গুনাহগার! আমার কথা কি আল্লাহ শুনবেন? অথবা আমি অনেক গুনাহ করেছি আমি নিজে নিজে মাফ চাইলে কি আল্লাহ মাফ করবেন?

    আবূ হুরাইরাহ্‌ (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ রসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেছেনঃ
    যে সত্তার হাতে আমার জীবন, আমি তাঁর কসম করে বলছি। তোমরা যদি পাপ না করতে তবে অবশ্যই আল্লাহ তোমাদের নিশ্চিহ্ন করে এমন সম্প্রদায় বানাতেন যারা পাপ করে ক্ষমা চাইতো এবং তিনি তাদের মাফ করে দিতেন।
    (মুসলিম ৬৮৫৮ http://ihadis.com/books/muslim/hadis/6858)

    আনাস (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ নবী (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেছেনঃ
    মানুষ মাত্রই গুনাহগার (অপরাধী)। আর গুনাহগারদের মধ্যে তাওবাহকারীরাই উত্তম।
    (তিরমিযি ২৪৯৯ http://ihadis.com/books/tirmidi/hadis/2499)

    অনেকে মনে করেন "আমি তো দুআ করতে জানি না, আল্লাহর কাছে মাফ চাইতে পারি না!"। কেউ মনে করতে পারেনঃ আমাকে কি কোনো পীর সাহেব বা হুজুরের মাধ্যমে আল্লাহর কাছে ক্ষমা চাইতে হবে? ব্যাপারটা মোটেই সে রকম নয়! আমরা যতই গুনাহ করি না কেন, অনুতপ্ত হয়ে তওবা করলে আল্লাহ তা ক্ষমা করবেন। দুআ করার জন্য আল্লাহ ও বান্দার মধ্যে কোনো মাধ্যম জরুরি নয়। পীর সাহেব বা কোনো আল্লাহর ওলি আমাদের পক্ষ থেকে আল্লাহর কাছে ক্ষমা চাইলে আল্লাহ ক্ষমা করবেন, নচেৎ করবেন না - বিষয়টা এমন নয়। তওবা করার পদ্ধতি হচ্ছে নিজেদের কৃত গুনাহের জন্য অনুতপ্ত হওয়া, ভবিষ্যতে এই গুনাহ আর করব না এই প্রতিজ্ঞা করা এবং আল্লাহর কাছে অতীতের গুনাহ থেকে মাফ চাওয়া। এগুলো বাংলা, ইংরেজি, আরবি যে ভাষাতেই করি না যেন আল্লাহ তা শুনবেন। যে লোক কথা বলতে পারে না আল্লাহ তার মনের কথাও শুনবেন। দুআ করার জন্য তাই কোনো মধ্যস্থতাকারী জরুরি নয়। তবে আমরা অপর ভাইয়ের কাছ থেকে বা আল্লাহর প্রিয় বান্দাদের থেকে বা আলেমদের কাছে দুআ চাইতে পারি। এটা সুন্নাহ সম্মত।

    আল্লাহ তায়ালা বলেনঃ
    "আমার বান্দারা যখন তোমাকে আমার ব্যাপারে জিজ্ঞেস করে (তাদেরকে বলে দাও) অবশ্যই আমি তো সবসময় কাছেই আছি। আমাকে যে ডাকে, আমি তার ডাকেই সাড়া দেই, যখনি সে ডাকে। তাহলে তারাও যেন আমার ডাকে সাড়া দিতে চেষ্টা করে, আমার উপর বিশ্বাস রাখে, যেন তারা সঠিক পথে চলতে পারে।" [সূরা আল-বাক্বারাহ ১৮৬]

    গুনাহ থেকে তওবা ইস্তিগফার করা ও বেশি বেশি দুআ করার জন্য লাইলাতুল ক্বদর একটি শ্রেষ্ঠতম রাত্রি। রামাদানের শেষ দশকের যে কোনো রাতে লাইলাতুল ক্বদর হতে পারে। হাদীসের অপর বর্ণনায় রয়েছে শেষ দশকের বিজোড় রাতের কথা। তাই আমাদের উচিত শেষ দশটি রাতের প্রত্যেক রাতেই বিশেষ কিছু আমল করা। কোনো ভাবেই যেন লাইলাতুল ক্বদর থেকে আমরা বঞ্চিত না হই।

    আনাস বিন মালিক (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ রমজান মাস শুরু হলে রসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বললেনঃ
    তোমাদের নিকট এ মাস সমুপস্থিত। এতে রয়েছে এমন এক রাত, যা হাজার মাস অপেক্ষা উত্তম। এ থেকে যে ব্যক্তি বঞ্চিত হলো সে সমস্ত কল্যাণ থেকেই বঞ্চিত হলো। কেবল বঞ্চিত ব্যক্তিরাই তা থেকে বঞ্চিত হয়।
    (ইবনু মাজাহ ১৬৪৪ http://ihadis.com/books/ibn-majah/hadis/1644)

    তাই আসুন, রামাদানের শেষ ১০ রাতে বেশি বেশি দুআ-ইস্তিগফার করি, সালাত আদায় করি, কুরআন পড়ি এবং প্রতি রাতেই সাধ্য মত সাদাকা করি।

    শুধু গুনাহ থেকে মুক্তি আর আখিরাতের জন্যই নয়। বরং আমরা দুনিয়ার কল্যানও আল্লাহর কাছে চাইবো। যখন আল্লাহর কাছে চাইবো তখন দুআ কবুল হবে বা আল্লাহ আমাদের জন্য সেই বিষয়টি কল্যানকর হলে সেটি অবশ্যই দিবেন এমন দৃঢ় মনোভাব নিয়ে চাইবো।

    আবূ হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ নবী (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেছেনঃ
    তোমাদের কেউ এভাবে দু’আ করো নাঃ "হে আল্লাহ্! তুমি চাইলে আমাকে ক্ষমা করে দাও। তুমি চাইলে আমার প্রতি রহম কর। তুমি চাইলে আমাকে রিযক দাও"। বরং দু’আ প্রার্থী খুবই দৃঢ়তার সঙ্গে দু’আ করবে। কেননা তিনি যা চান তাই করেন। তাকে বাধ্য করার কেউ নেই।
    (বুখারী ৭৪৭৭ http://ihadis.com/books/bukhari/hadis/7477)

    আবূ হুরাইরাহ্ (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেছেনঃ
    আল্লাহ তা‘আলার কাছে যে লোক চায় না, আল্লাহ তা‘আলা তার উপর নাখোশ হন।
    (ইবনু মাজাহ ৩৮২৭ http://ihadis.com/books/ibn-majah/hadis/3827)

    তাই আসুন আমরা আল্লাহর কাছে গুনাহ মাফের জন্য দুআ করি। আমাদের সকলের দুনিয়া ও আখিরাতের কল্যানের জন্য দুআ করি। আল্লাহ আমাদের সকলের ভাল দুআগুলোকে কবুল করে নিন। আমীন।

    Copied from Muslims Day Android App
    Download Link: https://play.google.com/store/apps/details?id=theoaktroop.appoframadan
    দুআ ইবাদতের মূল, আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনের মাধ্যম দুআ করি নিজের জন্য ও অপর ভাইয়ের জন্য রামাদান মাস প্রায় শেষের দিকে চলে এসেছে। আমরা কি আমাদের পরিকল্পনা অনুযায়ী আমল করতে পেরেছি? আমরা কি আমাদের গুনাহগুলো থেকে ক্ষমাপ্রাপ্ত হতে পেরেছি? আমরা কি আমাদের দুনিয়া ও আখিরাতের সমুদয় কল্যান অর্জনে নিয়মিত দুআ করছি? দুআগুলো কি শুধু মুখস্থ মুখে আউড়ে যাচ্ছি নাকি মন থেকেও চাচ্ছি? দুআ কবুল হওয়ার বিষয়ে একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে নিজের জন্য যেই দুআ করছি তা অপর ভাইয়ের জন্যও করা। তাহলে আল্লাহ সে দুআ কবুল করেন। তাই নিজের জন্য ক্ষমাপ্রার্থনা, পড়াশোনা, চাকুরি ইত্যাদির জন্য দুআ করার পাশাপাশি অপর ভাইয়ের জন্যও দুআ করব। তাহলে সে দুআ কবুল হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। আমার ভাল রেজাল্টের জন্য যখন দুআ করব, তখন আমার সাথের ভাইদের জন্যও দুআ করব। আমার প্রমোশনের জন্য দুআ করার পাশাপাশি, আমার প্রতিযোগি ভাইয়ের প্রমোশনের জন্যেও দুআ করব। আমার দোকানের ব্যবসায়ের উন্নতির দুআ করার পাশাপাশি, আমার পাশের দোকানের উন্নতির জন্যও দুআ করব। তাহলে আমাদের দুআ যেমন কবুল হবে, নিজেদের মনে অপর ভাইয়ের প্রতি বিদ্বেষ ও হিংসাও দূর হবে। তাই দুআ করার সময় প্রথমে নিজের জন্য এরপর অন্যান্যদের জন্য দুআ করব। আল্লাহর দয়া ও রহমতের ভান্ডার অফুরন্ত। আমার পাশের ভাইটির উন্নতি হলে আমার ক্ষতিই হবে বিষয়টি এমন নয়। আল্লাহ উভয়কেই ভাল অবস্থানে রাখতে পারেন। রমাদানের বেশি বেশি তওবা ও ইস্তিগফার করা উচিত। আমাদের গুনাহগুলো থেকে আল্লাহ যেন আমাদেরকে মুক্ত করেন। আল্লাহ না করুন যদি আমরা রামাদান পেয়েও গুনাহ থেকে নিজেদেরকে মুক্ত করতে না পেরে থাকি। তাহলে জিবরাইল (আঃ) যে অভিশম্পাত করেছিলেন আর নবীজি (সা) তা কবুল হওয়ার জন্য "আমীন" বলেছিলেন। তা আমাদের উপর পতিত হতে পারে। মালেক বিন হাসান বিন মালেক বিন হুয়াইরিষ তাঁর পিতা থেকে বর্ণিতঃ তিনি (হাসান) তাঁর (মালেকের) পিতামহ (মালেক বিন হুয়াইরিষ) হতে বর্ণনা করে বলেনঃ একদা আল্লাহর রসূল (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়াসাল্লাম) মিম্বারে চড়েন। প্রথম ধাপে চড়েই বললেন, “আমীন।” অতঃপর দ্বিতীয় ধাপে চড়ে বললেন, “আমীন” অনুরূপ তৃতীয় ধাপেও চড়ে বললেন, “আ-মীন।” অতঃপর তিনি (এর রহস্য ব্যক্ত করে) বললেন, “আমার নিকট জিবরীল উপস্থিত হয়ে বললেন, ‘হে মুহাম্মাদ! যে ব্যক্তি রমযান পেল অথচ পাপমুক্ত হতে পারল না আল্লাহ তাকে দূর করেন।’ তখন আমি (প্রথম) ‘আ-মীন’ বললাম। তিনি আবার বললেন, ‘যে ব্যক্তি তার পিতা-মাতাকে অথবা তাদের একজনকে জীবিতাবস্থায় পেল অথচ তাকে দোযখে যেতে হবে, আল্লাহ তাকেও দূর করুন।’ এতে আমি (দ্বিতীয়) ‘আ-মীন’ বললাম। অতঃপর তিনি বললেন, ‘যার নিকট আপনার (নাম) উল্লেখ করা হয় অথচ সে আপনার উপর দরূদ পাঠ করে না, আল্লাহ তাকেও দূর করুন।’ এতে আমি (তৃতীয়) ‘আমীন’ বললাম।” (ইবনে হিব্বান ৯০৭, সহীহ তারগীব ৯৯৬ http://ihadis.com/books/hadis-somvar/hadis/1028) তাই আসুন, রমাদানের বাকি যে কয়েকটি দিন রয়েছে তাতে, আল্লাহর কাছে অনুতপ্ত হই। নিজেদের ইচ্ছাকৃত-অনিচ্ছাকৃত গুনাহের জন্য তওবা করি। এমন মনে করার কোনো কারণ নাই যে, আমি অনেক গুনাহগার! আমার কথা কি আল্লাহ শুনবেন? অথবা আমি অনেক গুনাহ করেছি আমি নিজে নিজে মাফ চাইলে কি আল্লাহ মাফ করবেন? আবূ হুরাইরাহ্‌ (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ রসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেছেনঃ যে সত্তার হাতে আমার জীবন, আমি তাঁর কসম করে বলছি। তোমরা যদি পাপ না করতে তবে অবশ্যই আল্লাহ তোমাদের নিশ্চিহ্ন করে এমন সম্প্রদায় বানাতেন যারা পাপ করে ক্ষমা চাইতো এবং তিনি তাদের মাফ করে দিতেন। (মুসলিম ৬৮৫৮ http://ihadis.com/books/muslim/hadis/6858) আনাস (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ নবী (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেছেনঃ মানুষ মাত্রই গুনাহগার (অপরাধী)। আর গুনাহগারদের মধ্যে তাওবাহকারীরাই উত্তম। (তিরমিযি ২৪৯৯ http://ihadis.com/books/tirmidi/hadis/2499) অনেকে মনে করেন "আমি তো দুআ করতে জানি না, আল্লাহর কাছে মাফ চাইতে পারি না!"। কেউ মনে করতে পারেনঃ আমাকে কি কোনো পীর সাহেব বা হুজুরের মাধ্যমে আল্লাহর কাছে ক্ষমা চাইতে হবে? ব্যাপারটা মোটেই সে রকম নয়! আমরা যতই গুনাহ করি না কেন, অনুতপ্ত হয়ে তওবা করলে আল্লাহ তা ক্ষমা করবেন। দুআ করার জন্য আল্লাহ ও বান্দার মধ্যে কোনো মাধ্যম জরুরি নয়। পীর সাহেব বা কোনো আল্লাহর ওলি আমাদের পক্ষ থেকে আল্লাহর কাছে ক্ষমা চাইলে আল্লাহ ক্ষমা করবেন, নচেৎ করবেন না - বিষয়টা এমন নয়। তওবা করার পদ্ধতি হচ্ছে নিজেদের কৃত গুনাহের জন্য অনুতপ্ত হওয়া, ভবিষ্যতে এই গুনাহ আর করব না এই প্রতিজ্ঞা করা এবং আল্লাহর কাছে অতীতের গুনাহ থেকে মাফ চাওয়া। এগুলো বাংলা, ইংরেজি, আরবি যে ভাষাতেই করি না যেন আল্লাহ তা শুনবেন। যে লোক কথা বলতে পারে না আল্লাহ তার মনের কথাও শুনবেন। দুআ করার জন্য তাই কোনো মধ্যস্থতাকারী জরুরি নয়। তবে আমরা অপর ভাইয়ের কাছ থেকে বা আল্লাহর প্রিয় বান্দাদের থেকে বা আলেমদের কাছে দুআ চাইতে পারি। এটা সুন্নাহ সম্মত। আল্লাহ তায়ালা বলেনঃ "আমার বান্দারা যখন তোমাকে আমার ব্যাপারে জিজ্ঞেস করে (তাদেরকে বলে দাও) অবশ্যই আমি তো সবসময় কাছেই আছি। আমাকে যে ডাকে, আমি তার ডাকেই সাড়া দেই, যখনি সে ডাকে। তাহলে তারাও যেন আমার ডাকে সাড়া দিতে চেষ্টা করে, আমার উপর বিশ্বাস রাখে, যেন তারা সঠিক পথে চলতে পারে।" [সূরা আল-বাক্বারাহ ১৮৬] গুনাহ থেকে তওবা ইস্তিগফার করা ও বেশি বেশি দুআ করার জন্য লাইলাতুল ক্বদর একটি শ্রেষ্ঠতম রাত্রি। রামাদানের শেষ দশকের যে কোনো রাতে লাইলাতুল ক্বদর হতে পারে। হাদীসের অপর বর্ণনায় রয়েছে শেষ দশকের বিজোড় রাতের কথা। তাই আমাদের উচিত শেষ দশটি রাতের প্রত্যেক রাতেই বিশেষ কিছু আমল করা। কোনো ভাবেই যেন লাইলাতুল ক্বদর থেকে আমরা বঞ্চিত না হই। আনাস বিন মালিক (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ রমজান মাস শুরু হলে রসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বললেনঃ তোমাদের নিকট এ মাস সমুপস্থিত। এতে রয়েছে এমন এক রাত, যা হাজার মাস অপেক্ষা উত্তম। এ থেকে যে ব্যক্তি বঞ্চিত হলো সে সমস্ত কল্যাণ থেকেই বঞ্চিত হলো। কেবল বঞ্চিত ব্যক্তিরাই তা থেকে বঞ্চিত হয়। (ইবনু মাজাহ ১৬৪৪ http://ihadis.com/books/ibn-majah/hadis/1644) তাই আসুন, রামাদানের শেষ ১০ রাতে বেশি বেশি দুআ-ইস্তিগফার করি, সালাত আদায় করি, কুরআন পড়ি এবং প্রতি রাতেই সাধ্য মত সাদাকা করি। শুধু গুনাহ থেকে মুক্তি আর আখিরাতের জন্যই নয়। বরং আমরা দুনিয়ার কল্যানও আল্লাহর কাছে চাইবো। যখন আল্লাহর কাছে চাইবো তখন দুআ কবুল হবে বা আল্লাহ আমাদের জন্য সেই বিষয়টি কল্যানকর হলে সেটি অবশ্যই দিবেন এমন দৃঢ় মনোভাব নিয়ে চাইবো। আবূ হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ নবী (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেছেনঃ তোমাদের কেউ এভাবে দু’আ করো নাঃ "হে আল্লাহ্! তুমি চাইলে আমাকে ক্ষমা করে দাও। তুমি চাইলে আমার প্রতি রহম কর। তুমি চাইলে আমাকে রিযক দাও"। বরং দু’আ প্রার্থী খুবই দৃঢ়তার সঙ্গে দু’আ করবে। কেননা তিনি যা চান তাই করেন। তাকে বাধ্য করার কেউ নেই। (বুখারী ৭৪৭৭ http://ihadis.com/books/bukhari/hadis/7477) আবূ হুরাইরাহ্ (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেছেনঃ আল্লাহ তা‘আলার কাছে যে লোক চায় না, আল্লাহ তা‘আলা তার উপর নাখোশ হন। (ইবনু মাজাহ ৩৮২৭ http://ihadis.com/books/ibn-majah/hadis/3827) তাই আসুন আমরা আল্লাহর কাছে গুনাহ মাফের জন্য দুআ করি। আমাদের সকলের দুনিয়া ও আখিরাতের কল্যানের জন্য দুআ করি। আল্লাহ আমাদের সকলের ভাল দুআগুলোকে কবুল করে নিন। আমীন। Copied from Muslims Day Android App Download Link: https://play.google.com/store/apps/details?id=theoaktroop.appoframadan
    1
    0 Comments 0 Shares
  • 1
    0 Comments 0 Shares
  • #Flowers
    #Flowers
    0 Comments 0 Shares
  • "আল্লাহর পক্ষ থেকে সাহায্য এবং আসন্ন বিজয়। মুমিনদেরকে এর সু-সংবাদ দান করুন।"

    _____সূরাঃ আস সাফ আয়াতঃ ১৩
    #Al_Quran
    "আল্লাহর পক্ষ থেকে সাহায্য এবং আসন্ন বিজয়। মুমিনদেরকে এর সু-সংবাদ দান করুন।" _____সূরাঃ আস সাফ আয়াতঃ ১৩ #Al_Quran
    1
    0 Comments 0 Shares
  • নিশ্চয় মানুষ তার রবের প্রতি বড়ই অকৃতজ্ঞ।
    [সূরা আল-আদিয়াতঃ ৬]
    #Al_Quran
    নিশ্চয় মানুষ তার রবের প্রতি বড়ই অকৃতজ্ঞ। [সূরা আল-আদিয়াতঃ ৬] #Al_Quran
    4
    0 Comments 0 Shares
  • মানুষ বলেঃ আমার মৃত্যু হলে পর আমি কি জীবিত অবস্থায় পুনরুত্থিত হব? মানুষ কি স্মরণ করে না যে, আমি তাকে ইতি পূর্বে সৃষ্টি করেছি এবং সে তখন কিছুই ছিল না।

    সূরা মারইয়াম:৬৬-৬৭
    #Al_Quran
    মানুষ বলেঃ আমার মৃত্যু হলে পর আমি কি জীবিত অবস্থায় পুনরুত্থিত হব? মানুষ কি স্মরণ করে না যে, আমি তাকে ইতি পূর্বে সৃষ্টি করেছি এবং সে তখন কিছুই ছিল না। সূরা মারইয়াম:৬৬-৬৭ #Al_Quran
    0 Comments 0 Shares
  • “লাইলাতুল-কদরের রাত্রিতে পৃথিবীতে ফেরেশতারা এত বেশী অবতরণ করে যে, তাদের সংখ্যা পাথরকুচির চেয়েও বেশী।”
    [মুসনাদে আহমাদ: ২/৫১৯]
    #Al_Hadith
    “লাইলাতুল-কদরের রাত্রিতে পৃথিবীতে ফেরেশতারা এত বেশী অবতরণ করে যে, তাদের সংখ্যা পাথরকুচির চেয়েও বেশী।” [মুসনাদে আহমাদ: ২/৫১৯] #Al_Hadith
    3
    0 Comments 0 Shares
  • Night View of Makkah 😍🖤
    Night View of Makkah 😍🖤
    1
    0 Comments 0 Shares
  • আরেক খাত্তাব (!)🥀

    আমীর খাত্তাব সম্পর্কে কী বলা যায়! যত বলা যায় ততই যেন কম।

    (১) জন্মের আগে মা স্বপ্ন দেখলেন বিস্তির্ণ এলাকাজুড়ে পানি আর পানি। সেই পানির চারপাশজুড়ে লোক জড়ো হয়ে আছে। যারা আকাশের দিকে তাকিয়ে নতুন চাঁদের জন্য অপেক্ষা করছেন। মায়ের ধারণা হলো, নতুন চাঁদের জন্য অপেক্ষমাণ লোকগুলির চেহারা ককেশাস অঞ্চল থেকে হজ্বে আসা মানুষদের মতো।

    (২) জন্মেছিলেন সৌদী আরবে। মূল নাম ছিলো সামীর। কিন্ত হযরত ওমর (রা.) এর খুব ভক্ত ছিলেন। তাকে নিয়ে পড়তেন খুব। কাকতালীয়ভাবে যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পড়তেন তার নামও ছিলো ওমর ইবনুল খাত্তাব।

    (২) শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ছুটি হলেই বাবা তাদের ভাই-বোনদের শহরের কোলাহল থেকে দূরে নিয়ে যেতেন। পাহাড়ি অঞ্চলে নিয়ে যেতেন। সেখানে তাদেরকে জীবনের বিভিন্ন দিক নিয়ে দীক্ষা দিতেন।

    (৩) ইচ্ছা ছিলো আমেরিকায় গিয়ে ডাক্তার হবেন, কিন্তু হঠাৎ করেই সব বাদ দিয়ে চলে গেলেন আফগানিস্তানে। আফগানিস্তানে তখন রাশিয়ান দখলদারিত্ব চলে নিপীড়ন নির্যাতনে জর্জরিত মুসলিম জনগণ। খাত্তাবের পক্ষে আর ঘরে থাকা সম্ভব নাই। প্রচন্ড মেধাবী আর তীক্ষ্ণ বুদ্ধির মানুষ হওয়াতে খুব দ্রুত সবার নজর কাড়েন। হয়ে ওঠেন কমান্ডার। যুদ্ধে হাতের আঙুল হারান। মারাত্মক জখম হন। যুদ্ধের একপর্যায়ে আফগানিস্তান থেকে রাশিয়া পরাজিত হয়ে চলে যায়। কিন্তু খাত্তাবের মিশন শেষ হয় না। তিনি আফগানিস্তান থেকে তাজিকিস্তান চলে আসেন। সেখানকার মুসলমানদের রাশিয়ার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ করলেন, ট্রেইনিং দিলেন। তাজিকিস্তান থেকেও রাশিয়ান ফোর্স বিদায় নিলো।

    (৪) এবার তার মায়ের স্বপ্ন পূরণ হবার পালা। খাত্তাব লক্ষ করলেন, আফগানিস্তান নিপীড়িত হলেও সবাই জানে, তাই কিছু হলেও সাহায্য সে পায়। কিন্তু নিপীড়িত অথচ মানুষ অতটা জানে না-এরকম এলাকা হচ্ছে ককেশাস অঞ্চলের দেশ চেচনিয়া।

    (৫) চেচনিয়া গিয়ে এক বৃদ্ধার সাথে তার দেখা হলো। বৃদ্ধা জানালেন তারা যুদ্ধ করতে চান। খাত্তাব জিজ্ঞাসা করলেন, যুদ্ধ করার মতো কি আছে তাদের কাছে। বৃদ্ধা বললেন, কিছুই নেই। সব হারিয়ে তার গায়ে একটা কোট আছে। তবে এটাও তিনি দিয়ে দেবেন স্বাধীনতার স্বার্থে। এবার চেচনিয়াতে তিনি সংগঠন তৈরী করলেন। অংশগ্রহণ করলেন প্রথম ও দ্বিতীয় চেচেন স্বাধীনতা যুদ্ধে।

    (৬) পরিবার সূত্রে জানা যায়, খাত্তাব প্রতিবার কোনো যুদ্ধে যাওয়ার আগে মায়ের সাথে একবার কথা বলার চেষ্টা করতেন। চিঠির আদান প্রদানও চলতো। একবার মায়ের কাছ থেকে একটা চিঠি আসলো। চিঠিটা খুলতেই রাসায়নিক বিষক্রিয়া শুরু হয়ে গেলো। কয়েক ঘন্টা পরে মারা গেলেন খাত্তাব। চিঠি আদান প্রদানের দায়িত্বে ছিলেন খাত্তাবের খুব কাছের লোক। এই লোকটা ছিলো মুসলিম কিন্তু রাশিয়ান এজেন্ট।

    (৭) অনেকগুলি ভাষা জানতেন। হায়ার সেকেন্ডারি পরীক্ষায় গড়ে ৯৪ নম্বর পেয়েছিলেন। চেচনিয়া যুদ্ধের স্মৃতি নিয়ে তার একটা দিনলিপিও পাওয়া যায়।

    ভাবতে অবাক লাগে এত বড় একটা মানুষ আমাদের শতাব্দীতেও ছিলেন। আমাদের সাথেই পৃথিবীর মাটিতে হেঁটেছিলেন।

    তার ছোট ভাই মানসুর এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, খাত্তাব ১৪ বছর ধরে শহীদ হওয়ার আশায় ছিলেন। আফগানিস্তানে গেলেন, যুদ্ধ করলেন, কিন্তু শহীদ হতে পারলেন না, তাজিকিস্তানে যুদ্ধ করলেন, তাও শহীদ হলেন না। অবশেষে চেচনিয়াতে আল্লাহ্ তাকে কবুল করলেন।

    আমার কাছে খুব আশ্চর্যজনক লাগে, প্রথমে নিজের দেশ ছেড়ে দিলেন। জিহাদে জড়ালেন। কোনো এক ভূখণ্ডে নিজেকে আবদ্ধ করলেন না। একদেশ ছেড়ে আরেকদেশ, তারপর আরেকদেশ। তারপর শাহাদাত। যেন থামতেই জানতেন না। কী আশ্চর্য ঈমান! কী আশ্চর্য জীবন! শাহাদাত বরণ করেছেন ২০০২ সালে। এইত কিছুদিন আগে। অথচ তার ঈমানী জযবা দেখলে সাহাবীদের কথা মনে পড়ে যায়।

    আমির খাত্তাব বলতেন, “মুসলিম সমাজের এই দুর্দশার পেছনে তরুণরাই দায়ি। এরা আসল কাজ বাদ দিয়ে মিছে-মিছি তর্কে ব্যস্ত থাকে। অথচ বেদুঈন সাহাবীরা (রা.), যাদের পায়ে ঠিকমত জুতাও থাকতো না, তারা আল্লাহ্’র দেয়া বিজয়ের স্বাদ আস্বাদন করতেন।”
    আরেক খাত্তাব (!)🥀 আমীর খাত্তাব সম্পর্কে কী বলা যায়! যত বলা যায় ততই যেন কম। (১) জন্মের আগে মা স্বপ্ন দেখলেন বিস্তির্ণ এলাকাজুড়ে পানি আর পানি। সেই পানির চারপাশজুড়ে লোক জড়ো হয়ে আছে। যারা আকাশের দিকে তাকিয়ে নতুন চাঁদের জন্য অপেক্ষা করছেন। মায়ের ধারণা হলো, নতুন চাঁদের জন্য অপেক্ষমাণ লোকগুলির চেহারা ককেশাস অঞ্চল থেকে হজ্বে আসা মানুষদের মতো। (২) জন্মেছিলেন সৌদী আরবে। মূল নাম ছিলো সামীর। কিন্ত হযরত ওমর (রা.) এর খুব ভক্ত ছিলেন। তাকে নিয়ে পড়তেন খুব। কাকতালীয়ভাবে যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পড়তেন তার নামও ছিলো ওমর ইবনুল খাত্তাব। (২) শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ছুটি হলেই বাবা তাদের ভাই-বোনদের শহরের কোলাহল থেকে দূরে নিয়ে যেতেন। পাহাড়ি অঞ্চলে নিয়ে যেতেন। সেখানে তাদেরকে জীবনের বিভিন্ন দিক নিয়ে দীক্ষা দিতেন। (৩) ইচ্ছা ছিলো আমেরিকায় গিয়ে ডাক্তার হবেন, কিন্তু হঠাৎ করেই সব বাদ দিয়ে চলে গেলেন আফগানিস্তানে। আফগানিস্তানে তখন রাশিয়ান দখলদারিত্ব চলে নিপীড়ন নির্যাতনে জর্জরিত মুসলিম জনগণ। খাত্তাবের পক্ষে আর ঘরে থাকা সম্ভব নাই। প্রচন্ড মেধাবী আর তীক্ষ্ণ বুদ্ধির মানুষ হওয়াতে খুব দ্রুত সবার নজর কাড়েন। হয়ে ওঠেন কমান্ডার। যুদ্ধে হাতের আঙুল হারান। মারাত্মক জখম হন। যুদ্ধের একপর্যায়ে আফগানিস্তান থেকে রাশিয়া পরাজিত হয়ে চলে যায়। কিন্তু খাত্তাবের মিশন শেষ হয় না। তিনি আফগানিস্তান থেকে তাজিকিস্তান চলে আসেন। সেখানকার মুসলমানদের রাশিয়ার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ করলেন, ট্রেইনিং দিলেন। তাজিকিস্তান থেকেও রাশিয়ান ফোর্স বিদায় নিলো। (৪) এবার তার মায়ের স্বপ্ন পূরণ হবার পালা। খাত্তাব লক্ষ করলেন, আফগানিস্তান নিপীড়িত হলেও সবাই জানে, তাই কিছু হলেও সাহায্য সে পায়। কিন্তু নিপীড়িত অথচ মানুষ অতটা জানে না-এরকম এলাকা হচ্ছে ককেশাস অঞ্চলের দেশ চেচনিয়া। (৫) চেচনিয়া গিয়ে এক বৃদ্ধার সাথে তার দেখা হলো। বৃদ্ধা জানালেন তারা যুদ্ধ করতে চান। খাত্তাব জিজ্ঞাসা করলেন, যুদ্ধ করার মতো কি আছে তাদের কাছে। বৃদ্ধা বললেন, কিছুই নেই। সব হারিয়ে তার গায়ে একটা কোট আছে। তবে এটাও তিনি দিয়ে দেবেন স্বাধীনতার স্বার্থে। এবার চেচনিয়াতে তিনি সংগঠন তৈরী করলেন। অংশগ্রহণ করলেন প্রথম ও দ্বিতীয় চেচেন স্বাধীনতা যুদ্ধে। (৬) পরিবার সূত্রে জানা যায়, খাত্তাব প্রতিবার কোনো যুদ্ধে যাওয়ার আগে মায়ের সাথে একবার কথা বলার চেষ্টা করতেন। চিঠির আদান প্রদানও চলতো। একবার মায়ের কাছ থেকে একটা চিঠি আসলো। চিঠিটা খুলতেই রাসায়নিক বিষক্রিয়া শুরু হয়ে গেলো। কয়েক ঘন্টা পরে মারা গেলেন খাত্তাব। চিঠি আদান প্রদানের দায়িত্বে ছিলেন খাত্তাবের খুব কাছের লোক। এই লোকটা ছিলো মুসলিম কিন্তু রাশিয়ান এজেন্ট। (৭) অনেকগুলি ভাষা জানতেন। হায়ার সেকেন্ডারি পরীক্ষায় গড়ে ৯৪ নম্বর পেয়েছিলেন। চেচনিয়া যুদ্ধের স্মৃতি নিয়ে তার একটা দিনলিপিও পাওয়া যায়। ভাবতে অবাক লাগে এত বড় একটা মানুষ আমাদের শতাব্দীতেও ছিলেন। আমাদের সাথেই পৃথিবীর মাটিতে হেঁটেছিলেন। তার ছোট ভাই মানসুর এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, খাত্তাব ১৪ বছর ধরে শহীদ হওয়ার আশায় ছিলেন। আফগানিস্তানে গেলেন, যুদ্ধ করলেন, কিন্তু শহীদ হতে পারলেন না, তাজিকিস্তানে যুদ্ধ করলেন, তাও শহীদ হলেন না। অবশেষে চেচনিয়াতে আল্লাহ্ তাকে কবুল করলেন। আমার কাছে খুব আশ্চর্যজনক লাগে, প্রথমে নিজের দেশ ছেড়ে দিলেন। জিহাদে জড়ালেন। কোনো এক ভূখণ্ডে নিজেকে আবদ্ধ করলেন না। একদেশ ছেড়ে আরেকদেশ, তারপর আরেকদেশ। তারপর শাহাদাত। যেন থামতেই জানতেন না। কী আশ্চর্য ঈমান! কী আশ্চর্য জীবন! শাহাদাত বরণ করেছেন ২০০২ সালে। এইত কিছুদিন আগে। অথচ তার ঈমানী জযবা দেখলে সাহাবীদের কথা মনে পড়ে যায়। আমির খাত্তাব বলতেন, “মুসলিম সমাজের এই দুর্দশার পেছনে তরুণরাই দায়ি। এরা আসল কাজ বাদ দিয়ে মিছে-মিছি তর্কে ব্যস্ত থাকে। অথচ বেদুঈন সাহাবীরা (রা.), যাদের পায়ে ঠিকমত জুতাও থাকতো না, তারা আল্লাহ্’র দেয়া বিজয়ের স্বাদ আস্বাদন করতেন।”
    4
    0 Comments 0 Shares
  • [২১০] লাইলাতুল ক্বদরের দোআ

    اللَّهُمَّ إِنَّكَ عَفُوٌّ تُحِبُّ الْعَفْوَ فَاعْفُ عَنِّي

    হে আল্লাহ! তুমি ক্ষমাকারী, তুমি মাফ করতেই পছন্দ কর, অতএব তুমি আমাকে মাফ করে দাও

    আল্লাহুম্মা ইন্নাকা 'আফুউন, তু'হিব্বুল 'আফওয়া, ফা'ফু 'আন্নী

    সুনান ইবনে মাজাহ, বই ৩৪ , হাদিস ২৪
    [২১০] লাইলাতুল ক্বদরের দোআ اللَّهُمَّ إِنَّكَ عَفُوٌّ تُحِبُّ الْعَفْوَ فَاعْفُ عَنِّي হে আল্লাহ! তুমি ক্ষমাকারী, তুমি মাফ করতেই পছন্দ কর, অতএব তুমি আমাকে মাফ করে দাও আল্লাহুম্মা ইন্নাকা 'আফুউন, তু'হিব্বুল 'আফওয়া, ফা'ফু 'আন্নী সুনান ইবনে মাজাহ, বই ৩৪ , হাদিস ২৪
    1
    0 Comments 0 Shares
  • #Flowers
    #Flowers
    0 Comments 0 Shares
  • আল্লাহ বলেন সালাত কায়েম কর,নিশ্চয়
    সালাত অশ্লীল ও গর্হিত কাজ থেকে বিরত রাখে !
    [সূরা আনকাবূত আয়াত নং-৪৫]
    #Al_Quran
    আল্লাহ বলেন সালাত কায়েম কর,নিশ্চয় সালাত অশ্লীল ও গর্হিত কাজ থেকে বিরত রাখে ! [সূরা আনকাবূত আয়াত নং-৪৫] #Al_Quran
    0 Comments 0 Shares
  • যদি তোমরা রাসুলের অনুসরণ করো তবেই তোমরা সৎপথের সন্ধান পাবে !

    [ সূরা আন নুর: ৫৪ ]
    #Al_Quran
    যদি তোমরা রাসুলের অনুসরণ করো তবেই তোমরা সৎপথের সন্ধান পাবে ! [ সূরা আন নুর: ৫৪ ] #Al_Quran
    0 Comments 0 Shares
  • 'রমজান এমন মাস যাতে কুরআন নাযিল হয়েছে’

    ---(বাকারা : ১৮৫)
    #Al_Quran
    'রমজান এমন মাস যাতে কুরআন নাযিল হয়েছে’ ---(বাকারা : ১৮৫) #Al_Quran
    3
    0 Comments 0 Shares
  • আজ ৫ই-মে!

    ৫ই-মে ২০১৩ সালে'
    নামে মুসলিম বাস্তবে তাগুতের অনুসারী স্বৈরশাসক হাসিনার হুকুমে শাপলা চত্বরে (শহীদ চত্বরে) বর্বর নবী প্রেমিক হত্যাকন্ডে
    নিহত সকল শহীদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি।

    আল্লাহ সুবহানাহু তাআলা যেন তাদেরকে জন্নাত দান করে
    🤲
    আজ ৫ই-মে! ৫ই-মে ২০১৩ সালে' নামে মুসলিম বাস্তবে তাগুতের অনুসারী স্বৈরশাসক হাসিনার হুকুমে শাপলা চত্বরে (শহীদ চত্বরে) বর্বর নবী প্রেমিক হত্যাকন্ডে নিহত সকল শহীদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি। আল্লাহ সুবহানাহু তাআলা যেন তাদেরকে জন্নাত দান করে 🤲
    2
    0 Comments 0 Shares
  • রাসুলুল্লাহ সাঃ বলেছেন

    আল্লাহর রহমত ছাড়া
    কেউ জান্নাতে প্রবেশ
    করতে পারবেনা।❣️❣️❣️

    #মেশকাত:২৩৭২
    রাসুলুল্লাহ সাঃ বলেছেন আল্লাহর রহমত ছাড়া কেউ জান্নাতে প্রবেশ করতে পারবেনা।❣️❣️❣️ #মেশকাত:২৩৭২
    1
    0 Comments 0 Shares
  • পৃথিবীর সবকিছু তিনি তোমাদের জন্য সৃষ্টি করেছেন।

    সুরা বাক্বারা, আয়াত ২৯!
    #Al_Quran
    পৃথিবীর সবকিছু তিনি তোমাদের জন্য সৃষ্টি করেছেন। সুরা বাক্বারা, আয়াত ২৯! #Al_Quran
    3
    0 Comments 0 Shares
  • Islamic Architecture - Iraq
    #MashaAllah
    Islamic Architecture - Iraq #MashaAllah
    1
    0 Comments 0 Shares
  • Palestinian elderly woman Rehab al-Horoub, 60, who was shot and seriously injured by Israeli soldiers near Bethlehem this morning, has succumbed to her wounds. RIP.
    #Palestine #muslim #uammh
    Palestinian elderly woman Rehab al-Horoub, 60, who was shot and seriously injured by Israeli soldiers near Bethlehem this morning, has succumbed to her wounds. RIP. #Palestine #muslim #uammh
    0 Comments 0 Shares
  • হেবিওয়েট ডিভোর্স ও ভিন্ন ভাবনা!
    .
    দুনিয়াজোড়া যশ খ্যাতি আর পয়সা ওয়ালা দম্পতি বিল গেটস ও মেলিন্ডার সাম্প্রতিক বিবাহ বিচ্ছেদের খবর নেটিজেনদের প্রায় সবার জানা।
    .
    এ খবর বাহির হবার পর নানান ধরনের মতামত, বিশেষজ্ঞ বিশ্লেষণ, কারণ অনুসন্ধান চোখে পরার মত।
    দুটি বিশ্লেষণ এগুলোর মাঝে খুব লাইক পাচ্ছে-
    এক. শুধু টাকা পয়সা থাকলেই সুখী হওয়া যায়না।
    দুই. ধর্মীয় আচার আর অনুশাসন না থাকলে এরকমই হবে, এটাই বাস্তবতা!
    .
    এদুটি মুল থিমের আগে পিছে নানান জ্ঞানী জ্ঞানী কথামালা যুক্তকরে আরও চমৎকার বিশ্লেষণ অনেকেই করেছেন এবং অনেকেই ইসলামিক বিশ্লেষণও দিয়েছেন।
    .
    কিন্তু আমি এই বিবাহ, বিচ্ছেদ, সংসার, সুখের বিশ্লেষণে যারা ইসলাম মানা- না মানার ব্যাখ্যাতেই আটকে যাচ্ছেন তাদেরকে বলব- আপনি কি জানেন দুনিয়ার শ্রেষ্ঠ মানুষ সাহাবায়ে কিরামের মাঝেও ডিভোর্স হয়েছে? আবু বকর রাদিআল্লাহু আনহুর মেয়ের ডিভোর্স হয়েছে? রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহিস স্বয়ং তালাকের আগে শালিস করেছেন, তবুও ডিভোর্স হয়েছে! একবার ভাবুন সাহাবাগনের চেয়ে ভালো ধার্মিক কেউ হতে পারবে আর! বিচ্ছেদ তাঁদেরও হয়েছে!
    .
    প্রিয় ভাই ও বোনেরা! আমাদের বিবাহ, বন্ধন, ভালোবাসা, সুখ, পছন্দসই জুটি হওয়াটা আল্লাহর এক অসীম দয়া! এটা তাকদীরও বটে!
    .
    তাই বলছি মূল ফোকাসটা আল্লাহর 'দয়ার' উপর রাখুন। সম্পর্ক টিকে থাকাটা, বন্ধন জোড়া লাগাটা, মহান রবের অনুগ্রহ বিশ্বাস করুন। আর সাথে সাথে সম্পর্ক নষ্টের যাবতীয় চিপাগলির গলাটিপে ধরে আল্লাহর কাছে এ বন্ধন অটুট রাখার অনবরত অবিরাম দুয়া ও দয়া ভিক্ষা করুন।
    .
    আর একটি চরম সত্যকথা জেনে রাখুন- দুনিয়াতে আল্লাহ বিশ্বাসী ধার্মিক মানুষদের মাঝে 'বিবাহ বন্ধন' অটুট থাকে বেশী, ডিভোর্সের হার কম, ভালোবাসায় ভরা সংসারের হারও অনেক বেশী।
    .
    আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তায়ালার আপনাকে দেয়া সেরা দয়া- 'বিবাহ বন্ধন'। তাই বলছি আপনার
    "ভালোবাসার মানুষের যত্ন নিন"।
    হেবিওয়েট ডিভোর্স ও ভিন্ন ভাবনা! . দুনিয়াজোড়া যশ খ্যাতি আর পয়সা ওয়ালা দম্পতি বিল গেটস ও মেলিন্ডার সাম্প্রতিক বিবাহ বিচ্ছেদের খবর নেটিজেনদের প্রায় সবার জানা। . এ খবর বাহির হবার পর নানান ধরনের মতামত, বিশেষজ্ঞ বিশ্লেষণ, কারণ অনুসন্ধান চোখে পরার মত। দুটি বিশ্লেষণ এগুলোর মাঝে খুব লাইক পাচ্ছে- এক. শুধু টাকা পয়সা থাকলেই সুখী হওয়া যায়না। দুই. ধর্মীয় আচার আর অনুশাসন না থাকলে এরকমই হবে, এটাই বাস্তবতা! . এদুটি মুল থিমের আগে পিছে নানান জ্ঞানী জ্ঞানী কথামালা যুক্তকরে আরও চমৎকার বিশ্লেষণ অনেকেই করেছেন এবং অনেকেই ইসলামিক বিশ্লেষণও দিয়েছেন। . কিন্তু আমি এই বিবাহ, বিচ্ছেদ, সংসার, সুখের বিশ্লেষণে যারা ইসলাম মানা- না মানার ব্যাখ্যাতেই আটকে যাচ্ছেন তাদেরকে বলব- আপনি কি জানেন দুনিয়ার শ্রেষ্ঠ মানুষ সাহাবায়ে কিরামের মাঝেও ডিভোর্স হয়েছে? আবু বকর রাদিআল্লাহু আনহুর মেয়ের ডিভোর্স হয়েছে? রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহিস স্বয়ং তালাকের আগে শালিস করেছেন, তবুও ডিভোর্স হয়েছে! একবার ভাবুন সাহাবাগনের চেয়ে ভালো ধার্মিক কেউ হতে পারবে আর! বিচ্ছেদ তাঁদেরও হয়েছে! . প্রিয় ভাই ও বোনেরা! আমাদের বিবাহ, বন্ধন, ভালোবাসা, সুখ, পছন্দসই জুটি হওয়াটা আল্লাহর এক অসীম দয়া! এটা তাকদীরও বটে! . তাই বলছি মূল ফোকাসটা আল্লাহর 'দয়ার' উপর রাখুন। সম্পর্ক টিকে থাকাটা, বন্ধন জোড়া লাগাটা, মহান রবের অনুগ্রহ বিশ্বাস করুন। আর সাথে সাথে সম্পর্ক নষ্টের যাবতীয় চিপাগলির গলাটিপে ধরে আল্লাহর কাছে এ বন্ধন অটুট রাখার অনবরত অবিরাম দুয়া ও দয়া ভিক্ষা করুন। . আর একটি চরম সত্যকথা জেনে রাখুন- দুনিয়াতে আল্লাহ বিশ্বাসী ধার্মিক মানুষদের মাঝে 'বিবাহ বন্ধন' অটুট থাকে বেশী, ডিভোর্সের হার কম, ভালোবাসায় ভরা সংসারের হারও অনেক বেশী। . আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তায়ালার আপনাকে দেয়া সেরা দয়া- 'বিবাহ বন্ধন'। তাই বলছি আপনার "ভালোবাসার মানুষের যত্ন নিন"।
    1
    0 Comments 0 Shares
  • https://newsvisionbd.com/ডিমলার-নয়ন-ইসলাম-বাঁচতে-চ/
    https://newsvisionbd.com/ডিমলার-নয়ন-ইসলাম-বাঁচতে-চ/
    1
    0 Comments 0 Shares
  • বাগদত্তা স্ত্রী অপেক্ষা করল ১৮ বছর! অবিশ্বাস্য হলেও এটাই সত্য। নাটক-সিনেমা বা রূপকথায় নয়, বাস্তবে। ইসমাইল নামক যুবকের সাথে বিয়ের কথা চূড়ান্ত হয় ইকরামা নামের যুবতীর৷ বিধিবাম। বিয়ের আগেই যুবক জেলে যায় ফিলিস্তিনি বীরযোদ্ধা হিসেবে।

    শুরু হয় অপেক্ষার পালা। আরবিতে প্রবাদ আছে, "আল ইনতিজারু আশাদ্দু মিনাল কাতল--অপেক্ষা করা মৃত্যুর চেয়ে কষ্টকর"

    যুবতী অপেক্ষা করতে করতে মধ্যবয়েসী নারী হয়ে যায়। সেসময়ে দুজনের মিলন হলে হয়তো আজকে তাদের মেয়ের বিয়ে দিতে পারত!

    প্রতিটা দিন, প্রতিটি রাত কেটেছে তার স্মরণে। পরিবারের লোকজন, বান্ধবী, আত্মীয়স্বজন সবাই বলেছে আরও ভালো পাত্র পাওয়া গেছে, বিয়ে দিয়ে দিচ্ছি। আর কত এভাবে?!

    কিন্তু মেয়েটির ভালোবাসার গভীরতা ও বিশ্বাসের প্রগাঢ়তা ছিল হিমালয়ের থেকে উঁচু। সবর ও ধৈর্যের সব পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে গেলেন। দীর্ঘ ১৮ বছর পর স্বামীকে ফুল দিয়ে বরণ করে নিচ্ছেন। ইসমাইলের দাড়িগুলোও সাদা হয়ে গেছে! ইসরাইলের কারাগার থেকে মুক্তি পাওয়া ইসমাইল আবু আইশাহ এবং তার বাগদত্তা ইকরামা আইশাহ'র গল্গ যেন সিনেমার গল্পকেও হার মানায়।
    বাগদত্তা স্ত্রী অপেক্ষা করল ১৮ বছর! অবিশ্বাস্য হলেও এটাই সত্য। নাটক-সিনেমা বা রূপকথায় নয়, বাস্তবে। ইসমাইল নামক যুবকের সাথে বিয়ের কথা চূড়ান্ত হয় ইকরামা নামের যুবতীর৷ বিধিবাম। বিয়ের আগেই যুবক জেলে যায় ফিলিস্তিনি বীরযোদ্ধা হিসেবে। শুরু হয় অপেক্ষার পালা। আরবিতে প্রবাদ আছে, "আল ইনতিজারু আশাদ্দু মিনাল কাতল--অপেক্ষা করা মৃত্যুর চেয়ে কষ্টকর" যুবতী অপেক্ষা করতে করতে মধ্যবয়েসী নারী হয়ে যায়। সেসময়ে দুজনের মিলন হলে হয়তো আজকে তাদের মেয়ের বিয়ে দিতে পারত! প্রতিটা দিন, প্রতিটি রাত কেটেছে তার স্মরণে। পরিবারের লোকজন, বান্ধবী, আত্মীয়স্বজন সবাই বলেছে আরও ভালো পাত্র পাওয়া গেছে, বিয়ে দিয়ে দিচ্ছি। আর কত এভাবে?! কিন্তু মেয়েটির ভালোবাসার গভীরতা ও বিশ্বাসের প্রগাঢ়তা ছিল হিমালয়ের থেকে উঁচু। সবর ও ধৈর্যের সব পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে গেলেন। দীর্ঘ ১৮ বছর পর স্বামীকে ফুল দিয়ে বরণ করে নিচ্ছেন। ইসমাইলের দাড়িগুলোও সাদা হয়ে গেছে! ইসরাইলের কারাগার থেকে মুক্তি পাওয়া ইসমাইল আবু আইশাহ এবং তার বাগদত্তা ইকরামা আইশাহ'র গল্গ যেন সিনেমার গল্পকেও হার মানায়।
    5
    0 Comments 0 Shares
  • কদরের রাতটি খুঁজতে হাজার হাজার লোক দখলকৃত পূর্ব জেরুজালেমের আল আকসা মসজিদ প্রাঙ্গনে তাদের রাতের নামাজ পড়ে।
    কদরের রাতটি খুঁজতে হাজার হাজার লোক দখলকৃত পূর্ব জেরুজালেমের আল আকসা মসজিদ প্রাঙ্গনে তাদের রাতের নামাজ পড়ে।
    4
    0 Comments 0 Shares
  • আল্লাহতায়ালার অশেষ কৃপায় রমজানের রহমত ও মাগফিরাতের দশক অতিবাহিত করে প্রবেশ করেছি নাজাতের দশকে। (الحمد لله)
    আল্লাহতায়ালার অশেষ কৃপায় রমজানের রহমত ও মাগফিরাতের দশক অতিবাহিত করে প্রবেশ করেছি নাজাতের দশকে। (الحمد لله)
    4
    0 Comments 0 Shares
  • রাসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেছেন, কোন রোযাদার ব্যক্তিকে যে লোক ইফতার করায় সে লোকের জন্যও রোযা পালনকারীর সমপরিমাণ সওয়াব রয়েছে। কিন্তু এর ফলে রোযা পালনকারীর সওয়াব থেকে বিন্দুমাত্র কমানো হবে না। (سبحان الله)
    রাসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেছেন, কোন রোযাদার ব্যক্তিকে যে লোক ইফতার করায় সে লোকের জন্যও রোযা পালনকারীর সমপরিমাণ সওয়াব রয়েছে। কিন্তু এর ফলে রোযা পালনকারীর সওয়াব থেকে বিন্দুমাত্র কমানো হবে না। (سبحان الله)
    3
    0 Comments 0 Shares
  • Leaf X CBD Oil (Reviews)—Price, Ingredients & Benefits! Does LeafX CBD Tincture Works?
    What is Leaf X CBD?
    Prosperity Leaf X CBD is cannabidiol-based condition that may have the alternative to assist individuals with beating pressure, fomentation, strain, and such. The formula comes in shading structures, which infers that customers ought to just to add the fundamental proportion of drops of the condition into a reward and to eat up. The people who use this condition may finally wind up in a prevalent and more settled condition reliably, which prompts ideal prosperity and prosperity.
    Read More:-
    https://www.facebook.com/Leaf-X-CBD-110307714547554
    https://www.nananke.com/cadet/general/leaf-x-cbd-oil-reviews-price-ingredients-benefits-does-leafx-cbd-tincture-works
    https://justdial09.medium.com/leaf-x-cbd-oil-reviews-best-result-price-ingredients-benefits-a1cb592861da
    https://k12.instructure.com/eportfolios/34142/Home/Leaf_X_CBD
    https://kit.co/onlinehealth4you/leaf-x-cbd/leaf-x-cbd-oil-revi
    https://www.bonfire.com/leaf-x-cbd-oil-live-an-active-amp-fuller-life/
    https://twitter.com/onlinehealth4y1/status/1389609563096195073
    https://www.linkedin.com/posts/online-health4you-b710a8209_health-wellness-healthcare-activity-6795375515734736897-80nr
    https://www.spreaker.com/show/leaf-x-cbd-oil-reviews-100-satisfacti
    https://www.openeyetap.com/forum-1/share-your-experience/leaf-x-cbd-oil-reviews-price-ingredients-benefits-does-leafx-cbd-tincture-works
    https://tocal.instructure.com/eportfolios/17617/Home/Leaf_X_CBD
    https://canvas.redejuntos.org.br/eportfolios/14944/Pgina_inicial/Leaf_X_CBD
    https://isd709.instructure.com/eportfolios/13112/Home/Leaf_X_CBD
    https://tlcampus.instructure.com/eportfolios/22003/Home/Leaf_X_CBD
    Leaf X CBD Oil (Reviews)—Price, Ingredients & Benefits! Does LeafX CBD Tincture Works? What is Leaf X CBD? Prosperity Leaf X CBD is cannabidiol-based condition that may have the alternative to assist individuals with beating pressure, fomentation, strain, and such. The formula comes in shading structures, which infers that customers ought to just to add the fundamental proportion of drops of the condition into a reward and to eat up. The people who use this condition may finally wind up in a prevalent and more settled condition reliably, which prompts ideal prosperity and prosperity. Read More:- https://www.facebook.com/Leaf-X-CBD-110307714547554 https://www.nananke.com/cadet/general/leaf-x-cbd-oil-reviews-price-ingredients-benefits-does-leafx-cbd-tincture-works https://justdial09.medium.com/leaf-x-cbd-oil-reviews-best-result-price-ingredients-benefits-a1cb592861da https://k12.instructure.com/eportfolios/34142/Home/Leaf_X_CBD https://kit.co/onlinehealth4you/leaf-x-cbd/leaf-x-cbd-oil-revi https://www.bonfire.com/leaf-x-cbd-oil-live-an-active-amp-fuller-life/ https://twitter.com/onlinehealth4y1/status/1389609563096195073 https://www.linkedin.com/posts/online-health4you-b710a8209_health-wellness-healthcare-activity-6795375515734736897-80nr https://www.spreaker.com/show/leaf-x-cbd-oil-reviews-100-satisfacti https://www.openeyetap.com/forum-1/share-your-experience/leaf-x-cbd-oil-reviews-price-ingredients-benefits-does-leafx-cbd-tincture-works https://tocal.instructure.com/eportfolios/17617/Home/Leaf_X_CBD https://canvas.redejuntos.org.br/eportfolios/14944/Pgina_inicial/Leaf_X_CBD https://isd709.instructure.com/eportfolios/13112/Home/Leaf_X_CBD https://tlcampus.instructure.com/eportfolios/22003/Home/Leaf_X_CBD
    WWW.FACEBOOK.COM
    Leaf X CBD
    Leaf X CBD. 1 Personen sprechen darüber. Leaf X CBD
    0 Comments 0 Shares
  • Saudi Arabia #MashaAllah
    Saudi Arabia #MashaAllah
    3
    0 Comments 0 Shares
  • নবি পাক সাঃ বলেনঃ যার মাওলা আলীও তার মাওলা। সুনানে তিরমিজি ৩৭১৩। সেই অনুযায়ী মাওলা আলী আঃ বললে তারা কেন শিয়া বলে...? কেমন আহলে বায়াত আঃ বিদ্বেষী হলে এই হাদিসটি জাল বলে...? তাও একজন সাধারণ পাবলিক..? আল্লাহ তায়ালা এসব খারেজী থেকে সবাইকে হিফাজত করুক।আমিন।
    নবি পাক সাঃ বলেনঃ যার মাওলা আলীও তার মাওলা। সুনানে তিরমিজি ৩৭১৩। সেই অনুযায়ী মাওলা আলী আঃ বললে তারা কেন শিয়া বলে...? কেমন আহলে বায়াত আঃ বিদ্বেষী হলে এই হাদিসটি জাল বলে...? তাও একজন সাধারণ পাবলিক..? আল্লাহ তায়ালা এসব খারেজী থেকে সবাইকে হিফাজত করুক।আমিন।
    4
    0 Comments 0 Shares
  • কোন হাঁচি দাতা
    ’আলহামদুলিল্লা্হ’ বলতে শুনলে
    তুমি বলতে
    ’ইয়ারহামুকাল্লাহ’
    (বুখারীঃ ৬২২৪)
    কোন হাঁচি দাতা ’আলহামদুলিল্লা্হ’ বলতে শুনলে তুমি বলতে ’ইয়ারহামুকাল্লাহ’ (বুখারীঃ ৬২২৪)
    3
    0 Comments 0 Shares
  • চোখ থেকে ঘুম সরানোর জন্য কি করা যেতে পারে??
    পরামর্শ থাকলে দিয়ে যাবেন ভুলবেন না জানাতে!!!
    5
    0 Comments 0 Shares
  • চোখ থেকে ঘুম সরানোর জন্য কি করা যেতে পারে??
    পরামর্শ থাকলে দিয়ে যাবেন ভুলবেন না জানাতে!!!
    চোখ থেকে ঘুম সরানোর জন্য কি করা যেতে পারে?? পরামর্শ থাকলে দিয়ে যাবেন ভুলবেন না জানাতে!!!
    3
    2 Comments 1 Shares
  • https://aladdin.social/video/v/qBXCKx
    https://aladdin.social/video/v/qBXCKx
    ALADDIN.SOCIAL
    কারবালা_কাহিনী_পর্ব_০১-০৫__কারবালা_ইতিহাস
    ⁣পরূবতী পরর্ব গুলা দেখতে SUBSCRIBE করে পাশে থাকুন
    3
    0 Comments 0 Shares
  • Vanan Translation is an Online Certified Translation agency located in Columbia, USA that provides translation services all over the United States and other countries. By following the principles of USCIS certified translation; we only employ native speakers to work on your projects. We provide Certified Translation services in 100+ languages anywhere in the #USA. Our translators are adept in offering technical translations in multiple fields like Legal, Medical, Business, Finance, Marketing, Advertising, Life Sciences and more. We assure you in providing the best document translation that guarantees high quality and quick turnaround time. https://vanantranslation.com/
    Vanan Translation is an Online Certified Translation agency located in Columbia, USA that provides translation services all over the United States and other countries. By following the principles of USCIS certified translation; we only employ native speakers to work on your projects. We provide Certified Translation services in 100+ languages anywhere in the #USA. Our translators are adept in offering technical translations in multiple fields like Legal, Medical, Business, Finance, Marketing, Advertising, Life Sciences and more. We assure you in providing the best document translation that guarantees high quality and quick turnaround time. https://vanantranslation.com/
    VANANTRANSLATION.COM
    Vanan Translation : Professional Translation | Language Translation Services
    Vanan Translation services the world leading organization with accurate and high quality the all type of professional translation services in highly professional manner accomplished by native translators.
    0 Comments 0 Shares
  • 1
    0 Comments 0 Shares
  • 1
    0 Comments 0 Shares
  • 6
    0 Comments 0 Shares
  • স্বামী-স্ত্রীসহ ৮ জন জামায়াত শিবিরের ৮ নেতাকর্মী আটক

    স্টাফ রিপোর্টার:

    সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় জিহাদি বইসহ জামায়াত-শিবিরের ৮ নেতাকর্মীকে আটক করেছে উল্লাপাড়া পুলিশ। গতকাল সোমবার ইফতারের পূর্ব মূহুর্তে পৌর এলাকার ঝিকিড়া থেকে তাদেরকে আটক করা হয়। তারা উল্লাপাড়া উপজেলা জামায়াত-শিবিরের বিভিন্ন পদে দায়িত্বরত ছিলেন।

    আটককৃতরা হলেন পৌরসভার ঝিকিড়া মহল্লার হাজী আবুল হোসেন সরকারের ছেলে মো. সাইফুল ইসলাম (৪৫), তার স্ত্রী এলিজা পারভীন (৩০), পশ্চিমপাড়া গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে মো. শায়েক মাহমুদ (২৭), রামকান্তপুর গ্রামের আব্দুল গফুরের ছেলে হাফিজুল ইসলাম (৩০), বেতকান্দি গ্রামের মাজেদ আলী ফকিরের ছেলে শাহিন দুলাল (৪৬), কয়ড়া কৃষ্ণপুর গ্রামের গাজীউল রহমানের ছেলে রায়হান আলী (৪২), সলঙ্গা থানার পুস্তিগাছা গ্রামের মৃত আবু তাহেরর ছেলে আফসার আলী (৪৭) ও শাহজাদপুর থানার মৃত রইচ উদ্দিনের ছেলে রিয়াজ উদ্দিন (৩৭)।

    উল্লাপাড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দিপক কুমার দাস বলেন, নাশকতা সৃষ্টির জন্য জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা গোপন বৈঠক করছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে ওই এলাকায় পুলিশ অভিযান চালায়। এসময় বেশ কয়েকটি জিহাদি বইসহ জামায়াত-শিবিরের ৮ নেতাকর্মীকে আটক করা হয়েছে।
    স্বামী-স্ত্রীসহ ৮ জন জামায়াত শিবিরের ৮ নেতাকর্মী আটক স্টাফ রিপোর্টার: সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় জিহাদি বইসহ জামায়াত-শিবিরের ৮ নেতাকর্মীকে আটক করেছে উল্লাপাড়া পুলিশ। গতকাল সোমবার ইফতারের পূর্ব মূহুর্তে পৌর এলাকার ঝিকিড়া থেকে তাদেরকে আটক করা হয়। তারা উল্লাপাড়া উপজেলা জামায়াত-শিবিরের বিভিন্ন পদে দায়িত্বরত ছিলেন। আটককৃতরা হলেন পৌরসভার ঝিকিড়া মহল্লার হাজী আবুল হোসেন সরকারের ছেলে মো. সাইফুল ইসলাম (৪৫), তার স্ত্রী এলিজা পারভীন (৩০), পশ্চিমপাড়া গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে মো. শায়েক মাহমুদ (২৭), রামকান্তপুর গ্রামের আব্দুল গফুরের ছেলে হাফিজুল ইসলাম (৩০), বেতকান্দি গ্রামের মাজেদ আলী ফকিরের ছেলে শাহিন দুলাল (৪৬), কয়ড়া কৃষ্ণপুর গ্রামের গাজীউল রহমানের ছেলে রায়হান আলী (৪২), সলঙ্গা থানার পুস্তিগাছা গ্রামের মৃত আবু তাহেরর ছেলে আফসার আলী (৪৭) ও শাহজাদপুর থানার মৃত রইচ উদ্দিনের ছেলে রিয়াজ উদ্দিন (৩৭)। উল্লাপাড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দিপক কুমার দাস বলেন, নাশকতা সৃষ্টির জন্য জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা গোপন বৈঠক করছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে ওই এলাকায় পুলিশ অভিযান চালায়। এসময় বেশ কয়েকটি জিহাদি বইসহ জামায়াত-শিবিরের ৮ নেতাকর্মীকে আটক করা হয়েছে।
    9
    0 Comments 0 Shares
  • জমিনের এমন কোনো প্রানী নেই,
    যার রিজিকের দায়িত্ব আল্লাহ নেননি।

    (সুরা হুদ, আয়াত: ৬)
    জমিনের এমন কোনো প্রানী নেই, যার রিজিকের দায়িত্ব আল্লাহ নেননি। (সুরা হুদ, আয়াত: ৬)
    5
    0 Comments 0 Shares
  • আর কেউ অণু পরিমাণ অসৎকাজ করলে সে তাও দেখবে।
    [সূরা আয-যিলযালঃ ৮]
    #Al_Quran
    আর কেউ অণু পরিমাণ অসৎকাজ করলে সে তাও দেখবে। [সূরা আয-যিলযালঃ ৮] #Al_Quran
    5
    0 Comments 0 Shares
  • #আলজেরিয়ার দুর্নীতির তদন্তে ৮৫০ মিলিয়ন ডলারের সম্পদ বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে

    - আলজেরিয়ান বিচার মন্ত্রী ঘোষণা করেছিল যে প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি আব্দেলাজিজ বোতেফ্লিকার এর সময়কালের দুর্নীতির তদন্তে ৮৫০ মিলিয়ন ডলারের সম্পদ বাজেয়াপ্ত করা হয়েছিল।

    ফ্রান্সের প্রেতাত্মারা দেশটাকে চুষে ফেলেছিল।
    এদের ধরে ধরে ফাঁসি দেওয়া দরকার।

    ©️ Aladdin News bangla
    #আলজেরিয়ার দুর্নীতির তদন্তে ৮৫০ মিলিয়ন ডলারের সম্পদ বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে - আলজেরিয়ান বিচার মন্ত্রী ঘোষণা করেছিল যে প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি আব্দেলাজিজ বোতেফ্লিকার এর সময়কালের দুর্নীতির তদন্তে ৮৫০ মিলিয়ন ডলারের সম্পদ বাজেয়াপ্ত করা হয়েছিল। ফ্রান্সের প্রেতাত্মারা দেশটাকে চুষে ফেলেছিল। এদের ধরে ধরে ফাঁসি দেওয়া দরকার। ©️ Aladdin News bangla
    6
    0 Comments 0 Shares
  • তুরস্কের ত্রাণ ফাউন্ডেশন (IHH) রমজান ত্রাণের অংশ হিসাবে নাইজারের 26,000 হাজারের এরও বেশি লোককে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করে।
    তুরস্কের ত্রাণ ফাউন্ডেশন (IHH) রমজান ত্রাণের অংশ হিসাবে নাইজারের 26,000 হাজারের এরও বেশি লোককে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করে।
    8
    0 Comments 0 Shares
  • #Flowers
    #Flowers
    4
    0 Comments 0 Shares
  • আহ! যদি আমার ও নসিব হতো..
    আহ! যদি আমার ও নসিব হতো..
    5
    0 Comments 0 Shares
  • ব্রেকিং....নিউজ মেক্সিকোর রাজধানী সিটিতে পাতাল রেল ওভারপাস ধসের ফলে কমপক্ষে 23 জনের মৃত্যু হয়েছে, এতে ট্রেনের ওয়াগন রয়েছে।
    মেক্সিকোর রাজধানী মেক্সিকো সিটির অলিভোস মেট্রো স্টেশনে রেলপথের কিছু অংশ ধসে গেছে।
    কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে যে পাসের নীচে রাস্তায় যানবাহনগুলিতে ওয়াগনরা পড়েছিল।
    দুর্ঘটনায় এখনও পর্যন্ত ২৩ জন মারা গেছেন; ৪৯ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল।

    বিপুল সংখ্যক অ্যাম্বুলেন্স ও দমকল কর্মীরা ঘটনাস্থলে প্রেরণ করা হয়েছে।
    ওভারপাসের ধসের কারণটি এখনও প্রকাশ করা হয়নি।
    ব্রেকিং....নিউজ মেক্সিকোর রাজধানী সিটিতে পাতাল রেল ওভারপাস ধসের ফলে কমপক্ষে 23 জনের মৃত্যু হয়েছে, এতে ট্রেনের ওয়াগন রয়েছে। মেক্সিকোর রাজধানী মেক্সিকো সিটির অলিভোস মেট্রো স্টেশনে রেলপথের কিছু অংশ ধসে গেছে। কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে যে পাসের নীচে রাস্তায় যানবাহনগুলিতে ওয়াগনরা পড়েছিল। দুর্ঘটনায় এখনও পর্যন্ত ২৩ জন মারা গেছেন; ৪৯ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। বিপুল সংখ্যক অ্যাম্বুলেন্স ও দমকল কর্মীরা ঘটনাস্থলে প্রেরণ করা হয়েছে। ওভারপাসের ধসের কারণটি এখনও প্রকাশ করা হয়নি।
    5
    0 Comments 0 Shares
  • আত্নীয়ের সাথে ভালো ব্যবহার করলে রিযিক ও হায়াত বৃদ্ধি পায়।

    (সহীহ বুখারীঃ ৫৫৫৯,৫৫৬০)
    #Al_Hadith
    আত্নীয়ের সাথে ভালো ব্যবহার করলে রিযিক ও হায়াত বৃদ্ধি পায়। (সহীহ বুখারীঃ ৫৫৫৯,৫৫৬০) #Al_Hadith
    4
    0 Comments 0 Shares
  • আল্লাহ বলেন সালাত কায়েম কর,নিশ্চয়
    সালাত অশ্লীল ও গর্হিত কাজ থেকে বিরত রাখে !
    [সূরা আনকাবূত আয়াত নং-৪৫]
    #Al_Quran
    আল্লাহ বলেন সালাত কায়েম কর,নিশ্চয় সালাত অশ্লীল ও গর্হিত কাজ থেকে বিরত রাখে ! [সূরা আনকাবূত আয়াত নং-৪৫] #Al_Quran
    2
    0 Comments 0 Shares
  • বগুড়ায় দুর্বৃত্তদের গুলিতে কওমী আলেম নিহত!

    বগুড়ায় মোজাফ্ফর হোসেন (৬০) নামের এক কওমী মাদরাসার মুহতামীমকে গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। তিনি নাটোরের সিংড়া উপজেলার সুকাশ গ্রামের মৃত সায়েদ আলীর ছেলে।

    আজ মঙ্গলবার (৪ মে) সকাল সাড়ে ১০টায় বগুড়া-নাটোর মহাসড়কে শাজাহানপুরের জোড়া কৃষি কলেজের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

    সুকাশ ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের সদস্য মাহবুবর রহমান জানান, মোজাফফর হোসেন পেশায় কবিরাজ। তিনি একটি কওমী মাদরাসার অধ্যক্ষ ছিলেন। তিনি বগুড়া শহরের নিশিন্দারা এলাকায় বসবাস করেন।

    জানা যায়, মোজাফ্ফর হোসেন একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা করে বগুড়া শহরের দিকে আসছিলেন। পথে কৃষি কলেজের সামনে মোটরসাইকেলে করে আসা একদল দুর্বৃত্ত অটোরিকশার গতিরোধ করে।

    এরপর তারা প্রকাশ্যে মোজাফফর হোসেনকে গুলি করে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান। তার বুকের বাম পাশে গুলির চিহ্ন রয়েছে।
    সূত্র: দৈনিক যুগান্তর ও ইনসাফ 24
    বগুড়ায় দুর্বৃত্তদের গুলিতে কওমী আলেম নিহত! বগুড়ায় মোজাফ্ফর হোসেন (৬০) নামের এক কওমী মাদরাসার মুহতামীমকে গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। তিনি নাটোরের সিংড়া উপজেলার সুকাশ গ্রামের মৃত সায়েদ আলীর ছেলে। আজ মঙ্গলবার (৪ মে) সকাল সাড়ে ১০টায় বগুড়া-নাটোর মহাসড়কে শাজাহানপুরের জোড়া কৃষি কলেজের সামনে এ ঘটনা ঘটে। সুকাশ ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের সদস্য মাহবুবর রহমান জানান, মোজাফফর হোসেন পেশায় কবিরাজ। তিনি একটি কওমী মাদরাসার অধ্যক্ষ ছিলেন। তিনি বগুড়া শহরের নিশিন্দারা এলাকায় বসবাস করেন। জানা যায়, মোজাফ্ফর হোসেন একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা করে বগুড়া শহরের দিকে আসছিলেন। পথে কৃষি কলেজের সামনে মোটরসাইকেলে করে আসা একদল দুর্বৃত্ত অটোরিকশার গতিরোধ করে। এরপর তারা প্রকাশ্যে মোজাফফর হোসেনকে গুলি করে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান। তার বুকের বাম পাশে গুলির চিহ্ন রয়েছে। সূত্র: দৈনিক যুগান্তর ও ইনসাফ 24
    7
    0 Comments 0 Shares
  • https://aladdin.social/video/v/kp9AZi
    https://aladdin.social/video/v/kp9AZi
    ALADDIN.SOCIAL
    মহান সেলজুক নিজামে ই আলেম সিজন ১ ভলিয়ম- ৩০ সম্পূর্ন। বাংলা সাবটাইটেল।HD
    ⁣মহান সেলজুক নিজামে ই আলেম সিজন ১ ভলিয়ম- ৩০ সম্পূর্ন। বাংলা সাবটাইটেল।HD
    8
    0 Comments 0 Shares
  • কৃতজ্ঞতায় মনের আভিজাত্য প্রকাশ পায় এবং অভিযোগে দারিদ্র্যতা।

    #আলহামদুলিল্লাহ্, সকল নেয়ামতের জন্য
    কৃতজ্ঞতায় মনের আভিজাত্য প্রকাশ পায় এবং অভিযোগে দারিদ্র্যতা। #আলহামদুলিল্লাহ্, সকল নেয়ামতের জন্য
    5
    0 Comments 0 Shares
Directory
Gold Member